বিশ্ব বাণিজ্য

কিছু চীনা পণ্যে শুল্কারোপ স্থগিত করছেন ট্রাম্প

শেয়ার বিজ ডেস্ক: চীন থেকে আমদানি করা ৩০ হাজার কোটি ডলারের পণ্যে সেপ্টেম্বর থেকে ১০ শতাংশ শুল্কারোপের পরিকল্পনা থাকলেও কয়েকটি পণ্যে তা আপাতত স্থগিত রাখছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ওই কয়েকটি পণ্যে শুল্কারোপ ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত বন্ধ রাখা হচ্ছে। এগুলোর মধ্যে রয়েছে, মোবাইল ফোন, ল্যাপটপ, ভিডিও গেম কনসোল, কিছু খেলনা, কম্পিউটার মনিটর এবং কিছু কাপড়চোপড় ও পায়ে পরার জিনিস। এ খবরে এশিয়ার পুঁজিবাজারে ঊর্ধ্বমুখী ধারা লক্ষ করা গেছে। খবর: রয়টার্স।
স্বাস্থ্য, নিরাপত্তা, জাতীয় নিরাপত্তাসহ আরও কয়েকটি দিক বিবেচনায় পণ্যগুলোতে শুল্কারোপের দিন পিছিয়ে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ওই কয়েকটি পণ্য ছাড়া বাকি পণ্যগুলোতে পূর্বপরিকল্পনা মতো ১ সেপ্টেম্বর থেকেই ১০ শতাংশ শুল্কারোপ করা হবে।
ক্রিসমাসের আগে মার্কিন ক্রেতাদের যাতে শুল্কের কারণে জিনিস কিনতে সমস্যায় না পড়তে হয়, সে কারণেও দেরিতে শুল্কারোপের পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন ট্রাম্প।
শুল্কারোপ পেছানোর এ খবরেই অ্যাপলের শেয়ার এক লাফে পাঁচ শতাংশ বেড়ে গেছে। প্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগকারীরাও শুল্কে এ ছাড়ের খবরকে স্বাগত জানিয়েছেন। এদিকে এশিয়ার পুঁজিবাজারে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা ছিল। গতকাল নিক্কেই সূচক বেড়েছে দশমিক ৯৮ শতাংশ। হংকংয়ের হ্যাংসেং সূচক বেড়েছে দশমিক শূন্য আট শতাংশ এবং চীনের সাংহাই সূচক বেড়েছে দশমিক ৪২ শতাংশ। এছাড়া ভারতে সেনসেক্স সূচক বেড়েছে এক দশমিক শূন্য এক শতাংশ।
চীনের সঙ্গে বিপুল বাণিজ্য ঘাটতি কমিয়ে আনার লক্ষ্য নিয়ে গত বছর থেকে বেইজিংয়ের রফতানি পণ্যের ওপর অতিরিক্ত শুল্কারোপ শুরু করে ট্রাম্প প্রশাসন। ‘মেক আমেরিকা গ্রেট এগেইন’ আর ‘আমেরিকা ফার্স্ট’ নামের কথিত সংরক্ষণশীল নীতির ঘোষণা দিয়ে ক্ষমতায় আসা ট্রাম্প প্রশাসনের এ পদক্ষেপের বিরুদ্ধে পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে বেইজিংও মার্কিন পণ্যের ওপর অতিরিক্ত শুল্কারোপ শুরু করে। বাণিজ্য নিয়ে উত্তেজনা কমাতে এ বছর ওয়াশিংটন ও বেইজিং কয়েক দফা বৈঠকও করেছে। চলতি মাসের শুরুর দিকে দু’দেশের প্রতিনিধিদের সর্বশেষ দফা বৈঠক হয়। এর পরই টুইটারে ট্রাম্প নতুন করে আরও ৩০০ বিলিয়ন ডলারের চীনা পণ্যে শুল্কারোপের ঘোষণা দেন। মার্কিন প্রেসিডেন্টের এ ঘোষণার ফলে ‘কার্যত’ সেপ্টেম্বর থেকে যুক্তরাষ্ট্রে আমদানি করা সব চীনা পণ্যেই শুল্ক বসতে যাচ্ছে।
মার্কিন প্রেসিডেন্ট পরে সাংবাদিকদের জানান, ৩০০ বিলিয়ন ডলারের চীনা পণ্যে ‘স্বল্প সময়ের’ জন্য এ ১০ শতাংশ শুল্কারোপ করা হয়েছে। ধাপে ধাপে বেড়ে এটি ২৫ শতাংশও ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে হুশিয়ারি দেন তিনি। ট্রাম্প বলেন, ‘চীনের সঙ্গে এমনটা করা অনেক আগেই কারও উচিত ছিল।’

সর্বশেষ..