কোম্পানি সংবাদ

করপোরেট গভর্ন্যান্স কোডবিষয়ক কর্মশালা

‘করপোরেট গভর্ন্যান্স কোড অব বিএসইসি অ্যান্ড সাইবার রিস্ক ম্যানেজমেন্ট’ শীর্ষক দিনব্যাপী এক কর্মশালা গতকাল ঢাকার স্থানীয় একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালা উদ্বোধনকালে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ডিএসই’র চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আবুল হাশেম বলেন, তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোতে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে করপোরেট গভর্ন্যান্স কোড প্রণয়ন করা হয়েছে, যার মূল উদ্দেশ্য সুশাসন প্রতিষ্ঠা করা। যেহেতু করপোরেট সেক্টর বড় হচ্ছে, তালিকাভুক্ত কোম্পানির সংখ্যাও বাড়ছে তাই এ খাতে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা এবং সুশাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে করপোরেট গভর্ন্যান্স কোড প্রণয়ন করা হয়েছে। করপোরেট গভর্ন্যান্স কোড সুষ্ঠুভাবে পরিপালনের মাধ্যমে পুঁজিবাজারের স্থিতিশীলতা বজায় থাকবে এবং বিনিয়োগকারীদের আস্থা ধরে রাখতে সহায়ক ভূমিকা রাখবে। তিনি আরও বলেন, একজন বিনিয়োগকারীর বিনিয়োগের পূর্বে কোম্পানি সম্পর্কে সঠিক এবং স্বচ্ছ ধারণা থাকা প্রয়োজন। আর্থিক প্রতিবেদন একটি কোম্পানির অবস্থার প্রতিফলন। কোনো নীতিমালার অধীনে প্রস্তুতকৃত আর্থিক প্রতিবেদন বিশ্লেষণ করে বিনিয়োগের যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় সেটি সঠিক হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। বর্তমান সময়ে প্রযুক্তি ছাড়া ব্যবসা অকল্পনীয়। ব্যবসায়ের সব ক্ষেত্রে প্রযুক্তির ব্যবহার যেমন ব্যবসাকে গতিশীল ও সহজ করেছে তেমনি ব্যবসাকে ঝুঁকির মধ্যেও ফেলেছে অনেকাংশে। আর এ সমস্যা থেকে উত্তরণের জন্য প্রয়োজন সাইবার রিস্ক ম্যানেজমেন্ট। আমি আশা করি এ ওয়ার্কশপের মাধ্যমে প্রশিক্ষণার্থীরা উপকৃত হবেন।
এর পূর্বে স্বাগত বক্তব্যে ডিএসই’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক কেএএম মাজেদুর রহমান বলেন, করপোরেট গভর্ন্যান্স কোড বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন সম্প্রতি প্রবর্তন করেছে। সারা দেশে কোনো কোম্পানির মান নির্ধারণে করপোরেট গভর্ন্যান্স কোড একটি বড় ভূমিকা পালন করে। কোডের চেয়েও বেশি গুরুত্বপূর্ণ হলো আমরা নিজেরা কতটুকু পরিপালন করার জন্য আগ্রহী। বিজ্ঞপ্তি

সর্বশেষ..