বিশ্ব বাণিজ্য

এবার বোয়িংয়ের কাছে ক্ষতিপূরণ চাইবে কাতার এয়ারওয়েজ

শেয়ার বিজ ডেস্ক: উড্ডয়ন বন্ধ থাকায় যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক উড়োজাহাজ নির্মাতা বোয়িংয়ের কাছে ক্ষতিপূরণ চাইবে কাতার এয়ারওয়েজ। প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) আকবর আল বাকের এ কথা জানিয়েছেন। এর আগে চীনের প্রধান তিনটি এয়ারলাইনস বোয়িংয়ের কাছ থেকে ক্ষতিপূরণ দাবি করেছে। খবর: রয়টার্স।
বাকের বলেন, ইতালির এয়ারলাইন এয়ার ইতালির উড়োজাহাজ বহরে ৭৩৭ ম্যাক্স সিরিজের তিনটি উড়োজাহাজ রয়েছে, যেগুলো ম্যাক্সের এ সিরিজের অন্য উড়োজাহাজগুলোর মতো গ্রাউন্ডেড রয়েছে। ৭৩৭ ম্যাক্সের এয়ার ইতালির তিনটি উড়োজাহাজ গ্রাউন্ডেড থাকায় আমরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি। আমরা বোয়িংয়ের কাছে ক্ষতিপূরণ চাওয়ার পরিকল্পনা করছি।
পাঁচ মাসের ব্যবধানে ইন্দোনেশিয়া ও ইথিওপিয়ায় ৭৩৭ ম্যাক্সের দুটি মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় কমপক্ষে ৩৫০ জন মারা যান। সম্প্রতি এ দুই ভয়ঙ্কর দুর্ঘটনার পর বিশ্বব্যাপী বোয়িংয়ের ৭৩৭ ম্যাক্সের উড়োজাহাজগুলো গ্রাউন্ডেড রাখা হয়েছে। বিশ্বব্যাপী এ সিরিজের উড়োজাহাজগুলো গ্রাউন্ডেড রাখার ফলে যেসব আকাশসেবা সংস্থা এগুলো ব্যবহার করে তাদের সমস্যায় পড়তে হয়েছে। কারণ ৭৩৭ ম্যাক্স উড়োজাহাজগুলো গ্রাউন্ডেড রাখার ফলে সংশ্লিষ্ট আকাশসেবা সংস্থাগুলোকে অনেক বুকিং বাতিল করতে হয়েছে।
উড্ডয়ন বন্ধ থাকায় চলতি জুন পর্যন্ত চার বিলিয়ন ইউয়ান বা ৫৭ কোটি ৯০ লাখ ডলার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেছে চায়না এয়ার ট্রান্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশন (সিএটিএ)। তারা মার্কিন উড়োজাহাজ নির্মাতা বোয়িংয়ের কাছে এ ক্ষতিপূরণ দাবি করেছে।
এদিকে নিরাপত্তা ত্রুটির কারণে বিশ্বজুড়ে উড্ডয়ন বন্ধ রাখা বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স মডেলের উড়োজাহাজ বহরে ফেরানোর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে ব্যর্থ হয়েছে এয়ারলাইনসগুলোর নীতিনির্ধারকরা। কবে নাগাদ এ মডেলের উড়োজাহাজ উড্ডয়ন শুরু হতে পারে সে ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়ার লক্ষ্যে গত শুক্রবার আলোচনা করছেন তারা। যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (এফএএ) উদ্যোগে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারেনি। নিরাপত্তাগত ত্রুটি দূর করতে এরই মধ্যে এর সফটওয়্যার ব্যবস্থা আপডেট করেছে বোয়িং। তবে পুনরায় উড্ডয়ন শুরু করতে হলে অবশ্যই এফএএ’র অনুমোদনের প্রয়োজন হবে।
পাঁচ মাসের মধ্যে দ্বিতীয়বারের মতো ৭৩৭ ম্যাক্স-৮ মডেলের উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হওয়ায় মার্কিন উড়োজাহাজ নির্মাতা বোয়িং সংকটে পড়েছে। ইথিওপিয়ায় এ মডেলের উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হওয়ার পর থেকে এক সপ্তাহে প্রতিষ্ঠানটির বাজারমূল্য কমেছে দুই হাজার ৫০০ কোটি ডলার। শুধু আর্থিক ক্ষতিই নয়, উড়োজাহাজ খাতে প্রতিষ্ঠানটির সুনামও ক্ষুন্ন হচ্ছে।

 

সর্বশেষ..