বাণিজ্য সংবাদ

একনেকে ৫১৪২ কোটি টাকার আট প্রকল্প অনুমোদন

নিজস্ব প্রতিবেদক: জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় পাঁচ হাজার ১৪২ কোটি ছয় লাখ টাকা ব্যয়ে আটটি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে সরকারি তহবিল (জিওবি) থেকে ব্যয় হবে ৪১২৯ কোটি ৮১ লাখ টাকা এবং প্রকল্প ঋণ থেকে আসবে ১০১২ কোটি ২৫ লাখ টাকা। একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে গতকাল শেরেবাংলা নগর এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় এসব প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়। সভা শেষে পরিকল্পনা মন্তণালয়ের সচিব নুরুল আমিন সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। তিনি বলেন, সভায় উপস্থাপিত আটটি (নতুন ও সংশোধিত) প্রকল্প অনুমোদন করা হয়। এসব প্রকল্পে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে পাঁচ হাজার ১৪২ কোটি ছয় লাখ টাকা। এর মধ্যে জিওবি চার হাজার ১২৯ কোটি ৮১ লাখ টাকা এবং প্রকল্প ঋণ এক হাজার ১২ কোটি ২৫ লাখ টাকা। অনুমোদিত প্রকল্পসমূহ হলো- গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের ‘হলিডেমোড়-বাজারঘাটা-লারপাড়া (বাসস্ট্যান্ড) প্রধান সড়ক সংস্কারসহ প্রশস্তকরণ’ প্রকল্প; ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযু্ক্িত মন্ত্রণালয়ের ‘চট্টগ্রামের মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলে টেলিযোগাযোগ নেটওয়ার্ক স্থাপন’ প্রকল্প; তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের ‘বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটি-২ এর সহায়ক অবকাঠামো নির্মাণ’ প্রকল্প; স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের ‘ঢাকা বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ উপজেলা ও ইউনিয়ন সড়ক প্রশস্তকরণ ও শক্তিশালীকরণ’ প্রকল্প; কৃষি মন্ত্রণালয়ের ‘পাবনা-নাটোর-সিরাজগঞ্জ জেলায় ভূ-উপরিস্থ পানির মাধ্যমে সেচ উন্নয়ন’ প্রকল্প; পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ‘পাবর্ত্য চট্টগ্রাম পল্লী উন্নয়ন প্রকল্প দ্বিতীয় পর্যায় (আউটপুট-বি:রুরাল কম্পোনেন্ট) (৩য় সংশোধিত)’ প্রকল্প; মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের ‘জনস্বাস্থ্য সুরক্ষায় ভেটেরিনারি পাবলিক হেলথ সার্ভিস জোরদারকরণ’ প্রকল্প; বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ‘এক্সপোর্ট কম্পিটিটিভনেস ফর জবস (১ম সংশোধিত)’ প্রকল্প।
পরিকল্পনা সচিব নুরুল আমিন বলেন, প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নের মধ্যে দিয়ে দেশের উন্নয়ন ত্বরান্বিত হবে। ঢাকা বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ উপজেলা ও ইউনিয়ন সড়ক প্রশস্তকরণ ও শক্তিশালীকরণ প্রকল্পটি সরকারের গ্রামকে শহর বানানোর পদক্ষেপের অংশ হিসেবে হাতে নেওয়া হয়েছে।
সভায় কৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনবিষয়কমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন, ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী অংশগ্রহণ করেন।
সভায় প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব, এসডিজির মুখ্য সমন্বয়ক, পরিকল্পনা কমিশনের সদস্যরা, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়সমূহের সচিব এবং ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ..



/* ]]> */