স্পোর্টস

আত্মবিশ্বাস বাড়াতে পাকিস্তানের সামনে বাংলাদেশ

ক্রীড়া ডেস্ক: আয়ারল্যান্ডের মাটিতে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজ জিতে ফুরফুরে বাংলাদেশ শিবিরে। বলতে গেলে সেটাকে পুঁজি করেই আজ দ্বাদশ বিশ্বকাপের আনুষ্ঠানিকতা শুরু করতে যাচ্ছে টাইগাররা। নিছক প্রস্তুতি ম্যাচ। তাই বাড়তি কিছু পাওয়া নিয়ে ভাবছেন না ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। উল্টো এ ম্যাচে নিজেদের সর্বোচ্চটা দিতে জয় নিশ্চিত করতে তিনি ও তার দল। ম্যাচটি বাংলাদেশ সময় আজ বিকাল ৩টা ৩০ মিনিটে শুরু হবে কার্ডিফে। যে মাঠে টাইগারদের রয়েছে সুখস্মৃতি। যা দিচ্ছে বাড়তি প্রেরণা।
বাংলাদেশ যখন কোন দুশ্চিন্তায় ভুগছে না তখন পাকিস্তান শিবিরে বিষাদের সূর। সেটাই তো স্বাভাবিক। কেননা ১৯৯২ সালের বিশ্বকাপ জয়ীরা গত পরশু প্রস্তুতি ম্যাচে আফগানিস্তানের কাছে তিন উইকেটে হেসে।
আফগানদের জয়ে বাংলাদেশের আরও আত্মবিশ্বাস বেড়েছে বাংলাদেশের। তাছাড়া আজকের অনুশীলন ম্যাচ নিয়েও দারুণ আশাবাদী টাইগাররা।
আজ থেকে ২০ বছর আগে ইংল্যান্ডের মাঠেই বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। এর মাঝে সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের একাধিকবার হারারো তিক্ত স্বাদ উপহার দিয়েছে মাশরাফির দল। আজ আবারও তেমন কিছুই দেখাতে চান সাকিব আল হাসান-মুশফিকুর রহিমরা। ১৯৯৯ সালের বিশ্বকাপের আসরে ৩১ মার্চ নর্দাম্পটনশায়ারে মাঠে পাকিস্তানকে ৬২ রানে হারিয়ে বাংলাদেশ পুরো বিশ্বকে চমকে দেয়। বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় আসরে সেটাই ছিল বাংলাদেশের প্রথম কোনো জয়, যে কায়দায় সেদিন ফেভারিট পাকিস্তানকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ তাতেই রচিত হয় নতুন ইতিহাস।
ওই বিশ্বকাপের পর এখনও পর্যন্ত এ টুর্নামেন্টে আর দেখা হয়নি বাংলাদেশ-পাকিস্তানের। তাই আজকে দুই দলের প্রস্তুতি ম্যাচ ভক্তদের দিচ্ছে বাড়তি মাত্রা। তবে সদ্যই আয়ারল্যান্ড থেকে ত্রিদেশীয় সিরিজ জিতে আশায় দারুণ আশাবাদী টিম টাইগার্স।
বাংলাদেশের বিপক্ষে সার্বিক পরিসংখ্যানে মুখোমুখি লড়াইয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে পাকিস্তান অনেক এগিয়ে। তবে সাম্প্রতিক পারফরমেন্সের হিসাব যদি কষতে হয় তাহলে সেখানে প্রতিপক্ষ যখন পাকিস্তান তখন বাংলাদেশ ভীষণ দাপুটে দল টাইগাররা। পেছনের চার ম্যাচের চারটিই জিতেছে বাংলাদেশ। আর সর্বশেষ ওয়ানডে সিরিজে তো পাকিস্তানকে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়ে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা দিয়েছিল মাশরাফির দল।
এরইমধ্যে দ্বাদশ বিশ্বকাপে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে পাকিস্তান। গত পরশু আফগানিস্তারে বিপক্ষে মাঠে নেমে অবশ্য ৩ উইকেটে হেরেছে। তবে দলটির অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ আশা করছেন বাংলাদেশের বিপক্ষে জিতবে দল। তবে তেমনটি যে হতে দিতে চাইবে না টাইগাররা।
প্রস্তুতি ম্যাচে আজ বল-ব্যাটে জ্বলে উঠবেন সাকিব। উইকেটে পেছনে আর ব্যাটিংয়ে সেরাটাই দেবেন মুশফিকুর রহিম। তার আগে ওপেনিংয়ে বিধ্বংসী শুরু এনে দেবেন তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। শেষ দিকে মাহমুদউল্লাহ, মোসাদ্দেক হোসেন ও সাব্বির রহমান তুলবেন ঝড়। এদিকে বল হাতে মোস্তাফিজুর রহমান, আবু জায়েদ, মেহেদি হাসান মিরাজ ও মাশরাফি বিন মুর্তজা দেখাবেন কারিশমা। সব যদি এক হয়ে কথা বলে তবে পাকিস্তানকে না হারানোর কোন কারণ থাকবে না টাইগারদের।
পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে বাংলাদেশ শিবিরে স্বস্তি দিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাকিব আল হাসান ও রুবেল হোসেন। তারা সবাই চোটমুক্ত হয়ে ফিরেছেন। মাহমুদউল্লাহ তো আশা করছেন আজ দলের প্রয়োজনে তিন-চার ওভার হাত ঘোরাতে পারবেন। অন্যদিকে রুবেল মনে করছেন দলের এ চনমনে চেহারাটা তাদের সহায়তা করবে এবারের টুর্নামেন্ট রাঙাতে, ‘সবার মধ্যে আত্মবিশ্বাস আছে। সবশেষ ত্রিদেশীয় সিরিজে আমরা খুব ভালো ব্যাটিং, বোলিং করে বিশ্বকাপে পা রেখেছি। এটা আমাদের জন্য প্লাস পয়েন্ট। আশা করি সবাই ধারাবাহিকতা ধরে রাখবে। সবাই যদি নিজের ভূমিকা বোঝে, ভালো করতে পারে, আশা করি ভালো কিছুই হবে।’

সর্বশেষ..