আতিথেয়তায় বৈশাখী…

বাঙালির প্রাণের উৎসব পয়লা বৈশাখ ঘিরে প্রাণচঞ্চল হয়ে উঠেছে বন্দরনগরী চট্টগ্রাম। গ্রীষ্মের খরতাপে উত্তপ্ত প্রকৃতিতে নতুন সূর্যালোকে শুরু হবে বাঙালির নতুন বছর। নানা রং, সাজ আর আয়োজনে বাঙালির প্রাণের উৎসব ‘পয়লা বৈশাখ’কে বরণ করে নিতে সবাই এখন ব্যস্ত কেউ নাচ, কেউ গান, কেউ বা ব্যস্ত আবৃত্তি-নাটকে, আবার কেউ মঙ্গল শোভাযাত্রার আয়োজনে।
শত ব্যস্ততার মাঝে নতুন বছরে নিজেকে নতুন রূপে সাজাতে ব্যস্ততার অন্ত নেই কারোর। তা পোশাক হোক বা সাজে, অথবা খাবার-দাবারে। ইতোমধ্যে বৈশাখের বেচাকেনায় সরব হয়ে উঠেছে নগরীর বিভিন্ন বিপণিবিতান ও বুটিকস হাউজগুলো। ক্রেতাদের সমাগমে ব্যস্ত নগরীর দোকানগুলো। বৈশাখ উপলক্ষে নগরীর হোটেল-রেস্তোরাঁগুলোও বাহারি ঐতিহ্যবাহী খাবারদাবারের আয়োজন নিয়ে সাজিয়েছে তাদের পসরা।
একনজরে দেখা যাক চট্টগ্রামের হোটেল-রেস্তোরাঁগুলো কে কেমন আয়োজন নিয়ে পয়লা বৈশাখ উপযাপন করছে
হোটেল রেডিসন ব্লু চিটাগং বে ভিউ
পয়লা বৈশাখ উদযাপনে নানা কর্মসূচি নিয়েছে চট্টগ্রামের পাঁচতারকা হোটেল রেডিসন ব্লু চিটাগং বে ভিউ। ‘রঙের উৎসব বৈশাখ’ শিরোনামে দু’দিনব্যাপী বর্ণাঢ্য এ আয়োজনের সবচেয়ে বড় চমক থাকবে কিংবদন্তি শিল্পী রুনা লায়লার পরিবেশনা। এছাড়া থাকবে বাঙালিয়ানা পরিবেশে প্রাতরাশ ও ভোজ। থাকছে দিনভর বাউল গান ও সব বয়সী মানুষের মিলনমেলা।
রেডিসন ব্লু চিটাগং বে ভিউর মহাব্যবস্থাপক রবিন এডওয়ার্ডস জানান, উৎসবপ্রিয় বাঙালিদের সব উৎসবকে রঙিন করতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। প্রতিবারের মতো ভিন্নধর্মী আয়োজনের অংশ হিসেবে এবারও পয়লা বৈশাখ উদযাপনে আমাদের নানা আয়োজন রয়েছে। বাঙালিয়ানা পরিবেশে প্রাতরাশ, দুপুরে ভোজ, সারা দিন বাউল গান ও সব শ্রেণি-পেশার মানুষের মিলন। পয়লা বৈশাখ উপলক্ষে হোটেলের মূল ফটক, লবি ও রেস্টুরেন্ট থেকে শুরু করে সব স্থানে থাকছে গ্রামীণ ঐতিহ্যের ছাপ। ১৪ ও ১৫ এপ্রিল বিশেষ অফার হিসেবে মাত্র ৯ হাজার ৯৯৯ টাকায় এক রাত এক দিন থাকা যাবে এখানে। তিনি আরও বলেন, পয়লা বৈশাখে সাফল্যের তিন বছর পেরিয়ে চতুর্থ বর্ষে পা দিচ্ছে রেডিসন ব্লু চিটাগং বে ভিউ। এ মাহেন্দ্রক্ষণকে আরও রঙিন করতে আয়োজনের এক দিন আগে ১৪ এপ্রিল রেডিসনে আসবেন কিংবদন্তি শিল্পী রুনা লায়লা। পয়লা বৈশাখ উপলক্ষে আমাদের সব আয়োজনে তিনি সম্পৃক্ত থাকবেন। ১৫ এপ্রিল রাত ৮টায় মোহনা বলরুমে থাকবে তার মনোমুগ্ধকর পরিবেশনা। দু’ঘণ্টাব্যাপী এ আয়োজনে অংশ নিতে চাইলে নির্ধারিত প্রবেশ টিকিট আগেই সংগ্রহ করতে হবে। মাত্র চার হাজার টাকায় টিকিট সংগ্রহ করা যাবে।
