হোম শোবিজ কুয়েতে অন্যরকম উপহার কোনালের

কুয়েতে অন্যরকম উপহার কোনালের


Warning: date() expects parameter 2 to be long, string given in /home/sharebiz/public_html/wp-content/themes/Newsmag/includes/wp_booster/td_module_single_base.php on line 290

 

শোবিজ ডেস্ক: কেকা মুখোপাধ্যায়। কুয়েতে অনেক শিল্পীর উঠে আসা তার হাত ধরে। শিল্পী কোনালের ক্ষেত্রেও তাই। তবে তিনি বোধহয় কেকা মুখোপাধ্যায়ের কাছে একটু বেশিই প্রিয়। কারণ একটি বিরল ভালোবাসার উপহার এ শিক্ষক দিয়েছেন কোনালকে।

মাসখানেক আগে কোনাল গিয়েছিলেন তার বেড়ে ওঠার জায়গা কুয়েতে। কোনালের মতে, ‘এটাই আমার চাইল্ডহুড, ওমেনহুড বা গায়িকা হয়ে ওঠার জায়গা। অনেক সময় কুয়েতকে আমি বলি আমার গ্রামের বাড়ি।’

হ্যাঁ, সে গ্রামের বাড়িতেই স্বামী মনজুর কাদের জিয়াসহ গিয়েছিলেন। বিয়ের পর প্রথম সেখানে ভ্রমণ, তাই অন্যরকম অভিজ্ঞতার মধ্যে সময় কেটেছে এ গায়িকার। তবে সংগীতজীবনের সবচেয়ে মধুর স্মৃতিও এবার যুক্ত হয়েছে।

শোনা যাক, কোনালের মুখেই “কেকা আন্টি বা গুরুমার সঙ্গে আমার সম্পর্ক একেবারেই অন্যরকম। এবার আমি কুয়েতে গিয়ে আবারও তার কাছে গান শিখতে শুরু করি। তৃতীয় দিনের ক্লাসের সময় তিনি হঠাৎ আমাকে বললেন, ‘এই হারমোনিয়ামটি তোমাকে দিতে চাই। এটি আমার সন্তানের জন্য নয়, আমার শিক্ষার্থীর হোকÑএটা আমি চাই।’ সবচেয়ে ভালোলাগার স্মৃতি হলো, এই হারমোনিয়ামেই আমি বা আমরা গান শিখেছি। গুরুমার বকা খেয়ে এ হারমোনিয়ামের ওপরই কতবার যে চোখের জল পড়েছে, তার হিসাব নেই। ’৯০ সালে কুয়েত-ইরাক যুদ্ধের পর গুরুমার পরিবার যখন প্রায় নিঃস্ব হয়ে পড়েছিল, তারপর অনেক কষ্টে তারা এ হারমোনিয়াম কেনেন। কয়েক যুগ ধরে এতেই তার ছাত্রছাত্রীরা গান শিখেছেন। এই অমূল্য জিনিস তিনি আমাকে দিলেন। এ ঋণ শোধের নয়।”

এদিকে কোনাল কুয়েত থেকে দেশে ফিরেই গান নিয়ে ব্যস্ত হয়েছেন। জমে থাকা বেশ কিছু গানের কাজ গুছিয়ে নিচ্ছেন তিনি।