জননী গ্রুপ

বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় একটি গ্রুপ জননী। দেশের শিক্ষা ও সেবামূলক খাতে গ্রুপটির ভূমিকা ঈর্ষণীয়। শুরুটা ভীষণ চ্যালেঞ্জের হলেও কর্তৃপক্ষের কর্মদক্ষতা, অধ্যবসায় আর অক্লান্ত পরিশ্রমের কারণে স্বল্পসময়ের মধ্যে মানুষের আস্থা অর্জন করতে পেরেছে গ্রুপটি। ফলে গুণগত মান ও স্বকীয়তার ওপর ভর করে টিকে আছে যুগ যুগ ধরে। দেশ ও অর্থনীতির কল্যাণে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখছে।
জননী গ্রুপের পথচলা শুরু ১৯৫৩ সালে। প্রতিষ্ঠাতা আবদুল গফুর সরকার। তার নিষ্ঠা ও দূরদর্শিতার ফসল এ গ্রুপ। জননী গ্রুপের এই পথচলায় হাসান বুক ডিপোর নাম জড়িয়ে রয়েছে। বই প্রকাশনা সংস্থাগুলোর মধ্যে হাসান বুক ডিপোর অবস্থান প্রথম সারিতে। প্রতিষ্ঠার শুরু থেকে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের জন্য শিক্ষা উপকরণ সরবরাহ করে আসছে প্রতিষ্ঠানটি। ১৯৫৩ সালে যশোরের গরিব শাহ সড়কে এ প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম শুরু হয়, যা কালের পরিক্রমায় অনেক বন্ধুর পথ পাড়ি দিয়ে আজকের সফল জননী গ্রুপে পরিণত হয়েছে। ১৯৬৫ ও ১৯৭১ সালে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত হয় তাদের প্রতিষ্ঠানটি। সেসব ধকল কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হয় তারা। ১৯৯৬ সালে তারা জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের সঙ্গে বই ছাপানোর কার্যক্রম শুরু করে। সে থেকেই বেসরকারি বইয়ের পাশাপাশি প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও মাদরাসার ছাত্রছাত্রীদের জন্য পাঠ্যপুস্তক ছাপা, বাঁধাই ও সরবরাহ করে আসছে।
জননী গ্রুপের সব অঙ্গপ্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন সুনাম ও সাফল্যের সঙ্গে ব্যবসা কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। এ প্রসঙ্গে বলা যায়, এর অন্যতম সিস্টার কনসার্ন জননী এক্সপ্রেস পার্সেল সার্ভিসের কথা। পার্সেল ও ভিডি (টাকা) প্রেরকের ঠিকানায় দ্রুত পৌঁছানোর বিশ্বস্ত প্রতিষ্ঠান এটি। প্রতিষ্ঠানটির অন্য সেবার মধ্যে রয়েছে ডকুমেন্ট বুকিং ও কন্ডিশন বুকিং। শুক্রবারও বুকিং নিয়ে থাকে তারা। বর্তমানে দেশের ক্রমবর্ধমান চাহিদা পূরণের লক্ষ্যে উন্নত মানের টিস্যু উৎপাদন করছে জননী টিস্যু পেপার ইন্ডাস্ট্রিজ। এজন্য সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে থাকে প্রতিষ্ঠানটি। ফেসিয়াল টিস্যুর পাশাপাশি গোল্ড টয়লেট, পিংক টয়লেট, পেপার ন্যাপকিন, পারফিউম পেপার ন্যাপকিন, হোটেল ন্যাপকিন, সুপার ন্যাপকিন, পকেট টিস্যু ওয়ালেট, কিচেন টাওয়েল ও হ্যান্ড টাওয়েল প্রস্তুত করে তারা। সুন্দর ও ঝকঝকে লেখার জন্য উন্নতমানের বলপেন তৈরি করছে গ্রুপের অন্যতম অঙ্গপ্রতিষ্ঠান জননী বলপেন ইন্ডাস্ট্রিজ। ২০১৪ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় এই বলপেন ইন্ডাস্ট্রিজটি। অল্প সময়ের মধ্যে দেশের অন্যতম বৃহৎ স্টেশনারি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে তারা।
