কাঁচকলার পুষ্টিগুণ

কাঁচকলা খুবই পরিচিত ও সহজলভ্য সবজি। এটি যেমন সুস্বাদু, তেমনি পুষ্টিগুণে ভরপুর।
কাঁচকলার একটি আলাদা বৈশিষ্ট্য আছে ফল হিসেবে যেমন খাওয়া যায়, তেমনি সবজি হিসেবেও খাওয়া যায়। পাকা অবস্থায় ফল হিসেবে খাওয়া হয়। তবে এটি সবজি হিসেবে বেশি পরিচিত। রান্না করে ভাজা, কোফতা, বড়া, চপ, চিপস প্রভৃতি বানিয়ে খাওয়া যায়। এছাড়া কাঁচকলার খোসাও সেদ্ধ করে বেটে খাওয়া যায়। দেহের জন্য অতি উপকারী সবজি কলা। জেনে নিন কাঁচকলার গুণ সম্পর্কে।

পুষ্টিগুণ

ভিটামিন বি৬, ভিটামিন বি৪, মিনারেল, পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, ফসফেট প্রভৃতি রয়েছে।

উপকারিতা

কাঁচকলার ফাইবার অনেকটা সময় পেট ভরিয়ে রাখে। এটি আঁশযুক্ত হওয়ায় তা মেদ কমাতে সাহায্য করে

রক্তে শর্করা নিয়ন্ত্রণের জন্য উপকারী। এটি আঁশযুক্ত হওয়ায় রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে। ভিটামিন বি৬ গ্লুকোজ নিয়ন্ত্রণ করে ডায়াবেটিস প্রতিরোধে সাহায্য করে

কাঁচকলায় প্রচুর পটাশিয়াম রয়েছে, যা হৃদরোগের ঝুঁকি হ্রাস করে

আঁশযুক্ত হওয়ায় সহজে হজম হয়। পেটের খারাপ ব্যাকটেরিয়া দূর করে

এতে এনজাইম রয়েছে, যা ডায়রিয়াসহ পেটের নানা ইনফেকশন দূর করে। তাই ডায়রিয়া হলে চিকিৎসকরা কাঁচকলা খাওয়ার পরামর্শ দেন

কাঁচকলা ভারি খাবার। ফলে ক্ষুধা কমে যায় দ্রুত

শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়

এতে থাকা ম্যাগনেশিয়াম, ক্যালসিয়াম ও ভিটামিন হাড়কে শক্তিশালী করে

শিপন আহমেদ