উড়োজাহাজে স্বস্তির পোশাক

সেদিন ট্রান্সআটলান্টিক ফ্লাইটে লন্ডন থেকে নিউইয়র্কে যাচ্ছিলেন পপস্টার লেডি গাগা। তিনি ১২ ইঞ্চি উঁচু হিলের আরমাডিলো জুতা পরে বিমানে চড়েছিলেন। তার পরনে ছিল কালো রঙের বুনো পোশাক আর কোমরে হলুদ বেল্ট। পোশাকটি ছিল অদ্ভুতুড়ে আর বেশ আঁটোসাঁটো। বিমান আকাশে উড়তে না উড়তেই তার শিরায় রক্ত জমাট বাঁধে। তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরের কয়েক দিন পানিশূন্যতায়ও ভোগেন। পোশাক-আশাকের কারণে তাকে তখন এত হ্যাপা পোহাতে হয়েছিল।

আপনি নিশ্চয়ই এমন পরিস্থিতি এড়িয়ে চলতে চান। তাই উড়োজাহাজ ভ্রমণে কী পরতে হয়, কী এড়িয়ে চলতে হয় তা জেনে নিতে পারেন।

 

উঁচু হিল

উঁচু হিল শরীরের জন্য ক্ষতিকর। নিয়মিত হাইহিল পরার কারণে পায়ে ক্রনিক ব্যথা হতে পারে। হাড়ের গিঁটে স্থায়ী বিকৃতি হতে পারে। তাছাড়া কোমরে ও মেরুদণ্ডে সমস্যা দেখা দিতে পারে। হাইহিলের পরিবর্তে তাই ফ্ল্যাট সোলের জুতা পরুন। এতে বিমানবন্দরে হাঁটাচলায় যেমন স্বস্তি পাবেন, ভ্রমণও হবে আরামদায়ক।

 

আঁটোসাঁটো পোশাক

আপনি যতই উপরে উঠতে থাকবেন, ততই চাপ বাড়তে থাকবে। তাছাড়া বিমান ভ্রমণে নিশ্চল বসে থাকার কারণে শিরায় রক্ত জমাট বাঁধতে পারে। বিশেষ করে স্কিন টি-শার্ট, টাইট জিন্স অথবা চামড়ার প্যান্ট পরে বিমানে না ওঠাই ভালো। এর পরিবর্তে সুতির হালকা পোশাক পরুন। যাতে সহজে বাতাস চলাচল করতে পারে।

 

অতিরিক্ত সুগন্ধি

বিমানে যাত্রীরা অপ্রশস্ত কেবিনে পাশাপাশি বসে থাকেন। কেবিনজুড়ে তাদের শ্বাস-প্রশ্বাস ঘুরপাক খেতে থাকে। এমন অবস্থায় কড়া সুগন্ধি অন্যের অস্বস্তির কারণ হতে পারে। তীব্র গন্ধে কারও কারও অ্যালার্জি কিংবা হাঁপানির সমস্যাও দেখা দিতে পারে। তাই চড়া সুগন্ধির পরিবর্তে ডিওডোরেন্ট ও নতুন ধোয়া পরিষ্কার জামাকাপড় পরুন।

অপর্যাপ্ত পোশাক

শর্টস, মিনি অথবা মাইক্রো স্কার্টস পরে বিমানে না চড়াই ভালো। আমেরিকা ও ইংল্যান্ডের অনেক এয়ারলাইনস কোনো কারণ ছাড়াই নানা সময় স্বল্পবসনা নারীদের বিমান থেকে নামিয়ে দেয়। এছাড়া বিভিন্ন সময় তারা যাত্রীদের পোশাক পাল্টানোরও অনুরোধ করে থাকে।

 

কন্টাক্ট লেন্স

বিমানের কেবিন এমনিতেই শুষ্ক। আবহাওয়াভেদে একেক অঞ্চলে একেক ধরনের তাপমাত্রা অনুভূত হয়। ফলে দীর্ঘক্ষণ ধরে বিমানে চড়ার সময় শরীর প্রতিনিয়ত চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ে। এমন পরিস্থিতিতে কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহার করলে অস্বস্তিতে পড়তে পারেন, চোখে ক্ষত হয়ে যেতে পারে। এর পরিবর্তে চশমা পরুন।

পাশাপাশি পায়জামা, চটি, বড় পার্স, খালি পা, জার্সি, গহনা, ময়লা পোশাক পরে বিমানে না ওঠাই ভালো।

এয়ার ফেয়ার ওয়াচডগ অবলম্বনে