সুস্বাস্থ্য

কম ঘুম কম প্রেম

গত রাতে কেমন ঘুম হয়েছে আপনার? বর্তমান সময়ের মানসিক ধকলের সংস্কৃতিতে স্বাভাবিক ঘুমের পরিবর্তে পর্যাপ্ত বিশ্রাম নেওয়াই বেশ দুরূহ। এমন পরিস্থিতিতে ঘুমের প্রসঙ্গ আসা বাতুলতা। কেননা অনেক মানুষই ঘুমকে বঞ্চিত করে কর্মক্ষম থাকতে চায়। এতে ক্লান্তি ভর করে শরীরে। তাছাড়া কফি, চিনি, এনার্জি ড্রিংকস প্রভৃতির আধিক্যে ঘুম হয় না সহজে। অথচ স্মৃতিশক্তি, নিরাপদ ড্রাইভিং ও মানসিক শক্তির জন্য প্রয়োজন সঠিক পরিমাণের ঘুম। অনেকে ঘুমের পরিবর্তে কাজকে প্রাধান্য দিয়ে থাকেন। কেউ কেউ কেবল পাঁচ থেকে ছয় ঘণ্টা ঘুমিয়ে থাকেন। এর কেমন প্রভাব পড়ে নর-নারীর সম্পর্কে? বিষয়টি জানার চেষ্টা করেছে সাইকোলোজি টুডে।
প্রেম ও সম্পর্কের উন্নতিতে পর্যাপ্ত ঘুমের কেমন প্রভাব রয়েছে? কয়েকটি গবেষণায় দেখা গেছে, প্রেম-ভালবাসায় ঘুমের ব্যাপক প্রভাব রয়েছে। সুস্থ সম্পর্কের জন্য প্রয়োজন ঘুম।

পর্যাপ্ত বিশ্রাম নেওয়া ব্যক্তি অন্যদের তুলনায় বেশি আকর্ষণীয় কম ঘুমানোর অভ্যাস থাকলে আজই দূর করুন। এতে কাক্সিক্ষত ব্যক্তির চোখে অনাকর্ষণীয় হয়ে উঠবেন। সুইডেনে এ বিষয়ে একটি পরীক্ষা চালানো হয়। এজন্য দুটি দল গঠন করা হয়। এক দলে স্থান পায় ঘুম থেকে বঞ্চিতরা। অন্য দলে থাকেন আট ঘণ্টা ঘুমানো ব্যক্তিরা। কয়েক দিন পরে তাদের ছবি তোলা হয়। ছবিগুলো অপরিচিত ব্যক্তিদের দেখানো হয়। নিদ্রাবঞ্চিত ব্যক্তিরা তাদের মনোযোগ আকর্ষণে ব্যর্থ হন। পর্যাপ্ত ঘুম হয়েছে এমন ব্যক্তিদের তুলনায় তাদের ক্লান্ত, পরিশ্রান্ত ও অস্বাস্থ্যকর মনে হয় সেই পরীক্ষায়।

কম ঘুমালে দ্বিধাদ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয়
২০১৪ সালে গর্ডন অ্যান্ড চেন তাদের গবেষণায় (দ্য রোল অব  স্লিপ ইন ইন্টারপারসোনাল কনফ্লিক্ট) দম্পতিদের জীবনাচরণে কম ঘুমের নেতিবাচক প্রভাব দেখতে পান। ঘুম থেকে বঞ্চিত দম্পতিদের দিনলিপি ও তাদের ওপর গবেষণাগারে চালানো পরীক্ষার মাধ্যমে তারা দেখতে পান, এ ধরনের দম্পতিরা অসুখী জীবনযাপন করেন। তাদের মধ্যে ঘন ঘন ঝগড়া হয়। একে অপরের আবেগ, অনুভূতি বুঝতে তারা অক্ষম। ক্রমান্বয়ে দূরে থেকে দূরে সরে যান তারা।
আগ্রাসী মনোভাব তৈরি হয়
কম ঘুমালে মনের ওপর নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। সম্পর্কে অবনতি ঘটে। ঘুমের সমস্যা, আত্মনিয়ন্ত্রণ ও আগ্রাসী মনোভাবের মধ্যে সম্পর্ক রয়েছে। অনিদ্রাজনিত সমস্যার কারণে অনেক দম্পতি আত্মনিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে। তারা একে অপরের প্রতি আগ্রাসী হয়ে ওঠে। ফলে সম্পর্কচ্ছেদ হয় তাদের।

একে অপরের কাছে আসার ইচ্ছে কমে
গবেষণায় দেখা গেছে, কম ঘুমালে নারীদের মধ্যে জৈব চাহিদা লোপ পায়। ভালো ঘুমালে সঙ্গীর কাছে আসার ইচ্ছে তীব্র হয় তাদের মধ্যে। পুরুষদের বেলায়ও একই ঘটনা ঘটে থাকে।

রতন কুমার দাস

 

সর্বশেষ..