আকর্ষণ বাড়িয়েছে পিএইচপির গাড়ি

চট্টগ্রামে প্রথমবারের মতো সিএমসিসিআই’র উদ্যোগে নগরীর হালিশহর আবাহনী মাঠে চলমান চতুর্থ বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড অ্যান্ড এক্সপোর্ট ফেয়ারে বর্ণাঢ্য আয়োজনে চলছে নতুন মোটরবাইক এবং কার প্রদর্শনী ও বিক্রি। মেলার প্রধান আকর্ষণ সেডান কার ও পিএইচপি প্রাইড-১২৫ সিসি এবং পিএইচপি মারকাবা ১৫০ সিসি। শেষের দুটি মোটরবাইক, তৈরি করেছে পিএইচপি অটোমোবাইল লিমিটেড ও পিএইচপি মোটরস লিমিটেড।

বেসরকারি উদ্যোগে এ গাড়ি প্রস্তুত করেছে বৃহত্তম শিল্পপ্রতিষ্ঠান পিএইচপি ফ্যামিলির সহযোগী প্রতিষ্ঠান পিএইচপি অটোমোবাইল লিমিটেড ও পিএইচপি মোটরস লিমিটেড। সম্প্রতি এ প্রতিষ্ঠানগুলোর তৈরি সেডান কার ও মোটরসাইকেল বাজারে আনা হয়। ৬০০ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রতিষ্ঠিত সাগরিকা কারখানায় দিনে আট ঘণ্টা করে উৎপাদন প্রক্রিয়া চলে। আর এ আট ঘণ্টায় আটটি করে সেডান কার ও পিএইচপি প্রাইড-১২৫ সিসি এবং পিএইচপি মারকাবা ১৫০ সিসির ৩৫টি মোটরসাইকেল তৈরি করা হয়ে থাকে। সে হিসেবে প্রতি বছর চার হাজার ৩৮০টি সেডান কার ও মোটরসাইকেল ১২ হাজার ৭৭৫টি উৎপাদন করা যাবে।

মেলা উপলক্ষে প্রেটন প্রেভের মূল্য ২৫ লাখ টাকা, প্রেটন সাগা ১৮ লাখ, মালটিক্স সাড়ে সাত লাখ এবং পিএইচপি প্রাইড-১২৫ সিসি প্লাস এক লাখ ৩০ হাজার ও পিএইচপি মারকাবা ১৫০ সিসি এক লাখ ৪০ আর পিএইচপি সুপার ১০০ সিসি ৯৯ হাজার ৯০০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে। কারের ক্ষেত্রে তিন বছর ওয়ারেন্টি ও পাঁচবার সার্ভিস সুবিধা পাওয়া যাবে। এছাড়া বাইকের ক্ষেত্রে নিবন্ধন ফি সুবিধা পাওয়া যাবে।

পিএইচপি অটোমোবাইল লিমিটেড ও পিএইচপি মোটরস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ আকতার পারভেজ বলেন, এ মেলায় আমরা প্রত্যাশার চেয়ে বেশি সাড়া পেয়েছি। এ মুহূর্তে আমাদের পিএইচপি অটোমোবাইল লিমিটেড ও পিএইচপি মোটরস লিমিটেড প্রস্তুত করছি, যা দেশব্যাপী ১৭টি ডিলার নেটওয়ার্কের মাধ্যমে বিক্রি হচ্ছে। আগামীতে আমাদের উৎপাদন দ্বিগুণ করার চিন্তা-ভাবনা আছে। তবে এতে ক্রেতাসাধারণের আগ্রহও থাকতে হবে।