হোম স্থানীয় সংবাদ কুষ্টিয়ায় দুই শতাধিক মণ্ডপে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি

কুষ্টিয়ায় দুই শতাধিক মণ্ডপে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি


Warning: date() expects parameter 2 to be long, string given in /home/sharebiz/public_html/wp-content/themes/Newsmag/includes/wp_booster/td_module_single_base.php on line 290

 

শেয়ার বিজ প্রতিনিধি, কুষ্টিয়া: কয়েকদিন বাদেই শুরু হচ্ছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। এবার কুষ্টিয়ায় দুই শতাধিক মণ্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। দুর্গাপূজাকে ঘিরে প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রতিমাশিল্পীরা। ইতোমধ্যে প্রায় মণ্ডপে দেবীর মূর্তি নির্মাণ শেষ হয়েছে। এখন শুধু রংতুলির আঁচড়ে ফুটিয়ে তোলার অপেক্ষা। সব মিলে প্রতিমাশিল্পীদের এখন দম ফেলার ফুরসত নেই।

আসছে ২৬ সেপ্টেম্বর শুরু হবে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। এরপর ৩০ সেপ্টেম্বর প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে এ পূজার সমাপ্তি ঘটবে। এরই মধ্যে অনেক মণ্ডপে প্রতিমা তৈরির কাজ প্রায় শেষ। এখন প্রতিমার সৌন্দর্য আর চাকচিক্য বাড়ানোর কর্মযজ্ঞে নেমে পড়ার অপেক্ষা। জেলা পূজা উদযাপন কমিটির তথ্যমতে, এবারে কুষ্টিয়া জেলায় ২২৭টি মণ্ডবে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ৭৬টি, কুমারখালী উপজেলায় ৫১টি, খোকসা উপজেলায় ৫৮টি, মিরপুর উপজেলায় ২৩টি, ভেড়ামারা উপজেলায় আটটি এবং দৌলতপুর উপজেলায় ১১টি মণ্ডপে পূজা হবে।

প্রতিমাশিল্পী রাম প্রসাদ জানান, প্রতিমা তৈরিতে এঁটেল ও বেলে মাটি ছাড়াও বাঁশ-খড়, দড়ি, লোহা, ধানের কুঁড়া, পাট, কাঠ, রং, বিভিন্ন রঙের সিট ও শাড়ি-কাপড়ের প্রয়োজন হয়। প্রতিমাশিল্পী উজ্জ্বল রায় জানান, সারা বছর এই সময়ের জন্য অপেক্ষায় থাকি। কারণ বছরের অন্য সময় তেমন কাজ না থাকলেও এই সময় ব্যস্ততা বেড়ে যায়। তবে সময়ের সঙ্গে মানুষের জীবনযাত্রার ব্যয় বাড়লেও সে অনুপাতে প্রতিমা তৈরির মজুরি বাড়েনি।

জয়রাম নামে অরেক প্রতিমাশিল্পী জানান, দুর্গাপূজার দেড় মাস আগে থেকে বিভিন্ন স্থানে প্রতিমা তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। একটি বড় মূর্তি তৈরি করতে সময় লাগে পাঁচ দিন। অন্যদিকে একেকটি ছোট মূর্তি তৈরি করতে সময় লাগে তিন দিন। বর্তমানে মূর্তি তৈরির কাজ প্রায় শেষ। এরপর রঙের কাজ করা হবে। সব কাজ শেষে নির্দিষ্ট সময়ের আগেই মণ্ডপে প্রতিমা বসানো হবে।

শহরের প্রতিমাশিল্পী সুকান্ত পাল জানান, পূজা শুরুর আগেই প্রতিমা তৈরির কাজ সম্পন্ন করতে মৃৎশিল্পীরা বিরামহীনভাবে কাজ করছেন। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে তাদের কর্মযজ্ঞ। শহরের থানাপাড়া সার্বজনীন পূজা মণ্ডপের সাংগঠনিক সম্পাদক অঞ্জন বিষনো শিল শুভ জানান, গতবারের চেয়ে এ বছর প্রতিমা তৈরির খরচ বেশি।

কুষ্টিয়া জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি নরেন্দ্র নাথ সাহা জানান, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব হচ্ছে শারদীয় দুর্গাপূজা। প্রতি বছরের মতো এবারও এ উৎসবটি জাঁকজমকসহ উদযাপন করা হবে। এবার দেবী দুর্গার আগমন ঘটবে নৌকায় করে এবং গমন করবেন ঘোটকে (ঘোড়া) করে। এ বছর কুষ্টিয়ায় মোট ২২৭টি মণ্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর রাতে জেলা প্রশাসকের উপস্থিতিতে শহরের নব যুব সংঘ মন্দিরে আনুষ্ঠানিকভাবে দুর্গাপূজার উদ্বোধন করা হবে।