ইউরোপের সবুজ শহর

সে শহরের তিন ভাগের এক ভাগ মানুষ সাইকেল চালায়। দ্বিচক্রযানে চড়েই নাগরিকরা কাজকর্ম, বেড়ানো, ঘোরাঘুরি, সামাজিক মেলামেশা, বাজার করা প্রভৃতি সারে। তারা আরও আশা করে, কয়েক বছরের মধ্যে শহরের অর্ধেক মানুষের প্রধানতম যান হবে বাইসাইকেল।

আমাদের কাছে একটু বেখাপ্পা মনে হলেও ঠিক এমনই অবস্থা ডেনমার্কের রাজধানী কোপেনহেগেনের। পরিবেশ সচেতনতা ও স্বাস্থ্যকর জীবনপ্রণালীর কারণে এ শহর ইউরোপের সবুজ রাজধানীর তকমা পেয়েছে।

নৈসর্গিক সৌন্দর্যের অফুরন্ত আধার ডেনমার্ক। আকাশের নীলিমা, বিশাল জলরাশি, অগুনতি পাহাড়, স্থাপত্যশিল্প, পাহাড়-পর্বত কিংবা দিগন্তবিস্তৃত সবুজের সমারোহ রয়েছে দেশটি জুড়ে। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে সবচেয়ে এগিয়ে আছে এর কোপেনহেগেন শহরটি।

লিটল মারমেইডের অধিবাসীরা প্রাকৃতিক সম্পদকে কাজে লাগিয়েছেন। তাদের সচেতনতার কারণে এ শহর শুধু সবুজ রাজধানীর উপমাই পায়নি, পর্যটকদের কাছে অন্যতম আকর্ষণীয় শহর হিসেবেও পরিচিতি  পেয়েছে। ডেনমার্কের জনঅধ্যুষিত এ শহরে নামকরা অনেক বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে। সংস্থাগুলোও পরিবেশ রক্ষায় বেশ সচেতন।

 

হ দূরে কোথাও ডেস্ক