কবি বেলাল চৌধুরী আর নেই

শেয়ার বিজ ডেস্ক: না ফেরার দেশে চলে গেলেন কবি বেলাল চৌধুরী। তার বড় ছেলে আবদুল্লাহ প্রতীক চৌধুরী  আজ মঙ্গলবার দুপুরে এই তথ্য জানান। বেশ কিছুদিন ধরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন কবি বেলাল চৌধুরী।

গত বৃহস্পতিবার রাতে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) নেয়া হয়। এরপর শুক্রবার অবস্থার আরও অবনতি হলে বেলা সাড়ে ১২টার দিকে নেয়া হয় লাইফ সাপোর্টে।

বেলাল চৌধুরীর ছেলে আবদুল্লাহ প্রতীক চৌধুরী জানান, বাবা গত প্রায় চার মাস ধরে ঢাকার আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালে ভর্তি আছেন। তিনি কিডনি জটিলতা, রক্তশূন্যতা ও থাইরয়েডের সমস্যায় ভুগছিলেন। ওই হাসপাতালের অধ্যাপক ফিরোজ আহমেদ কোরেশীর তত্ত্বাবধানে তার চিকিৎসা চলছিল।

বেলাল চৌধুরী একাধারে কবি, প্রাবন্ধিক, অনুবাদক ও সাংবাদিক। ঢাকার ভারতীয় দূতাবাস থেকে প্রকাশিত ‘ভারত বিচিত্রা’র সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন দীর্ঘদিন। সাপ্তাহিক সন্দ্বীপ পত্রিকাটিও তিনি সম্পাদনা করেছেন।

বেশ কয়েক বছর ভারতের কলকাতায় অবস্থানকালে তিনি কবি সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় সম্পাদিত সাহিত্য পত্রিকা ‘কৃত্তিবাস’এ কাজ করেন। সাহিত্যে অবদানের জন্য ২০১৪ সালে একুশে পদক পান কবি বেলাল চৌধুরী; পেয়েছেন বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কারও।
তার উল্লেখযোগ্য কাব্যগ্রন্থ হল ‘নিষাদ প্রদেশে’, ‘আত্মপ্রতিকৃতি’, ‘স্থিরজীবন ও নিসর্গ’, ‘স্বপ্নবন্দী’, ‘সেলাই করা ছায়া’, ‘কবিতার কমলবনে’, ‘যাবজ্জীবন সশ্রম উল্লাসে’ ও ‘বত্রিশ নম্বর’।