খুলনার উন্নয়নে আসছে ৬০০ কোটি টাকার মেগা প্রকল্প

শুভ্র শচীন, খুলনা: খুলনা নগরীর উন্নয়নের দৃশ্যমান অগ্রগতির পরিকল্পনা চলছে জোরেশোরে। খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিসি) এলাকার উন্নয়নে মন্ত্রণালয়ে জমা দেওয়া হচ্ছে ৬০০ কোটি টাকার মেগা প্রকল্প। ইতোমধ্যে কেসিসি আট কোটি টাকার থোক বরাদ্দ পেতে যাচ্ছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।
বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির আওতায় (এডিপির) ৬০০ কোটি টাকার দুটি প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে খুলনা সিটি করপোরেশনের জলাবদ্ধতা দূরীকরণে পয়োনিষ্কাশন ব্যবস্থার উন্নয়ন এবং শহরে নতুন রাস্তা নির্মাণ ও পুরাতন রাস্তা সংস্কার প্রকল্প। ঈদের আগেই প্রস্তাবিত প্রকল্প স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে জমা দেওয়া হচ্ছে।
কেসিসির নির্বাহী প্রকৌশলী-৩ মো. মশিউজ্জামান খান জানান, এডিপি থেকে বিশেষ থোক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে আট কোটি টাকা। এ টাকার পাঁচ কোটি টাকা সড়ক ও বিদ্যুৎ উন্নয়নে এবং তিন কোটি টাকা দুর্যোগ মোকাবিলার জন্য পয়োনিষ্কাশন ব্যবস্থা উন্নয়ন। ইতোমধ্যে নতুন পরিষদের কাউন্সিলর প্রতি ১০ লাখ টাকার কাজের স্কিম চাওয়া হয়েছে। অধিকাংশ কাউন্সিলর স্কিম জমা দিয়েছেন। ঈদের আগেই এ টাকা মন্ত্রণালয় থেকে ছাড় দেওয়া হবে। এ টাকা আগামী জুন মাসের মধ্যে খরচ করার সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে। তবে সময় স্বল্পতার জন্য তা খরচ করতে জুলাই মাস পর্যন্ত লাগতে পারে বলে তিনি মনে করেন।
এছাড়া এডিপির আওতায় আরও প্রায় ৬০০ কোটি টাকার মেগা প্রকল্প তৈরি করা হচ্ছে। মেয়র শপথ নেওয়ার পরই সড়ক ও ড্রেন উন্নয়ন প্রকল্পের টেন্ডার আহ্বান করা হতে পারে। ইতোমধ্যে সড়ক ও ড্রেনের চাহিদাপত্র চাওয়া হয়েছে। সংশ্লিষ্ট নতুন ওয়ার্ড কাউন্সিলরের সমন্বয়ে উপ-সহকারী প্রকৌশলীরা সড়ক ও ড্রেনের তালিকা জমা দিচ্ছেন বলে তিনি জানান।
কেসিসির নির্বাহী প্রকৌশলী-২ মো. লিয়াকত আলী খান জানান, তিনি নগরীর ৩১টি ওয়ার্ড থেকে প্রকল্পে তালিকাভুক্তকরণের জন্য নতুন ও পুরোনো সড়কের তালিকা সংগ্রহ করছেন। সড়কের তালিকা সংগ্রহ প্রায় শেষ পর্যায়ে। সড়কের জন্য প্রায় ৩০০ কোটি টাকার প্রকল্প তৈরির কাজ এগিয়ে চলছে বলে তিনি জানান।
২১ নম্বর ওয়ার্ডের নির্বাচিত কাউন্সিলর সামসুজ্জামান মিয়া স্বপন বলেন, খুলনার উন্নয়নের জন্য তালুকদার আবদুল খালেককে নগরবাসী ভোট দিয়ে মেয়র নির্বাচিত করেছেন। সরকার নগরবাসীর আশার প্রতিফলন ঘটাতে ৬০০ কোটি টাকার মেগা প্রকল্প চালু করতে যাচ্ছে। এতে করে খুলনার সড়ক ও পয়োনিষ্কাশন ব্যবস্থার উন্নয়নে আমূল পরিবর্তন হবে। খুলনার সিটি করপোরেশনের আমলে এটাই সবচেয়ে বড় প্রকল্প। নতুন মেয়র দায়িত্ব গ্রহণের সঙ্গে সঙ্গে এ মেগা প্রকল্পের কাজ শুরু হবে বলে তিনি জানান।
বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির মহাসচির এসএম সোহরাব হোসেন বলেন, নগরবাসী খুলনার উন্নয়নের জন্য খালেক ভাইকে ভোট দিয়েছে। তারা প্রত্যাশা করেছে খালেক সাহেবের আমলে উন্নয়ন হবে। এ মেগা প্রকল্প তৈরির মাধ্যমে তার প্রতিফলন ঘটছে। এ প্রকল্প শুরুর মাধ্যমে নগরবাসীর প্রত্যাশা পূরণ হবে।
কেসিসি ঠিকাদার কল্যাণ সমিতি ও সোনাডাঙ্গা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তসলিম আহমেদ আশা বলেছেন, বর্তমান মেয়রের আমলে কোনো প্রকল্প পাস করাতে ব্যর্থ হয়েছে। নতুন মেয়র তালুকদার আবদুল খালেকের আমলে আনা ২০০ কোটি টাকার পুরো টাকা বর্তমান মেয়রের সময় কাজ হয়েছে। তিনি নতুন করে কোনো প্রকল্প আনতে পারেননি। ঠিকাদার হিসেবে মেগা প্রকল্পের খবর খুবই খুশির উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ মেগা প্রকল্পের মাধ্যমে খুলনাবাসীর স্বপ্নও বাস্তবে রূপ নেবে।
নবনির্বাচিত মেয়র তালুকদার আবদুল খালেক বলেন, ‘আমি খুলনার উন্নয়নের জন্য চেষ্টা করছি। নির্বাচনে জয়ের পর কেসিসি প্রকৌশলীদের ডেকে সড়ক ও ড্রেনেজ উন্নয়নে ৬০০ কোটি টাকার প্রকল্প তৈরি করতে বলেছি। প্রকল্প হাতে পাওয়ার পর তা মন্ত্রণালয়ে দাখিল করা হবে।’