ট্রাম্প-কিম বৈঠক আয়োজনে খরচ দুই কোটি ডলার

শেয়ার বিজ ডেস্ক: আগামীকাল মঙ্গলবার সিঙ্গাপুরে হতে যাচ্ছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং উনের ঐতিহাসিক বৈঠক। বৈঠকে যোগ দিতে ইতোমধ্যে দেশটিতে পৌঁছেছেন দুই নেতা। এদিকে তাদের এ বৈঠক আয়োজনের জন্য সিঙ্গাপুর দুই কোটি ডলার খরচ করছে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী লি সেইন লুং। এ বৈঠক আয়োজনের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সিঙ্গাপুরের ভাবমূর্তি বাড়বে বলে আশা প্রকাশ করেছেন তিনি। খবর বিবিসি, রয়টার্স।
সান্টোস দ্বীপে ঐতিহাসিক বৈঠকে মিলিত হবেন কিম ও ট্রাম্প। অপেক্ষাকৃত নিরাপদ ও সুবিধাজনক স্থান বিবেচনায় বৈঠকের স্থান হিসেবে সিঙ্গাপুরকে বেছে নেওয়া হয়েছে। বিশ্বের অল্প কয়েকটি দেশের মধ্যে সিঙ্গাপুরে একইসঙ্গে উত্তর কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস রয়েছে। গত মঙ্গলবার ট্রাম্প ও কিমের বৈঠক সামনে রেখে ইন্টারন্যাশনাল মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে লি সেইন লুং বলেন, এর মধ্য দিয়ে সিঙ্গাপুরের প্রচার হচ্ছে।
আগামীকাল ট্রাম্প ও কিমের বৈঠককে কেন্দ্র করে নিরাপত্তামূলক প্রস্তুতি সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে লি বলেন, ‘আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ভালো করছে। কেবল আলাদা আলাদা নয়, বরং একত্র হয়ে পারস্পরিক সহযোগিতার ভিত্তিতেও কাজ করছে তারা। আগামী কয়েক দিনের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য তারা সবাই প্রস্তুত।’
এয়ার চায়না ৭৪৭ বিমানে করে কিম সিঙ্গাপুরে পৌঁছান। প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ট্রাম্প সিঙ্গাপুরের পথে ছিলেন। রোববার রাতের মধ্যেই তার দেশটিতে পৌঁছানোর কথা। ট্রাম্প ও কিমের সঙ্গে আলাদা আলাদা বৈঠক করবেন সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সেইন লুং। কিম ও ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি।
১২ জুন সিঙ্গাপুরে বৈঠকের তারিখটি বেশ কিছুদিন আগে নির্ধারিত হলেও আচমকা গত ২৪ মে উনের সঙ্গে বৈঠকটি বাতিলের ঘোষণা দিয়েছিলেন ট্রাম্প। ট্রাম্পের এ সিদ্ধান্তে উত্তর কোরিয়াসহ আন্তর্জাতিক বিশ্ব হতাশা প্রকাশ করেছিল। এরপর ২৫ মে ট্রাম্প নতুন করে ইঙ্গিত দেন, ১২ জুন সিঙ্গাপুরে কিমের সঙ্গে বৈঠক হতে পারে। ২৬ মে সংবাদ সম্মেলনেও এ বিষয়ে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।