বিশ্ব বাণিজ্য

ডলারের শক্ত অবস্থানে বিশ্ববাজারে নিম্মখী স্বর্ণের দাম

 

শেয়ার বিজ ডেস্ক:  যুক্তরাষ্ট্রের শক্তিশালী কর্মসংস্থান পরিসংখ্যান ফেডারেল রিজার্ভের (ফেড) সুদহার হ্রাসের সম্ভাবনাকে কমিয়ে দিয়েছে। এতে ডলারের বিনিময় মূল্য বেড়েছে। যার প্রভাব পড়েছে স্বর্ণের বাজারে। ঊর্ধ্বমুখী ধারায় থাকা স্বর্ণের দাম গতকাল বুধবার কিছুটা কমেছে। খবর: বিজনেস রেকর্ডার।
সাধারণত ডলারের মান যখন দুর্বল হয়ে ওঠে, তখন স্বর্ণসহ নির্ধারিত বিভিন্ন ধাতুতে বিনিয়োগ করায় নিরাপদ বোধ করেন বিনিয়োগকারীরা। ফলে ধাতুটির দাম বাড়ে। আর ডলার শক্ত অবস্থানে থাকলে স্বর্ণের দাম কমে। তাছাড়া রাজনৈতিক বা আর্থিক কোনো অস্থিরতা দেখা দিলেও এ পণ্যটির দর বাড়ে। কারণ, এ সময় এ খাতে বিনিয়োগের পরিমাণ বেড়ে যায়। স্বর্ণকে তখন মানুষ নিরাপদ বিনিয়োগ ভাবে।
গতকাল স্পট মার্কেটে প্রতি আউন্স স্বর্ণ বিক্রি হয়েছে এক হাজার ৩৯১ ডলার ৩৫ সেন্টে। আগের দিনের তুলনায় দশমিক পাঁচ শতাংশ বেশি। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের ফিউচার মার্কেটে স্বর্ণের দাম এক দশমিক পাঁচ শতাংশ বেড়ে প্রতি আউন্স বিক্রি হয়েছে এক হাজার ৩৯৩ ডলার ৫০ সেন্টে।
প্রবৃদ্ধির গতি বাড়াতে বিশ্বের কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলো সুদহার রেকর্ড নিম্নে নামিয়ে আনবে এমন প্রত্যাশায় বৈশ্বিক ইকুইটি বাজারগুলো শক্তিশালী হয়ে উঠেছিল। কিন্তু জুনে যুক্তরাষ্ট্রের শক্তিশালী কর্মসংস্থান পরিসংখ্যানে এ প্রত্যাশা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। পরিসংখ্যান অনুসারে জুনে যুক্তরাষ্ট্রে অকৃষিভিত্তিক কর্মসংস্থান দুই লাখ ২৪ হাজার বৃদ্ধি পেয়েছে, যেখানে এক লাখ ৬০ হাজার কর্মসংস্থান বৃদ্ধির প্রত্যাশা করা হয়েছিল। শক্তিশালী কর্মসংস্থান পরিসংখ্যান নির্দেশ করছে যে, বিশ্বের শীর্ষ অর্থনীতিটি এখনও উজ্জীবিত রয়েছে।
শক্তিশালী এ পরিসংখ্যানের কারণে ফেড চেয়ারম্যান জেরোম পাওয়েল চলতি বছর সুদহার কর্তনের গতি মন্থর করবেন বলে বিনিয়োগকারীরা ধারণা করছেন। চলতি সপ্তাহে মার্কিন কংগ্রেসে অর্ধবার্ষিক প্রতিবেদনে স্বল্প মেয়াদে কী ধরনের মুদ্রানীতি নেওয়া হবে, তা নিয়ে পাওয়েল পূর্বাভাস দেবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ কারণে প্রধান মুদ্রাগুলোর বিরুদ্ধে গতকাল ডলারের বিনিময়মূল্য বেড়ে তিন সপ্তাহের মধ্যে সর্বোচ্চে পৌঁছেছে। এর প্রভাব পড়েছে স্বর্ণের দামে।

সর্বশেষ..