জুতা ও ট্রলি থেকে চার কেজি স্বর্ণ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক: সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এক যাত্রীর জুতার ভেতর থেকে এবং বেনাপোলের দর্শনা চেকপোস্টে যাত্রীর ব্যাগের ট্রলির ভেতর থেকে ৩৫টি স্বর্ণের বার উদ্ধার করেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের কর্মকর্তারা। গতকাল স্বর্ণসহ দুজনকে আটক করা হয়। শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. সহিদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানান, ওসমানী বিমানবন্দর দিয়ে স্বর্ণ চোরাচালান হবে এমন সংবাদের ভিত্তিতে বিমানবন্দরের বোর্ডিং ব্রিজ, ব্যাগেজ বেল্ট, অ্যাপ্রোনসহ গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে নজরদারি করা হয়। সকাল সাড়ে ৭টার দিকে দুবাই থেকে বিজি-২৪৮ ফ্লাইট বিমানবন্দরে অবতরণ করে। সাদিকুর রহমান নামে একজন সন্দেহভাজন যাত্রীকে কাস্টমস হলে নিয়ে তল্লাশি চালিয়ে তার জুতার ভেতর থেকে স্কচটেপ মোড়ানো অবস্থায় দুটি প্যাকেট হতে ২২ পিস স্বর্ণের বার উদ্ধার করা হয়। যার প্রতিটি বারের ওজন ১১৭ গ্রাম করে মোট ওজন দুই কেজি ৫৭৪ গ্রাম। পরে যাত্রীকে আটক করা হয়। আটক যাত্রীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।
অপরদিকে বেনাপোলের জয়নগর দর্শনা চেকপোস্টে ভারতে পাচারকালে দেলোয়ার হোসেন নামে এক যাত্রীর ট্রলির ভেতর থেকে বিশেষ কায়দায় লুকানো ৭৫ লাখ টাকা মূল্যের প্রায় দেড় কেজি ওজনের ১৩টি স্বর্ণবার উদ্ধার করে শুল্ক গোয়েন্দা কর্মকর্তারা।
মহাপরিচালক ড. সহিদুল ইসলাম বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দর্শনা চেকপোস্ট দিয়ে ভারতে যাওয়ার সময় ছদ্মবেশে সন্দেহভাজন যাত্রী দেলোয়ার হোসেনকে আটক করা হয়। তল্লাশিতে তার সঙ্গে থাকা ট্রলির হ্যান্ডেলের ভেতর থেকে বিশেষভাবে লুকায়িত অবস্থায় প্রায় এক কেজি ৪৬৬ গ্রাম ওজনের ১৩টি স্বর্ণবার আটক করা হয়। যার মূল্য প্রায় ৭৫ লাখ টাকা।
তিনি আরও জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি জানিয়েছেন এক ব্যক্তি তাকে এ ট্রলি ব্যাগটি দিয়েছে ভারতে অন্য এক ব্যক্তিকে দেওয়ার জন্য। চেকপোস্ট পার হওয়ার পর ভারত অংশে কলকাতার বড় বাজারে অপর এক ব্যক্তি তার মোবাইলে ফোন করে এ ট্রলি ব্যাগটি নিয়ে নিত এবং তাকে ২০ হাজার টাকা দিত। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানান ড. সহিদুল ইসলাম।