কাব্যরসে টইটম্বুর কবিতামালা

কখনও গাছে রঙ্গিন ফুলের সমারোহ, কখনও হিমশীতল আবহাওয়ায় জড়সড় প্রকৃতি, আবার কখনওবা ঘাসের ওপর মুক্তাদানা শিশিরের ছড়াছড়ি। কখনও ঈশান কোণে কালো মেঘের হাতছানি। এমনই মধুময় বাংলার প্রকৃতি। যুগে যুগে এভাবে বাংলা মায়ের রূপের বর্ণনা করেছেন প্রকৃতির সাধক, কবি ও লেখকেরা। ঠিক তেমনিভাবে কবি শাহাজাদা বসুনিয়ার কবিতায় ফুটে উঠেছে বাংলার শোভা।

কবি তার ‘সাতকাহন’ কাব্যগ্রন্থে ‘মধুময় বাংলার প্রকৃতি’ কবিতায় রূপসী বাংলার নিবিড় বর্ণনা করেছেন। তিনি বলেছেন, বাংলার নিসর্গ যেন ‘রূপসী কন্যা শ্যামলিমা ছায়াবীথি’। এখানে ফুটে উঠেছে বাংলার ছয়ঋতুুর নিখুঁত বর্ণনা। তিনি বলেছেন ‘ঋতুরাজ বসন্তকালে, অলিকুল করে গুঞ্জন ফুলে ফুলে’। এখানে বসন্তের আগমনী বার্তা পাওয়া যায়। শরতের বর্ণনা দিতে গিয়ে তিনি বলেছেন, ‘শিউলি ঝরা শরৎ প্রাতে ঘাসের ওপর শিশিরবিন্দু কণা’, যা পাঠককে মনে করিয়ে দেয় শরতের শিউলী ঝরা সকালকে। এমনিভাবে সব কবিতার প্রতিটি চরণে ফুটে উঠেছে শ্যামল মায়ের অপরূপ রূপের বর্ণনা।

‘দ্বীপের সাতকাহন’ কবিতায় কবি বলেছেন, তোমার জন্য ভাসতে পারি এক সাগরের জল/মনের ভেতর ভাসছে শুধু দ্বীপ-দ্বীপালির মল। এখানে এক দিকে মানবপ্রেম, অন্যদিকে দেশপ্রেমের ছাপ স্পষ্ট। প্রাণহীন গোলক ধাঁধা কবিতায় আধ্যত্মিক জগতে ডুব দিয়েছেন কবি। কবিতায় তিনি উল্লেখ করেছেন, মানুষ মরে না কখনও/মরে না তার প্রাণ, যা আমাদের সৃষ্টি রহস্যকে স্মরণ করিয়ে দেয়। এভাবে তার ‘সীমানার শেষ নেই’, ‘অতীতের অন্বেষণে’, ‘প্রেয়সীর স্বাধীনতা’সহ সব কবিতায় ভিন্ন স্বাদ পাওয়া যায়।

কবির অপর কাব্যগ্রন্থ ‘জলতরঙ্গের ছোঁয়া’। এই কাব্যগ্রন্থের কবিতাগুলো কাব্যরসে টইটম্বুর। কবি তার ‘মনুষ্যবৃক্ষ সমাচার’ কবিতায় বলেছেন, সে সরোবরে কালো রাতেই আমার জš§ হয়েছিল সবার দৃষ্টির অন্তরালে। ‘জলতরঙ্গের ছোঁয়া’ কবিতায় উল্লেখ করেছেন, কে ছুঁয়েছে কাকে/ সে ছুঁয়েছে আমাকে, নাকি আমি ছুঁয়েছি তাকে। ‘শুধাই আমি তারে’ কবিতায় উল্লেখ করেছেন, বাঙালি হয়ে দেশান্তরের শরশয্যায় শুয়ে থাকো কেন?/হতভাগা দ্রুত ফিরে এসো দেশে, এদেশ আমাদের মাতৃভূমি। সব কবিতায় ফুটিয়ে তুলেছেন ভিন্ন ভিন্ন বিষয়ের নিখুঁত বর্ণনা, যা পাঠককে সহজে আকৃষ্ট করে। দুটি কাব্যগ্রন্থের কবিতাগুলো পড়ে মনে হয়েছে, যিনি কবিতা পড়তে ভুলে গেছেন, তিনিও এমন পাণ্ডুলিপির জন্য অপেক্ষা করবেন।

গ্রন্থ দুটি প্রকাশিত হয়েছে বিশ্বসাহিত্য ভবন থেকে। প্রচ্ছদ এঁকেছেন নাসিম আহমেদ। প্রতিটি বইয়ের দাম রাখা হয়েছে ১৫০ টাকা।

 

মুস্তাফিজুর রহমান নাহিদ