এফএম’র সব পণ্য ওয়ানটাইম

ওয়ানটাইম প্লাস্টিকের চাহিদা বাড়ছে নানা কারণে। প্যাকেজিং থেকে শুরু করে পিকনিক ও বড় আয়োজনে আপ্যায়নের জন্য ওয়ানটাইম প্লেট, গ্লাস, চামচের বিকল্প নেই। শুধু ওয়ানটাইম পণ্যের উৎপাদন ও বিপণনের মাধ্যমে ব্র্যান্ড গড়ে উঠতে পারে, সেটা হয়তো অল্প মানুষের ভাবনায় ছিল। বাণিজ্যমেলার এসএমই ফাউন্ডেশনের ৮ নম্বর স্টলে গেলে সেটি অনুভব করা যাবে। এফএম প্লাস্টিক ইন্ডাস্ট্রিজের ওই স্টলে সংরক্ষিত সব পণ্য একবার ব্যবহার করে ফেলে দেওয়ার মতো। আর এ পণ্যকেই পরিচিত করতে এসেছে কোম্পানিটি বাণিজ্যমেলায়।

কোম্পানির বিক্রয়কর্মী জানান, মো. গাজী তৌহিদুর রহমান নামে এক উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠানটি শুরু করেন ২০০৮ সালে। কোম্পানির কারখানা রয়েছে নরসিংদী ও কামরাঙ্গিরচরে। ২৫ থেকে ৪৫টি আইটেম রয়েছে এর সংগ্রহে। এর মধ্যে রয়েছে বিস্কুটের ট্রে, ডিমের ট্রে, গ্রিল বক্স, চিকেন বক্স, বার্গার বক্স, চার ও পাঁচ চেম্বারের আলাদা ফুড ট্রে, গ্লাস, কাপ, চামচ প্রভৃতি। প্রতিষ্ঠানটির প্রধান কার্যালয় রাজধানীর গুলশানে। কোম্পানিটির দাবি, প্যাকেটের ভেতরে খাদ্যপণ্য বিশুদ্ধ ও নিরাপদ রাখতে আলাদাভাবে ডিসপেজেবল প্লাস্টিক জনপ্রিয় করার ক্ষেত্রে তারাই মুখ্য প্রতিষ্ঠান।

কোম্পানি সংশ্লিষ্টরা জানান, ড্যানিশ, হক, ডেকো, ফু-ওয়াং, প্রাণ, রোমানিয়া, ইগগুসহ বিভিন্ন কোম্পানি তাদের বিস্কুট, নুডলসসহ নানা খাদ্যপণ্যের ভেতরের প্যাকেট সংগ্রহ করে থাকে এফএম থেকে। এছাড়া মর্টিন, এসিআই, ঈগলের মতো ব্র্যান্ডেড মশার কয়েলও প্যাকেট হয় এফএম’র পণ্যে। বাণিজ্যমেলায় এ প্রতিষ্ঠানটি সরাসরি খুব একটা বিক্রি করছে না। শুধু সম্ভাব্য ক্রেতাদের কাছে ব্র্যান্ডটিকে পরিচিত করতে আসছে। কর্মীরা জানাচ্ছেন, সংখ্যায় বেশি হলে ক্রেতাদের চাহিদামতো আকৃতিতেই প্লাস্টিকের ওয়ানটাইম প্লেট বা গ্লাস সরবরাহ করতে পারবেন তারা।