বাণিজ্য সংবাদ

জনশক্তি রফতানি ও রেমিট্যান্সে ১৪ বছর ধরে শীর্ষে কুমিল্লা

রকিবুল হাসান রকি, কুমিল্লা: বিদেশের শ্রমবাজারে বাংলাদেশের মোট জনশক্তি রফতানি ও রেমিট্যান্স প্রেরণে দেশের প্রথম স্থানটি ১৪ বছর ধরে রেখেছে কুমিল্লা। এখনকার প্রবাসীদের পাঠানো বিদেশি রেমিট্যান্স এ অঞ্চলের অর্থনৈতিক কাঠামো শক্তিশালী ও সম্প্রসারিত করতে ব্যাপক অবদান রাখছে। অন্যদিকে কুমিল্লা অঞ্চলের বিদেশ গমনেচ্ছুদের স্বচ্ছ ও সহজ সেবা প্রদান এবং দালাল-মধ্যস্বত্বভোগী চক্রের দৌরাত্ম্য বন্ধে ইতিবাচক ভূমিকা রাখছে স্থানীয় কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসগুলো।
সংশ্লিষ্টরা মনে করেন, স্থানীয় জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো (বিএমইটি) এবং পাসপোর্ট অফিসগুলো দালাল ও মধ্যস্বত্বভোগীদের দৌরাত্ম্য বন্ধে কর্যকর ভূমিকা পালন করায় বিদেশগামীদের হয়রানি পোহাতে হয় না। ফলে বিদেশ গমনে মানুষের আগ্রহ বেড়েছে, যা জনশক্তি রফতানি ও রেমিট্যান্স প্রদানে অবদান রাখছে।
উন্নত জীবনযাপনের আশায় একটু বেশি রোজগারের জন্য স্বজনদের ছেড়ে দূরদেশে পাড়ি জমিয়ে বিদেশের শিল্প, কল-কারখানা, অফিস, মরুভূমি, কৃষিজমিসহ বিভিন্ন পেশায় সম্পৃক্ত থেকে মাস শেষে রেমিট্যান্স আকারে হাজার কোটি টাকা দেশে পাঠাচ্ছেন কুমিল্লা অঞ্চলের প্রবাসীরা। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে কর্মরত কুমিল্লার প্রবাসীদের উপার্জিত আয় বিনিয়োগ করা হচ্ছে এখানকার আবাসন ও বাণিজ্যিক খাতে। উšে§াচন হচ্ছে নতুন দিগন্ত। দক্ষ জনশক্তি রফতানিতে জাতীয় অগ্রতিতে ভূমিকা রাখছে কুমিল্লা।
জনশক্তি রফতানিতে ২০০৫ সাল থেকে ২০১৮ পর্যন্ত দেশের ৬৪ জেলার মধ্যে শীর্ষে ছিল কুমিল্লা। ২০১৯ সালে এসেও শীর্ষে থাকার এ ধারা অব্যাহত রয়েছে। কুমিল্লার বিভিন্ন উপজেলার প্রবাসী পরিবার বিদেশ থেকে তাদের স্বজনদের পাঠানো অর্থ বিনিয়োগ করছেন বাণিজ্যিক খাতে, কিনছেন ফ্ল্যাট বাড়ি, কেউ খালি জায়গা কিনে নির্মাণ করছেন সুরম্য ভবন। আবার কেউ কেউ দৃষ্টিনন্দন বাড়ি নির্মাণ করে পাল্টে দিচ্ছেন উপজেলায় গ্রামীণ জনপদের চেহারা। এসব সম্ভব হচ্ছে দক্ষতার সঙ্গে অধিক বেতনে কুমিল্লার লোকজনের বিদেশে কাজ করার সুযোগ থাকায়।
জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো (বিএমইটি) সূত্রে জানা যায়, ২০১৮ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত কুমিল্লা জেলার এক লাখ ৪৫ হাজার ৪৮৭ জন বিদেশে চাকরিপ্রার্থীর রেজিস্ট্রেশন করা হয়। তার মধ্যে ৯৭ হাজার ৭৫৭ জন চাকরি নিয়ে বিশ্বের প্রায় ৩০টির বেশি দেশে গমন করেন, যেখানে নারী শ্রমিকও রয়েছেন তিন হাজার ১১৬ জন। গত ১১ মাসে দেশের ৬৪ জেলার তুলনায় কুমিল্লা থেকে বেশি জনশক্তি রফতানি হয়েছে।
বিএমইটি সূত্রে আরও জানা যায়, চলতি সালেও কুমিল্লা জনশক্তি রফতানি ও রেমিট্যান্স প্রেরণে শীর্ষে থাকবে বলে আশা করা হয় হচ্ছে।
জনশক্তি রফতানির মূল দেশগুলোর মধ্যে কুমিল্লার বেশিরভাগ লোকই অবস্থান করছেন সৌদি আরবের রিয়াদ, জেদ্দা, আবুধাবি, দুবাই, কাতার, জর্দান, বাহরাইন, লিবিয়া, ওমান, কুয়েত, কোরিয়া, ইতালি, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, রাশিয়া, পোল্যান্ডসহ অন্যান্য দেশে।
কর্মসংস্থান ও জনশক্তি, অফিস কুমিল্লার সহকারী পরিচালক দেবব্রত ঘোষ জানান, কুমিল্লা থেকে প্রতি বছরই বিপুলসংখ্যক শ্রমিক বিশ্বের বিভিন্ন দেশে চাকরি নিয়ে এগিয়ে থাকে। জনশক্তি রফতানি ও রেমিট্যান্স প্রাপ্তিতে কুমিল্লা শীর্ষস্থানে অবস্থান করছে। গত নভেম্বর মাসে ৯ হাজার ৪০৮ জন বিদেশ গমনেচ্ছু নাম রেজিস্ট্রেশন করেছেন। দালাল ও মধ্যস্বত্বভোগীদের দৌরাত্ম্য বন্ধে অত্র অফিস বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। বিদেশগামীদের সময় ও যাতায়াত অর্থ সাশ্রয়ের বিষয়টি চিন্তা করে কুমিল্লা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস অভ্যন্তরে রেজিস্ট্রেশন ফি গ্রহণের জন্য প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের একটি বুথ স্থাপন করা হয়েছে। কুমিল্লার কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস দক্ষ জনশক্তি সৃষ্টির জায়গাটিতে প্রাধান্য দিয়ে মানবসম্পদ উন্নয়নে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে।

 

সর্বশেষ..