স্পোর্টস

আজ প্রথম সেমিফাইনাল ভারত নাকি নিউজিল্যান্ড?

ক্রীড়া ডেস্ক: মাঠের ক্রিকেটে দুর্দান্ত ছন্দে রয়েছে ভারত। সেই ধারাবাহিকতায় দলটি পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থেকে নিশ্চিত করে সেমিফাইনাল। এদিকে চলতি বিশ্বকাপের রাউন্ড রবিন লিগের শুরুটা দারুণ হলেও শেষটা ভালো হয়নি নিউজিল্যান্ডের। তারপরও টেবিলের চতুর্থ দল হিসেবে কেন উইলিয়ামসন বাহিনী এ টুর্নামেন্টের শেষ চারে জায়গা করে নেয়। সে হিসাবে আজ ফাইনালে উঠার লড়াইয়ে ভারতের চেয়ে কিছুটা পেছনেই থাকছে কিউইরা।
বাংলাদেশ সময় বিকাল ৩টা ৩০ মিনিটে ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে চলতি বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে মুখোমুখি হবে ভারত-নিউজিল্যান্ড। এ ম্যাচে জয়ী দল উঠে যাবে ফাইনালে। হারা দল বিদায় নেবে এ টুর্নামেন্ট থেকে।
চলতি বছরের শুরুতে নিউজিল্যান্ডে ৪-১ ব্যবধানে ওয়ানডে সিরিজ জিতেছিল ভারত। টি-টোয়েন্টি সিরিজেও ২-১ ব্যবধানে জয় তুলে নেয় বিরাট কোহলির দল। অবশ্য বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ম্যাচে ছয় উইকেটে জিতেছিল কেন উইলিয়ামসনের দল। এখন পর্যন্ত ভারত ও নিউজিল্যান্ড ওয়ানডেতে মুখোমুখি হয়েছে ১০৬ ম্যাচ। যে লড়াইয়ে নিউজিল্যান্ড ৪৫ ও ভারত জিতেছে ৫৫ ম্যাচ। একটি টাই ও ৫টি পরিত্যক্ত।
বিশ্বকাপ ইতিহাসে জয়ের দিক দিয়ে ভারতের চেয়ে এগিয়ে নিউজিল্যান্ড। এখন পর্যন্ত বৈশ্বিক এ টুর্নামেন্টে ৮ বারের দেখায় ভারতের ৩ জয়ের বিপরীতে নিউজিল্যান্ড হেসেছে ৪ বার। একটি ম্যাচ হয়েছে পরিত্যক্ত।
সেমিফাইনালে শক্তিশালী ভারতের বিপক্ষে আজ নিজেদের ‘আন্ডারডগ’ মানছে নিউজিল্যান্ড। বিশ্বমঞ্চে টানা দ্বিতীয় ফাইনাল খেলতে নিজেদের সেরার কাছাকাছি পারফর্ম করতে হবে বলে মনে করেন কিউই কোচ গ্যারি স্টেড।
বিশ্বকাপের প্রাথমিক পর্বে মাত্র একটি ম্যাচ হেরেছিল ভারত। পয়েন্ট তালিকায় সবার ওপরে থেকেই সেমিফাইনালে খেলতে নামছে বিরাট কোহলির দল। তবে এ ম্যাচে নিজেদের প্রমাণ করতেই কিউইরা মাঠে নামবে বলে জানিয়েছেন স্টেড, ‘ভারত দারুণ একটা দল তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। তাদের পুরো লাইনআপ জুড়ে বেশ কয়েকজন ম্যাচ-উইনার আছে। একদম শুরুতেই আমি বলেছিলাম, যাদের বিপক্ষেই খেলি না কেন তাদের হারাতে আমাদের সেরার কাছাকাছি খেলতে হবে।’
সেমিফাইনালের আগে সেরে উঠেছেন হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পাওয়া লকি ফার্গুসন। প্রতিপক্ষকে সমীহ করছেন গতিময় এই পেসার, ‘আমি মনে করি, বিশ্বকাপে বড় ম্যাচ সবসময় উত্তেজনা বাড়ায়। আর আমরা চতুর্থ স্থানে থেকে সেমিফাইনাল শুরু করব। তাই স্বাভাবিকভাবেই আমি মনে করি, তারা ভারতকে সমর্থন দিবে। কিন্তু আমরা, নিউজিল্যান্ডাররা প্রায়ই আন্ডারডগ থাকি। আর আমি মনে করি, এ অবস্থায় থাকতে আমরা পছন্দ করি। এটা নকআউট পর্ব। তাই মঙ্গলবারের পারফরম্যান্সের ওপর পুরোটা নির্ভরশীল। তুলনামূলক ভালো যারা খেলবে তারাই ফাইনালে যাবে।’
এদিকে বিরাট কোহলি মনে করেন আজ যে দল চাপ নিতে পারবে তারাই জিতবে। ম্যানচেস্টারের যে পিচে সেমির লড়াই হবে সেখানে নাকি টস সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। তবে ব্যাপারটি নিয়ে একটুও ভাবছে না ভারত অধিনায়ক, ‘আমরা টস নিয়ে একটুও ভাবছি না। যাই হোক আমরা তৈরি। ভারতের কাছে প্রতিটি ম্যাচই চাপের এবং একই সঙ্গে নতুন সুযোগেও। আমরা এ ধরনের পরিস্থিতি আগেও মোকাবিলা করে এসেছি। তবে বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল ম্যাচ একেবারেই আলাদা।

 

সর্বশেষ..