আস্থায় ফিরছে পুঁজিবাজার

নিজস্ব প্রতিবেদক: সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবসে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের উত্থানে শেষ হয়েছে লেনদেন। এদিন শুরুতে পতন থাকলেও ৩০ মিনিট পর ক্রয় চাপে বাড়তে থাকে সূচক। গতকাল মঙ্গলবার লেনদেন শেষে সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারদর। আর টাকার অঙ্কে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে। এতে বলা যায় আস্থায় ফিরছে পুঁজিবাজার। আলোচিত সময়ে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৫০৩ কোটি ৬৬ লাখ ৭৮ হাজার টাকা।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স গতকাল ছয় দশমিক শূন্য আট পয়েন্ট বা দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ বেড়ে ছয় হাজার ৮৮ দশমিক ৩৭ পয়েন্টে অবস্থান করে। ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক এক দশমিক ৫১ পয়েন্ট বা দশমিক ১১ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৪০৬ দশমিক ৭৫ পয়েন্টে অবস্থান করে। আর ডিএস৩০ সূচক এক দশমিক ৯৯ পয়েন্ট বা দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ বেড়ে দুই হাজার ২৪৬ দশমিক শূন্য তিন পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন ছিল চার লাখ ২০ হাজার ৫৬৮ কোটি সাত লাখ টাকা।

ডিএসইতে গতকাল লেনদেন হয় ৫০৩ কোটি ৬৬ লাখ ৭৮ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের দিন লেনদেন হয় ৪৮৬ কোটি ৬৩ লাখ ৬২ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন বেড়েছে প্রায় ১৭ কোটি টাকা। এদিন ১৩ কোটি ৮৮ লাখ ৯৭ হাজার ২৪টি শেয়ার এক লাখ ১৭ হাজার ৬১৯ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৩৭টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৬৭টির, কমেছে ১২৩টির, অপরিবর্তিত ছিল ৪৭টির দর।

গতকাল ডিএসইতে টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে লংকাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেড। এদিন ১৯ কোটি ৬৪ লাখ টাকায় চার লাখ ৬৯ হাজার ২৩৬টি শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারটির দর এক টাকা ১০ পয়সা কমেছে। এর পরের অবস্থানে ছিল ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড, আনোয়ার গ্যালভানাইজিং, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল লিমিটেড, কেয়া কসমেটিকস লিমিটেড, গ্রামীণফোন লিমিটেড, আলিফ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, মুন্নু সিরামিক, স্কয়ার ফার্মা ও ন্যাশনাল টিউবস লিমিটেড। সর্বোচ্চসংখ্যক শেয়ার লেনদেনকারী কোম্পানিগুলোর মধ্যে শীর্ষে উঠে আসে কেয়া কসমেটিকস। কোম্পানিটির এক কোটি সাত লাখ ৩৪ হাজার ৬১৮টি শেয়ার ১১ কোটি ৫৭ লাখ ৪৪ হাজার টাকায় লেনদেন হয়। শেয়ারটির দর ৫০ পয়সা কমেছে। এর পরের অবস্থানগুলোয় ছিল লংকাবাংলা ফিন্যান্স, ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড, ড্রাগন সোয়েটারস, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, মার্কেন্টাইল ব্যাংক, ফু-ওয়াং ফুড, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক, জেনারেশন নেক্সট ফ্যাশনস লিমিটেড ও ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড।

৯ দশমিক ৯৩ শতাংশ বেড়ে দরবৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে এপেক্স ফুডস লিমিটেড। এরপর সাত দশমিক ৫৮ শতাংশ বাড়ে এপেক্স টেনারির। এপেক্স স্পিনিং অ্যান্ড নিটিং মিলসের দর পাঁচ দশমিক ৯৬ শতাংশ, বিডি ল্যাম্পসের দর পাঁচ দশমিক ২৯ শতাংশ ও মেট্রো স্পিনিংয়ের দর বেড়েছে পাঁচ দশমিক শূন্য তিন শতাংশ।

পাঁচ দশমিক ৩১ শতাংশ দর কমে পতনের শীর্ষে চলে আসে কেয়া কসমেটিকস লিমিটেড। নিটল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের দর কমে চার দশমিক ২৫ শতাংশ। তিন দশমিক ৩৩ শতাংশ কমেছে প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির দর। প্রিমিয়ার সিমেন্ট মিলসের দর তিন দশমিক ২০ শতাংশ ও লংকাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেডের দর তিন দশমিক ১৪ শতাংশ কমেছে।

অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ১৩ দশমিক ৭৮ পয়েন্ট বেড়ে ১১ হাজার ৩৫৮ দশমিক ১৭ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২৯ দশমিক ১১ পয়েন্ট বেড়ে ১৮ হাজার ৮২১ দশমিক ২০ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল সর্বমোট ২৩৭টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১২৬টির, কমেছে ৭৬টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৫টির দর।

সিএসইতে এদিন ৩৫ কোটি ৩৮ লাখ ১৪ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২০ কোটি তিন লাখ দুই হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। লেনদেনের শীর্ষে ছিল প্রিমিয়ার সিমেন্ট মিলস। কোম্পানিটির আট কোটি ৮৩ লাখ ৪৬ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। এছাড়া বাটা সু’র ছয় কোটি পাঁচ লাখ দুই হাজার, কেয়া কসমেটিকসের এক কোটি ৩৯ লাখ, লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের এক কোটি ১৪ লাখ, বিবিএস কেব্লসের ৭৮ লাখ ২২ হাজার, আলিফ ইন্ডাস্ট্রিজের ৬১ লাখ ১৪ হাজার, গ্রামীণফোনের ৬১ লাখ ১৪ হাজার, বেক্সিমকোর ৫৭ লাখ, আনোয়ার গ্যালভানাইজিংয়ের ৪৭ লাখ ও লিগেন্সি ফুটওয়্যারের ৪১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।