ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১১৭ কোটি টাকা

  বাজার গতিশীল

নিজস্ব প্রতিবেদক: পুঁজিবাজার ধীরে ধীরে গতিশীল হচ্ছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) আগের দিনের তুলনায় লেনদেন বেড়েছে ১১৭ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। এদিন সবকটি সূচক ইতিবাচক থাকার পাশাপাশি ৫২ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে। গতকাল সকাল থেকেই সূচকের উত্থান দিয়ে লেনদেন শুরু হয়। সকাল ১১টার পরে ডিএসইএক্স সূচক ৪৫ পয়েন্ট বেড়ে দিনের সর্বোচ্চ অবস্থানে ওঠে। এরপর বিক্রির চাপ কিছুটা বাড়লে সূচক ধীরে ধীরে নামতে থাকে। তবে দিনশেষে প্রায় ১৪ পয়েন্ট উত্থান দিয়ে লেনদেন শেষ হয়। অন্যদিকে সিএসইতে সিএসই৫০ ছাড়া সব সূচক বৃদ্ধির পাশাপাশি বেশিরভাগ শেয়ারের দর বেড়েছে। তবে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কমেছে।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স ১৩ দশমিক ৯৩ পয়েন্ট বা দশমিক ২২ শতাংশ বেড়ে ছয় হাজার ১০২ দশমিক ৩০ পয়েন্টে অবস্থান করে। ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক ৩ দশমিক ৮৭ পয়েন্ট বা দশমিক ২৭ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৪১০ দশমিক ৬৩ পয়েন্টে অবস্থান করে। আর ডিএস৩০ সূচক ৪ দশমিক ৫০ পয়েন্ট বা দশমিক ২০ শতাংশ বেড়ে দুই হাজার ২৫০ দশমিক ৫৩ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন বেড়ে চার লাখ ২১ হাজার ২৯৫ কোটি ৫৫ লাখ ১২ হাজার টাকা হয়। ডিএসইতে গতকাল লেনদেন হয় ৬২১ কোটি ১৯ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের দিন লেনদেন হয় ৫০৩ কোটি ৬৬ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন বেড়েছে ১১৭ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। এদিন ১৩ কোটি ৮৮ লাখ ৯৭ হাজার ২৪টি শেয়ার এক লাখ ১৭ হাজার ৬১৯ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৩৫টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৭৫টির, কমেছে ১২৫টির, অপরিবর্তিত ছিল ৩৫টির দর।

গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে লংকাবাংলা ফিন্যান্স। ২৯ কোটি ৭১ লাখ টাকায় ৭৩ লাখ ৯৬ হাজার ৬৭৪টি শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারটির দর ৭০ পয়সা কমেছে। এরপরের অবস্থানে ছিল ইউনিক হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্ট, ব্র্যাক ব্যাংক, বেক্সিমকো ফার্মা, ফু ওয়াং ফুড, মন্নু সিরামিক, কেয়া কসমেটিকস, মার্কেন্টাইল ব্যাংক, স্কয়ার ফার্র্মা ও প্যারামাউন্ট টেক্স। সর্বোচ্চ সংখ্যক শেয়ার লেনদেনকারী কোম্পানিগুলোর মধ্যে শীর্ষে উঠে আসে কেয়া কসমেটিকস। কোম্পানিটির এক কোটি ১৫ লাখ ৪২ হাজার ৩৯৯টি শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারটির দর ৫০ পয়সা বেড়েছে। এর পরের অবস্থানে ছিল  জেনারেশন নেক্সট, লংকাবাংলা ফিন্যান্স, ফু ওয়াং ফুড, মার্কেন্টাইল ব্যাংক, ফু ওয়াং সিরামিক, অগ্নি সিস্টেম, এনবিএল, ফ্যামিলি টেক্স ও বিডি কম।

১০ শতাংশ দর বেড়েছে আমান ফিডের। এরপর ৯ দশমিক ৮১ শতাংশ দর বাড়ে অগ্নি সিস্টেমের। ফাইন ফুডসের দর ৯ দশমিক ৭৬ শতাংশ এবং ফু ওয়াং সিরামিকের দর ৯ দশমিক ৭৫ শতাংশ বাড়ে।  ইনটেকের দর বাড়ে ৯ দশমিক ৫৭ শতাংশ।

অন্যদিকে ৪ দশমিক ৩২ শতাংশ দর কমে পতনের শীর্ষে চলে আসে পদ্মা লাইফ। এরপর ৪ দশমিক ০৮ শতাংশ দর কমে ইবিএল ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের। সোনারগাঁও টেক্সটাইলের দর ৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ কমেছে। এটলাস বাংলাদেশের দর ৩ দশমিক ৩৫ শতাংশ, ইমাম বাটনের দর ৩ দশমিক ১৫ শতাংশ কমেছে।

চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ৩০ পয়েন্ট বেড়ে ১১ হাজার ৩৮৮ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৫৭ পয়েন্ট বেড়ে ১৮ হাজার ৮৭৮ পয়েন্টে অবস্থান করে। তবে সিএসই ৫০ সূচক কমেছে দশমিক ৭৬ পয়েন্ট। গতকাল সর্বোমোট ২৪১টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৪২টির। কমেছে ৭৫টির। অপরিবর্তিত ছিল ২৪টির দর।

সিএসইতে এদিন ২৬ কোটি ৩২ লাখ ৪৭ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের দিন লেনদেন হয় ৩৫ কোটি ৩৮ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন কমেছে ৯ কোটি টাকা। লেনদেনের শীর্ষে ছিল লংকাবাংলা ফিন্যান্স। কোম্পানিটির এক কোটি ১৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। এছাড়া কেয়া কসমেটিকসের এক কোটি ১৬ লাখ টাকার, ফু ওয়াং সিরামিকসের ৯৯ লাখ, জেনারেশন নেক্সটের ৯৭ লাখ, বেক্সিমকোর ৯৪ লাখ, ফু ওয়াং ফুডের ৯২ লাখ, ইউনিক হোটেলের ৭৩ লাখ ও জিপির ৬৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।