কোম্পানি সংবাদ

ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ১০২ কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক:  উভয় পুঁজিবাজারে পতন অব্যাহত রয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সবগুলো সূচকের পতনের পাশাপাশি লেনদেন কমেছে প্রায় ১০২ কোটি টাকা। গতকাল লেনদেনের শুরুতে সূচক ঊর্ধ্বমুখী হলেও তা বেশি সময় স্থায়ী হয়নি। আধঘণ্টার মধ্যে সূচক নিন্মমুখী হয়ে যায়। এরপর আরেকবার ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার চেষ্টা ব্যর্থ হয়। বাকি সময়জুড়ে সূচকের পতন অব্যাহত থাকে। শেষ পর্যন্ত ডিএসইএক্স সূচকের ১৭ দশমিক ৬১ পয়েন্ট পতন হয়। অন্যদিকে চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) একই চিত্র দেখা গেছে।
বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১৭ দশমিক ৬১ পয়েন্ট বা দশমিক ৩৩ শতাংশ কমে পাঁচ হাজার ২৭২ দশমিক ৩৮ পয়েন্টে অবস্থান করে।
ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক চার দশমিক ৪৯ পয়েন্ট বা দশমিক ৩৬ শতাংশ কমে এক হাজার ২১৭ দশমিক ৯৮ পয়েন্টে অবস্থান করে। আর ডিএস৩০ সূচক তিন দশমিক ৭৭ পয়েন্ট বা দশমিক ২০ শতাংশ কমে এক হাজার ৮৫৮ দশমিক শূন্য চার পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন তিন লাখ ৮৮ হাজার ৪১৭ কোটি টাকা হয়। ডিএসইতে গতকাল লেনদেন হয় ৩৮৮ কোটি ৪১ লাখ ৭২ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৪৩৩ কোটি ৫০ লাখ ৫৮ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন কমেছে ১০১ কোটি ৭২ লাখ টাকা। এদিন ৯ কোটি ৫২ লাখ ৭৭ হাজার ৮৫৫টি শেয়ার ৯০ হাজার ৬৩৬ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৪৩ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৮৫টির, কমেছে ২০৬টির ও অপরিবর্তিত ছিল ৫২টির দর।
গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে ফরচুন সুজ। কোম্পানিটির ৩১ কোটি ৭২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে এক টাকা ৭০ পয়সা। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা মুন্নু সিরামিকের ২৪ কোটি ৯৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর কমেছে ২০ টাকা ৮০ পয়সা। এসকোয়্যার নিটের ১৩ কোটি ৮৩ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে এক টাকা ৯০ পয়সা। এরপরের অবস্থানে থাকা ইন্দোবাংলা ফার্মার ১০ কোটি ৪০ লাখ, পাওয়ার গ্রিডের ৯ কোটি ৯৪ লাখ, বিএসসির আট কোটি ৩৬ লাখ টাকা, জেনেক্স ইনফোসিসের সাত কোটি টাকা, ন্যাশনাল ব্যাংকের ছয় কোটি ৩৭ লাখ টাকা, এসএস স্টিলের ছয় কোটি ২২ লাখ টাকা ও লিগ্যাসি ফুটওয়্যারের ছয় কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। ছয় দশমিক ৯৮ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে স্টান্ডার্ড সিরামিক। এরপর ফরচুন শুজের দর চার শতাংশ, আফতাব অটোর তিন দশমিক ৫৭ শতাংশ, এনবিএলের দর তিন দশমিক ২২ শতাংশ, এসএস স্টিলের দুই দশমিক ৯৬ শতাংশ, কর্ণফুলী ইন্স্যুরেন্সের দুই দশমিক ৯৫ শতাংশ বেড়েছে। এরপরের অবস্থানগুলোতে ছিল রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স, এসকোয়্যার নিট, এআইবিএল ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড ও এপেক্স ফুড।
অন্যদিকে ৯ দশমিক ৭৯ শতাংশ দর কমেছে সেন্ট্রাল ফার্মাসিউটিক্যালসের। এলআর গ্লোবাল মিউচুয়াল ফান্ডের দর আট দশমিক ৫৭ শতাংশ, মুন্নু সিরামিকের দর সাত দশমিক ৫৭ শতাংশ, সিটি জেনারেল ইন্স্যুরেন্সের দর চার দশমিক ৪৭ শতাংশ, ন্যাশনাল ফিডমিলের দর চার দশমিক ২৩ শতাংশ, ভ্যানগার্ড এএমএল রূপালী ব্যাংক ব্যালেন্সড ফান্ডের দর চার দশমিক ২২ শতাংশ, ইস্টল্যান্ড ইন্স্যুরেন্সের দর চার শতাংশ, স্টান্ডার্ড ইন্স্যুরেন্সের দর তিন দশমিক ৬৭ শতাংশ, কাশেম ইন্ডাস্ট্রিজের দর তিন দশমিক ৬২ শতাংশ, আরামিট সিমেন্টের দর তিন দশমিক ৪৬ শতাংশ কমেছে।
সিএসইতে গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ১০ দশমিক ৬৩ পয়েন্ট বা দশমিক এক শতাংশ কমে ৯ হাজার ৮১৫ দশমিক ২২ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২১ দশমিক ২০ পয়েন্ট বা দশমিক ১৩ শতাংশ কমে ১৬ হাজার ২০৯ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল সর্বমোট ২২৪টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৫৭টির, কমেছে ১৩৬টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩১টির দর।
সিএসইতে এদিন ১৬ কোটি ২১ লাখ ৩৪ হাজার ৮৮১ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ২৬ কোটি ৪৯ লাখ ৮৪ হাজার ১৬০ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন কমেছে ১০ কোটি ২৮ লাখ টাকা। সিএসইতে গতকাল লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করে এসকোয়্যার নিট। কোম্পানিটির এক কোটি ২৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। এরপর সায়হাম টেক্সের এক কোটি ১৮ লাখ, সোনারবাংলা ইন্স্যুরেন্সের এক কোটি শূন্য সাত লাখ টাকার, ইন্দোবাংলা ফার্মার ৯১ লাখ টাকার, ডরিন পাওয়ার ৮৯ লাখ টাকার, এসএস স্টিলের ৮৯ লাখ, বিএসসির ৬৪ লাখ টাকার, লাফার্জ হোলসিমের ৫৮ লাখ, লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের ৫২ লাখ টাকা ও ডেসকোর ৪৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

সর্বশেষ..