দ্য পেনিনসুলা চিটাগং
চট্টগ্রাম নগরীর চারতারকা হোটেল দি পেনিনসুলা চিটাগং বাংলা ১৪২৫ উপলক্ষে সব বয়সের মানুষের জন্য রেখেছে আকর্ষণীয় আয়োজন। তাদের আয়োজনের মধ্যে রয়েছে ১০০টির অধিক পদের বুফে আয়োজন। এছাড়া বিশেষ ঝালমুড়ি ও ফুচকা কর্নার এবং সেইসঙ্গে আকর্ষণীয় অফার হিসেবে থাকছে দুপুরের খাবার ১৫৮১+ (প্রতি ব্যক্তি)। রাতের খাবার ২৮০০+ প্রথম জনের সঙ্গে দ্বিতীয় জন ফ্রি। তাছাড়া এই হোটেলে বৈশাখের দিনটিতে লেগুনা রেস্টুরেন্টে (লেভেল ৫) আনন্দ মেলার আয়োজন করা হবে।
হোটেলটির মার্কেটিং ব্যবস্থাপক সুনেরা রহমান জানা, বৈশাখকে সবচেয়ে রঙিনভাবে স্বাগত জানাতে যাচ্ছে দি পেনিনসুলা চিটাগং। দিনটি মজার সব কার্যকলাপ দিয়ে পরিপূর্ণ। আমরা প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি, বন্ধুবান্ধব ও পরিবারের সঙ্গে আনন্দময় বৈশাখ উপভোগের জন্য অভ্যন্তরীণ আনন্দদায়ক আয়োজনের। মহিলাদের জন্য বিনা মূল্যে হেনা জোন, ছোটদের জন্য রঙিন মুখোশ, সবার জন্য মুখ চিত্রাঙ্কন এবং সারা দিনজুড়ে রয়েছে লাইভ সংগীত পরিবেশনা।
ওয়েল পার্ক রেসিডেন্স
পয়লা বৈশাখ বাংলা বর্ষবরণ উপলক্ষে নগরীর অভিজাত হোটেল ওয়েল পার্ক রেসিডেন্স কর্তৃপক্ষ প্রতিবারের মতো আয়োজন করেছে লোকজ সংস্কৃতি উৎসব ও বাঙালি খাবারে ভূরিভোজের। দুপুর ও রাতের খাবারে থাকছে পান্তা-ইলিশসহ ১০১ পদের বাংলার ঐতিহ্যবাহী খাবারের সমন্বয়ে ব্যুফে। দুপুর ও রাতের সব আয়োজন উপভোগ করা যাবে জনপ্রতি এক হাজার ৫০০ টাকায়। দুজনের সঙ্গে একজনকে সম্পূর্ণ বিনা খরচে ব্যুফে খাবারের বিশেষ অফার দিচ্ছে ওয়েল পার্ক কর্তৃপক্ষ।
ওয়েল পার্কের জেনারেল ম্যানেজার এম এ মনছুর বলেন, উৎসবের আনন্দে আমরা সবসময় বৈচিত্র্যময় আয়োজন করে থাকি। বাঙালি ঐতিহ্যকে লালন করে আধুনিক চিন্তাধারার সংমিশ্রণে বাঙালি ঐতিহ্যকে তুলে ধরার চেষ্টা করি। ওয়েল পার্কের বর্ষবরণ উৎসব অতিথিদের চিত্ত বিনোদনের মাধ্যমে স্মরণীয় মুহূর্ত হয়ে থাকবে বলে মনে করেন বিক্রয় ও বিপণন ব্যবস্থাপক মামুন আল রশিদ।
মেরিডিয়ান
অন্য হোটেলের মতো নানা আয়োজন রয়েছে মেরিডিয়ানে। দুপুর ও রাতের খাবারে থাকছে পান্তা-ইলিশসহ ৬২ পদের বাংলার ঐতিহ্যবাহী খাবারের সমন্বয়ে ব্যুফে। এছাড়া নারী ও ছোটদের জন্য ঐতিহ্যবাহী উপহার রয়েছে।

সাইদ সবুজ