কাজ ও দেহের যত্ন একসঙ্গে

সকাল ৯টা বা ১০টায় অফিসে ঢুকছেন, বের হচ্ছেন ৬টার পর। কেউ কেউ আরও পরে। অর্থাৎ দিন ও রাতের বড় একটা সময় কাটাতে হচ্ছে অফিসের চেয়ারে বসে। কম্পিউটারের মনিটরে চোখ রেখে। ফলে ঘুম ও খাদ্যজনিত বিভিন্ন সম্যসায় ভুগতে পারেন অনেক চাকরিজীবী। এ সমস্যা থেকে মুক্তির উপায় দেখে নিন
বিশেষজ্ঞদের মতে, স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন করতে হাতের কাছে খাবার পানি রাখা, বিশেষ করে বিশুদ্ধ পানিসহ বাসায় রান্না করা খাবার নিয়ে অফিসে আসা উচিত
দীর্ঘ সময় ধরে কাজ করার সময় পানি খাওয়ার কথা ভুলে যান অনেকেই। তাই সব সময় সঙ্গে একটি পানির বোতল রাখুন। কিছুক্ষণ পরপরই পানি পান করা উচিত। পাশাপাশি ফলের রসও খেতে পারেন
শরীর ভালো রাখতে ঘরে তৈরি বিভিন্ন সালাদ কিংবা স্বাস্থ্যকর খাবারের বিকল্প নেই। ঘরে খেতে পারলে তো ভালোই। তবে ব্যস্ততার কারণে অনেকের ক্ষেত্রে তা সম্ভব হয় না। তবুও বাইরে খাওয়ার অভ্যাস কমিয়ে বাসা থেকে তৈরি খাবার অফিসে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করা উচিত
হালকা ক্ষুধা মেটাতে বিস্কুট, চিপস প্রভৃতি খাওয়ার অভ্যাস ত্যাগ করুন। বরং দই, ফলমূল, সবজি, বাদাম প্রভৃতি রাখতে পারেন খাবার তালিকায়। এতে ওজন বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা কমে আসবে অনেকটাই
এক ঘণ্টা কাজ করার পর এক-দুই মিনিট চোখ বন্ধ করে বিশ্রাম নেওয়া উচিত
দীর্ঘ সময় ধরে চেয়ারে বসে থাকার কারণে মেরুদণ্ডের ক্ষতি হয়। তাই চেয়ারে বসার সময় সামনে ঝুঁকে না থেকে হেলান দিয়ে বসার অভ্যাস করুন। আর খেয়াল রাখুন
পিঠ যেন চেয়ারে হেলান দেওয়ার সময় সোজা থাকে
শরীরের প্রয়োজনের তুলনায় আট ঘণ্টার কম ঘুমানো আপনার স্বাস্থ্য, মন, কাজের ওপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে। তাই নিয়মিত কমপক্ষে আট ঘণ্টা ঘুমানো জরুরি।

শিপন আহমেদ