বিশ্ব সংবাদ

ইরানে ১৭ মার্কিন গুপ্তচর আটক

 

শেয়ার বিজ ডেস্ক: সন্দেহভাজন ১৭ মার্কিন গুপ্তচরকে আটক করেছে ইরান। আটককৃতরা মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সেন্ট্রাল ইন্টেলিজেন্স এজেন্সির (সিআইএ) হয়ে কাজ করছিলেন বলে জানিয়েছে তেহরান। খবর: সিএনএন ও পার্সটুডে।
ইরানের গোয়েন্দাবিষয়ক মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তারা সিআইএ’র একটি সক্রিয় চক্রকে ধ্বংস করতে সক্ষম হয়েছে। এ চক্রটি সমন্বিতভাবে ইরানে তৎপর ছিল। মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন,
আটককৃত গুপ্তচরদের মধ্যে কয়েকজনকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হতে পারে।
গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে কথা বলেন গোয়েন্দা মন্ত্রণালয়ের গুপ্তচরবিরোধী দফতরের পরিচালক। তিনি বলেন, সিআইএ’র হয়ে কাজ করা ১৭ পেশাদার গুপ্তচরকে গত ১৮ জুন আটক করা হয়েছে। এসব গুপ্তচর সরকারের বিভিন্ন সংস্থা ও বেসরকারি খাতে কর্মরত ছিলেন, যাদের সঙ্গে কয়েকটি কেন্দ্রের যোগাযোগ রয়েছে।
আটক ১৭ ব্যক্তি আলাদাভাবে কাজ করছিলেন। তাদের একজনের সঙ্গে অন্যজনের কোনো যোগাযোগ নেই। এর মধ্যে কাউকে কাউকে ভিসার ফাঁদে ফেলে সিআইএ গুপ্তচরবৃত্তিতে বাধ্য করেছে। কাউকে কাউকে সরাসরি বলা হয়েছে, মার্কিন ভিসা পেতে হলে গুপ্তচরবৃত্তি করতে হবে।
সিআইএ কর্মকর্তারা নিজেদের মার্কিন গোয়েন্দা হিসেবে পরিচয় দিয়ে ব্যক্তিগত মেইল অথবা সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে বার্তা পাঠিয়ে লোকজনকে গুপ্তচরবৃত্তিতে আহ্বান জানিয়েছেন, এমন ঘটনাও ঘটেছে।
এমন সময়ে ইরান মার্কিন গুপ্তচরদের গ্রেফতারের এ ঘোষণা দিল যখন তেহরানের সঙ্গে বিদ্যমান উত্তেজনার মধ্যেই সৌদি আরবে নতুন করে আরও সেনাসদস্য এবং সামরিক সরঞ্জাম মোতায়েন করছে যুক্তরাষ্ট্র। এরই মধ্যে এ প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।
গত ১৯ জুলাই সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা এসপিএ জানিয়েছে, আঞ্চলিক নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা জোরদারে বাড়তি মার্কিন সামরিক উপস্থিতি নিশ্চিতের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বাড়তি সামরিক উপস্থিতির অংশ হিসেবে সৌদি আরবের প্রিন্স সুলতান ঘাঁটিতে অত্যাধুনিক মার্কিন প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েনের কথা শোনা যাচ্ছে। এছাড়া সেখানে এফ-২২ জঙ্গিবিমানের একটি স্কোয়াড্রন পাঠানো হতে পারে। থাকছে বাড়তি মার্কিন সেনা সমাবেশ। এরই মধ্যে সামগ্রিক বিষয় নিয়ে কথা বলতে বৃহস্পতিবার সৌদি আরবে আগে থেকেই মোতায়েন থাকা মার্কিন সেনাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ইউএস সেন্ট্রাল কমান্ডের কমান্ডার জেনারেল কেনেথ ম্যাকেনজি।

সর্বশেষ..



/* ]]> */