উবারের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর সাকিব

ক্রীড়া ডেস্ক: বাংলাদেশসহ বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে স্মার্টফোনের অ্যাপভিত্তিক ট্যাক্সি সার্ভিস উবার। সেটাকে আরও এগিয়ে নিতে কোম্পানি এবার দারস্থ হয়েছে সাকিব আল হাসানের। মানে দেশসেরা এ অলরাউন্ডারকে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর বেছে নিয়েছে তারা। গতকাল ব্যাপারটি নিশ্চিত করেছেন উবারের ভারত ও দক্ষিণ এশীয়ার প্রেসিডেন্ট প্রদীপ পরমেশ্বরণ।
বাংলাদেশে কাজের সুযোগ সৃষ্টি, যুবকদের ক্ষমতায়ন এবং উন্নত যাতায়াত ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে উবার ও সাকিব আল হাসান এখন থেকে একসঙ্গে কাজ করবেন। এ ব্যাপারে প্রদীপ পরমেশ্বরণ বলেন, ‘বাংলাদেশে উবারের ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে সাকিব আল হাসানকে পেয়ে আমরা আনন্দিত। গত কয়েক বছর ধরে মাঠ ও মাঠের বাইরে বাংলাদেশিদের মধ্যে একজন রোল মডেল হিসেবে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন তিনি। তার মধ্যে আমরা এমন একজন পার্টনার পেলাম, যিনি সাধারণ মানুষের মাঝে ইতিবাচক পরিবর্তন, তাদের ক্ষমতায়ন ও জীবনমানের উন্নয়নে আমাদের আদর্শের প্রতিফলন ঘটাবেন। আমি নিশ্চিত যে, এর মাধ্যমে বিনিয়োগ ও উদ্ভাবন আরও একধাপ এগিয়ে যাবে। কারণ বাংলাদেশ আমাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বাজার।’
এদিকে উবারের সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে দারুণ আনন্দিত সাকিব, ‘একজন খেলোয়াড় হিসেবে আমাকে প্রচুর ভ্রমণ করতে হয় এবং আমি ব্যক্তিগতভাবে উবার বুকিং করে ভ্রমণে যেতে পছন্দ করি। প্রযুক্তি ব্যবহার করে প্রতিষ্ঠানটি শহরের মধ্যে মানুষের যাতায়ত ব্যবস্থায় যে ইতিবাচক পরিবর্তন ঘটিয়েছে, বিশ্বব্যাপী লাখ লাখ মানুষের ক্ষমতায়ন ও কাজের সুযোগ সৃষ্টি করছে, তা দেখে আমার খুবই ভালো লাগছে। বাংলাদেশে প্রযুক্তি ও যাতায়াত ব্যবস্থায় বৈপ্লবিক পরিবর্তনের কর্ণধার হিসেবে পরিচিত উবারের সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে আমি খুবই আনন্দিত।’
আগামী কয়েক মাস মাঠে সাকিব যেমন তার সর্বোচ্চটা দেওয়ার চেষ্টা করবে তেমনি উবারও বাংলাদেশের নগরের যাতায়াতে স্বাচ্ছন্দ্য আনতে তাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করবে। একই সঙ্গে ঢাকা ও চট্টগ্রামের যানজট কমাতে ও চালকদের কাজের সুযোগ সৃষ্টি করতে ভূমিকা রাখবে বলেই বিশ্বাস সাকিব ও উবার কর্তৃপক্ষের।