বিশ্ব সংবাদ

উড়োজাহাজ দুর্ঘটনায় নিহতদের ক্ষতিপূরণ দেবে বোয়িং

শেয়ার বিজ ডেস্ক: ৭৩৭ ম্যাক্স মডেলের বড় দুই দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেবে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক উড়োজাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং। ইন্দোনেশিয়া ও ইথিওপিয়ায় দুই দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারকে মোট ১০ কোটি ডলার দেওয়া হবে। ভয়াবহ ওই দুই উড়োজাহাজ দুর্ঘটনায় ৩৪৬ জনের মৃত্যু হয়। খবর: বিবিসি, রয়টার্স।
বোয়িং জানিয়েছে, স্থানীয় সরকার ও অলাভজনক সংস্থার মাধ্যমে ওইসব পরিবারকে কয়েক বছর ধরে এ অর্থ প্রদান করা হবে। এ অর্থ পরিবারগুলোর শিক্ষা ও জীবিকা নির্বাহসহ অন্যান্য সামাজিক কাজে ব্যয় করা হবে। অবশ্য ভুক্তভোগী পরিবারগুলোর আইনজীবীরা এ পদক্ষেপ নাকচ করে দিয়েছেন।
এ পদক্ষেপের মাধ্যমে বিশ্বের সবচেয়ে বড় উড়োজাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটির ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধারের চেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে মনে করা হচ্ছে। মাত্র পাঁচ মাসের মধ্যে ইন্দোনেশিয়া ও ইথিওপিয়ার দুর্ঘটনার কারণে বড় ধরনের সংকটের মধ্যে পড়েছে বোয়িং। ৭৩৭ ম্যাক্স মডেলের সব উড়োজাহাজ উড্ডয়ন বন্ধ রেখেছে এয়ারলাইনসগুলো।
ওই দুই দুর্ঘটনার পর ৭৩৭ ম্যাক্স মডেলের উড়োজাহাজ নিয়ে তারা যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগের তদন্তের মুখে পড়েছে। এছাড়া নিয়ন্ত্রক সংস্থাও বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। বোয়িংয়ের বিরুদ্ধে ভুক্তভোগী অন্তত ১০০ পরিবার মামলা করেছে। তবে ক্ষতিপূরণের অর্থ এ মামলার বাইরের বিষয় এবং আইনগত কার্যক্রমে কোনো প্রভাব ফেলবে না বলে বোয়িংয়ের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন। যদিও যে ১০ কোটি ডলার অর্থ দেওয়ার কথা বলা হয়েছে, তা একটি ৭৩৭ ম্যাক্স-৮ মডেলের উড়োজাহাজের সর্বনিম্ন দামের থেকেও কম।
বোয়িংয়ের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী ডেনিস মুইলেনবার্গ বলেছেন, ‘দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারের অপূরণীয় ক্ষতির কারণে আমরা দুঃখিত। এই জীবনহানি আমাদের অন্তরে প্রোথিত থাকবে এবং আমাদের মনে থাকবে আরও অনেক দিন। যেসব পরিবার এবং তাদের ভালোবাসার মানুষ হারিয়ে গেছে, তাদের জন্য আমাদের সমবেদনা। এই প্রাথমিক উদ্যোগ তাদের কিছুটা হলেও স্বস্তি দেবে বলে আশা করি।’
সমস্যাজর্জরিত ৭৩৭ ম্যাক্স মডেলের উড়োজাহাজ নিয়ে বিপাকে পড়েছে নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং। গত মাসে নতুন ত্রুটি ধরা পড়ায় এর পরীক্ষামূলক উড্ডয়ন আরও দেরি হতে পারে বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের নীতিনির্ধারকরা। দেশটির ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফএএ) উড়োজাহাজটিতে নতুন ঝুঁকি খুঁজে পাওয়ার কথা জানালেও এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু প্রকাশ করেনি।
গত মার্চের পর থেকে বোয়িংয়ের সবচেয়ে বেশি বিক্রীত ৭৩৭ ম্যাক্স মডেলের উড়োজাহাজটির উড্ডয়ন বন্ধ রয়েছে। অবশ্য নির্মাতা কোম্পানি উড়োজাহাজটির ফ্লাইট নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা হালনাগাদ করেছে। দুর্ঘটনা তদন্তেও এ বিষয়ে নজর দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। এফএএ এক টুইট বার্তায় বলেছে, সাম্প্রতিক সময়ের মধ্যে বেরিয়ে আসা সম্ভাব্য ঝুঁকি ব্যাপারটি সামনে আসায় এফএএ তা পুরোপুরি উদ্ঘাটন এবং সমাধানের চেষ্টা করছে। সাম্প্রতিক সময়ে পাওয়া এ ঝুঁকি বোয়িংকে অবশ্যই সমাধান করতে হবে।
গত মে মাসে এফএএ ইঙ্গিত দিয়েছিল, পরিবর্তনের পর বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স উড়োজাহাজ উড্ডয়নের অনুমোদনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হতে পারে। এছাড়া চলতি জুলাইয়ে একটি পরীক্ষামূলক উড্ডয়নের সম্ভাবনার কথাও জানানো হয়েছিল।

 

 

সর্বশেষ..