স্পোর্টস

টানা জয়ের পর রূপগঞ্জের হার

ক্রীড়া প্রতিবেদক: আগের দুই ম্যাচের মতো গতকাল ব্যাটিংটা ভালো হয়নি লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের। যে কারণে লড়াই করার মতো তেমন পুঁজিও পায়নি নারায়ণগঞ্জের দলটি। আবার এ ধরনের ম্যাচ জিততে যে ধরনের বোলিং দরকার সেটাও পারেননি নাঈম ইসলামরা। এ সুযোগে অনেকটা অনায়াসেই রান তুলেন প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের ওপেনার এনামুল হক বিজয়। শেষ পর্যন্ত তার সেঞ্চুরিতেই টানা জয়ের পর হারতে হয়েছে সাবেক ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়নদের।
ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের তৃতীয় রাউন্ডে গতকাল ৯ উইকেটে জিতে প্রাইম ব্যাংক। বিকেএসপির তিন নম্বর আগে ব্যাট করতে নেমে ৪৬.১ ওভারে ১৬৩ রান করে রূপগঞ্জ। দলটির হয়ে সর্বোচ্চ ৫২ রান করেন মোহাম্মদ নাঈম। শেষদিকে জাকের আলী করেন ৪৭ রান। জবাব দিতে নেমে এনামুল হকের অপরাজিত সেঞ্চুরিতে (১০০) ৩১.৩ ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে সহজেই জয় নিশ্চিত করে প্রাইম ব্যাংক। এর ফলে টানা দুই জয়ের পর টুর্নামেন্টে প্রথম হারের স্বাদ পেল নারায়ণগঞ্জের দলটি। চলতি আসরে এটা প্রাইম ব্যাংকের দ্বিতীয় জয়।
গতকাল টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরতেই শূন্য রানে আজমির আহমেদকে হারায় রূপগঞ্জ। পরে ১ রানে ফিরেন শাহরিয়ার নাফীস। তবে এক প্রান্ত আগলে রেখে মোহাম্মদ নাঈম বেশ খেলছিলেন। তবে ৫০ ছোয়ার পরপরই বাঁহাতি এ ওপেনারকে ফিরিয়ে দেন আরিফুল হক। নাঈমের ৪৩ বলে খেলা ৫২ রানের ইনিংস গড়া আট চার ও এক ছক্কায়। এর কিছুক্ষণ পরই অধিনায়ক নাঈম ইসলাম ফিরে যান থিতু হয়ে। ব্যাটসম্যানদের আসা-যাওয়ার মধ্যে কিছুটা প্রতিরোধ গড়েন জাকের আলী। তরুণ এ কিপার-ব্যাটসম্যানের ৬৪ বলে খেলা ৪৭ রানের দায়িত্বশীল ইনিংসে দেড়শ’ ছাড়ায় রূপগঞ্জের সংগ্রহ।
সহজ লক্ষ্য তাড়ায় রুবেল মিয়ার সঙ্গে ১২৫ রানের উদ্বোধনী জুটিতে প্রাইম ব্যাংককে ভালো শুরু এনে দেন এনামুল। ৬১ বলে চারটি চারে ৪৪ রান করা রুবেলকে ফিরিয়ে দেন নাবিল সামাদ। তারপরও পথ খুঁজে পায়নি রূপগঞ্জ। ভারতীয় ব্যাটসম্যান সুদিপ চ্যাটার্জীকে নিয়ে বাকিটা সহজেই সারেন এনামুল। শেষ পর্যন্ত প্রাইম ব্যাংক অধিনায়ক ১১১ বলে ১০০ রানে অপরাজিত ছিলেন। তার ইনিংসটি সাজানো ছিল ১২ চার ও দুই ছয়ে। স্বাভাবিকভাবে ম্যাচসেরাও হয়েছেন তিনি।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ: ৪৬.১ ওভারে ১৬৩ (আজমির ০, মোহাম্মদ নাঈম ৫২, শাহরিয়ার ১, নাঈম ১৫, আসিফ আহমেদ ১২, ধাওয়ান ১৩, জাকের ৪৭, মুক্তার ১, আসিফ হাসান ১১, শহীদ ৩, নাবিল ০*; মোহর ২/১৪, আল আমিন ২/৪৮, আল আমিন জুনিয়র ০/২৬, আরিফুল ২/৩৮, রাজ্জাক ২/২৫, কাপালী ২/১২)
প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব: ৩১.৩ ওভারে ১৬৬/১ (এনামুল ১০০*, রুবেল ৪৪, সুদিপ ১৫*; শহীদ ০/২১, নাবিল ১/৩৬, আসিফ হাসান ০/৪৪, ধাওয়ান ০/২৮, নাঈম ০/২০, আজমির ০/৯, আসিফ আহমেদ ০/৬)
ফল: প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব ৯ উইকেটে জয়ী

 

সর্বশেষ..