গ্রুপটির তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশের প্রথম বই বাঁধাইকরণ আঠা প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান জননী হাইটেক হটমেল্ট অ্যাডহেসিভ ইন্ডাস্ট্রিজ। এটি জননী গ্রুপের একটি প্রতিষ্ঠান। বই বাঁধাই, ম্যাগাজিন, ক্যাটালগ, হার্ড কভার বইপত্রসহ অন্য অনেক নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যে এটি ব্যবহার করা যায়। গুণগত মানে সেরা এ পণ্যটি। দীর্ঘস্থায়ী ও সব আবহাওয়ায় উপযোগী। দামেও সাশ্রয়ী। সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে, এর বিক্রয়োত্তর সেবা দিয়ে থাকে প্রতিষ্ঠানটি।
জননী গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. আবুল কাশেম সরকার। ব্যবস্থাপনা টিমের নেতৃত্বে রয়েছেন আবুল কালাম সরকার। পরিচালনা পর্ষদে আরও রয়েছেন মো. রিয়াজ মাহমুদ সরকার। নির্বাহী পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন আরাফাত ফয়সাল সরকার। নিয়মিত বাজার মনিটরিং ও গবেষণা করা হয় এখানে। সংগত কারণে অন্যদের তুলনায় এগিয়ে আছে তারা। একই সঙ্গে দক্ষ জনশক্তি ব্যবহার করে উৎপাদিত পণ্যের গুণগত মান ধরে রাখছে। সুদক্ষ ও অভিজ্ঞ কর্মীর সমন্বয়ে গঠন করা হয়েছে জননী গ্রুপের জনবল। এখানে প্রশিক্ষিত জনবলসহ পরিবেশবান্ধব প্রতিষ্ঠান গড়ার ওপর গুরুত্ব দেওয়া হয়। পরিচালনা ও ব্যবস্থাপনা পরিষদের কার্যকরী দিকনির্দেশনা এবং সিদ্ধান্ত এক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখেছে।
কর্মীবান্ধব হিসেবে সুনাম রয়েছে জননী গ্রুপের। কর্মস্থলে দুর্ঘটনা এড়াতে বিশ্বমানের প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয় এ গ্রুপের সব অঙ্গপ্রতিষ্ঠানে। ঝুঁকি এড়াতে নানা নিয়ম মেনে চলা হয়। সব সময় এর কর্মীদের প্রাপ্য বুঝিয়ে দিতে তারা তৎপর। বেতন-ভাতা প্রদানে কখনও বিলম্ব হয় না। কর্মীদের দক্ষ করে তুলতে বিভিন্ন প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করে থাকে কর্তৃপক্ষ। আরামপ্রদ ও নিরাপদ কর্মক্ষেত্র নিশ্চিত করা হয়েছে। সমঅধিকারের ওপর গুরুত্ব দেওয়া হয়। বিভিন্ন উৎসব-পার্বণে ভাতা দিয়ে থাকে তারা। সংগত কারণে কর্মপরিবেশ নিয়ে কর্মীরা সন্তুষ্ট। এছাড়া পরিবেশবান্ধব গ্রুপ হিসেবে সুনাম রয়েছে জননীর।
একনজরে সিস্টার কনসার্ন
জননী পেপার ইন্ডাস্ট্রিজ
জননী টিস্যু পেপার ইন্ডাস্ট্রিজ
জননী বলপেন ইন্ডাস্ট্রিজ
জননী পাবলিকেশন
জননী প্লাস্টিক ইন্ডাস্ট্রিজ
জননী স্টেশনারি প্রোডাক্ট
জননী এক্সপ্রেস পার্সেল সার্ভিস
জননী হাইটেক হটমেল্ট অ্যাডহেসিভ ইন্ডাস্ট্রিজ
সরকার প্রিন্টিং অ্যান্ড পাবলিশিং
হাসান বুক ডিপো
বলাকা প্রেস অ্যান্ড পাবলিকেশন
ফয়সাল বুক বাইন্ডিং
বুকম্যান প্রিন্টার্স অ্যান্ড পাবলিশার্স

রতন কুমার দাস