আরএকে ক্যাপিটালের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা

খালেদ কিবরিয়া চৌধুরী: আসল আনন্দ তো ছেলেবেলার ঈদে। রমজানে অপেক্ষায় থাকতাম কখন চাঁদরাত আসবে! এ দিনে ঈদের আগাম আনন্দে মায়ের সঙ্গে ঘর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নের কাজে সহযোগিতা করতাম। টবে ফুল লাগানোর জন্য অনেক জায়গায় ফুলের খোঁজে যেতাম। গভীর রাতে ঘুমাতাম। আবার ভোরে ওঠে যেতাম। নতুন জামা পরে নামাজে যেতাম। এরপর যাদের বাসায় ভালো রান্না হতো, সেখানে আগে যেতাম। তখন তো এখনকার মতো এত বৈচিত্র্যময় খাবারের আয়োজন করা হতো না। এখন তো রান্না করা খাবার সারাদিন পড়ে থাকে।
ছেলেবেলায় ঈদের সেলামি নেওয়ার জন্য অনেকক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকতাম। এখন তো আমাদের সেলামি দিতে হয় ছোটদের। আগের মতো সব ঘরে যাওয়া হয় না। শুধু কিছু মুরব্বি আছেন, তাদের কাছে যাই। এখন ঈদ আনন্দে তৃপ্তি আছে, তখন ছিল অবারিত আনন্দ।