ঢাকায় যাত্রীদের জন্য ভাড়া কমাল উবার

# ভারতের চেয়ে এখনও ভাড়া বেশি # চালু হল নতুন সেবা উবার প্রিমিয়ার

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকায় অবশেষে ভাড়ার হার কমাল অ্যাপভিত্তিক ট্যাক্সি-সেবা উবার। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ট্যাক্সি-সেবাদাতা কোম্পানিটি গতকাল এ ঘোষণা দিয়েছে, যদিও নতুন ভাড়ার হার ভারতের বিভিন্ন শহরের চেয়ে বেশি। পাশাপাশি নতুন সেবা উবার প্রিমিয়ার চালু করা হয়েছে। নতুন সেবাটির ভাড়া আরও বেশি। মূলত বিজনেস ক্লাস তথা তুলনামূলক বেশি আয়ের যাত্রীদের জন্য এ সেবাটি চালু করা হয়েছে।

তথ্যমতে, এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের শহরগুলোর মধ্যে ঢাকায় দ্রুত বাড়ছে অ্যাপভিত্তিক ট্যাক্সি-সেবা উবারের ব্যবহার। গত ২২ নভেম্বর ঢাকায় যাত্রা শুরুর দুই মাসের মাথায় বাড়ানো হয়েছে এর ভাড়া। ভাড়া নিয়ে যাত্রীদের নানামুখী অভিযোগ আসতে শুরু করে। সে সময় প্রতি কিলোমিটারের ভাড়া ধরা হয় ২১ টাকা। আর যাত্রাপথের সময়ের জন্য প্রতি মিনিটের চার্জ তিন টাকা। এর সঙ্গে রয়েছে ৫০ টাকা ভিত্তিভাড়া (বেস ফেয়ার)।

নতুন হিসেবে প্রতি কিলোমিটারের ভাড়া পড়বে ১৮ টাকা। আর ভিত্তিভাড়া হবে ৪০ টাকা। তবে যাত্রাপথের সময়ের জন্য প্রতি মিনিটের চার্জ তিন টাকা অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উবার ঢাকা অফিস জানায়, নতুন ভাড়া কার্যকর হওয়ায় বনানী ১১নং সড়ক থেকে বিমানবন্দর পর্যন্ত ভাড়া পড়বে ২৯০ টাকা। আগে এ রুটে যাত্রীদের গুনতে হতো ৩৩০ টাকা। একইভাবে ধানমন্ডি-২৭ থেকে মিরপুর-১ পর্যন্ত ভাড়া পড়বে ২৩০ টাকা, আগে যা পড়ত ২৬০ টাকা।

উল্লেখ্য, উবারের ভাড়ার হার নিয়ে শেয়ার বিজে গত ১৯ জুন ‘নিয়ন্ত্রণ ছাড়া দ্রুত বড় হচ্ছে উবারের সেবা’ শীর্ষক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এতে উল্লেখ করা হয়, ভারত বা পাকিস্তানের বিভিন্ন শহরের চেয়ে ভাড়া বেশি ছিল। এছাড়া বাড়তি ভাড়া নিয়ে যাত্রীরাও বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ করেন।

এদিকে গতকাল ঢাকায় চালু হওয়া উবার প্রিমিয়ারে প্রতি কিলোমিটারের ভাড়া পড়বে ২২ টাকা। আর ভিত্তিভাড়া হবে ৮০ টাকা। তবে যাত্রাপথের সময়ের জন্য প্রতি মিনিটের চার্জ তিন টাকা অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে। এতে বনানী ১১নং সড়ক থেকে বিমানবন্দর পর্যন্ত ভাড়া পড়বে ৩৭০ টাকা। আর ধানমন্ডি-২৭ থেকে মিরপুর-১ পর্যন্ত ভাড়া পড়বে ২৯৫ টাকা।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, যাত্রীদের কথা বিবেচনা করে ঢাকায় উবার চালু করলো প্রিমিয়ার। এতে যাত্রীরা এখন থেকে আরও বেশি আরামদায়ক রাইড উপভোগ করতে পারবেন। পাইলট হিসেবে চালুর পর যাত্রী ও চালক উভয়ের কাছ থেকে ইতিবাচক সাড়া পাওয়ার পর এটি চালু করা হয়েছে। উবার প্রিমিয়ারে দুটি বৈশিষ্ট্যও তুলে ধরা হয়েছে। এগুলো হলো প্রিমিয়াম কোয়ালিটির সেডান গাড়ি ও বিশেষভাবে প্রশিক্ষিত চালক।

ঢাকায় উবারের জেনারেল ম্যানেজার অর্পিত মুন্ড্রা বলেন, ‘উবারে সব সময় প্রযুক্তির ব্যবহার ও স্থানীয়ভাবে উপযুক্ত প্রোডাক্টের মাধ্যমে যাত্রীদের আরও উন্নত ভ্রমণ-অভিজ্ঞতা দেওয়ার প্রচেষ্টা করা হয়। আমরা অনুপ্রাণিত হয়েছি ঢাকায় উবার প্রিমিয়ার  চালু করতে পেরে এবং এর মাধ্যমে যাত্রীদের ব্যক্তিগত গাড়িতে ভ্রমণের মতো অভিজ্ঞতা দিতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। গাড়ির ব্যক্তিগত মালিকানার বিকল্প পথ সৃষ্টি করে ট্রাফিক জ্যামের সমস্যা কমাতে আমরা বদ্ধপরিকর। এই লক্ষ্য বাস্তবায়নের দিকে আরও এক ধাপ এগিয়ে যাওয়ার জন্য উবার প্রিমিয়ার চালু করা হয়েছে।’

তথ্যমতে, পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের কলকাতায় উবার-এক্সের বেস ফেয়ার ঢাকার চেয়ে বেশি, ৪৭ দশমিক ৭০ রুপি, দেশীয় মুদ্রায় যা ৫৮ টাকা ৫০ পয়সা। তবে যাত্রাপথের প্রতি মিনিটের জন্য

যাত্রীদের গুনতে হয় এক দশমিক ৬০ রুপি (এক টাকা ৯৬ পয়সা)। আর প্রতি কিলোমিটারের ভাড়া ৯ দশমিক ছয় রুপি বা ১১ টাকা ৭৮ পয়সা। শুধু কলকাতা নয়, দিল্লি, আহমেদাবাদ, ব্যাঙ্গালুরু ও মুম্বাইয়েও উবারের ভাড়া ঢাকার তুলনায় কম। এছাড়া পাকিস্তানের ইসলামাবাদ ও ফয়সালাবাদেও উবারের ভাড়া ঢাকার তুলনায় অনেক কম।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ঢাকায় বিশৃঙ্খল পরিবহন সেবার উন্নয়নে উবার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারত। তবে কোনো আইনি কাঠামো না থাকায় নিয়ন্ত্রণহীনভাবে চলছে এ সেবা, যদিও সম্প্রতি সরকার অনরাইড শেয়ারিং-সংক্রান্ত নীতিমালা প্রণয়নের কাজ করছে। তবে এর খসড়াতেও ভাড়া নিয়ন্ত্রণের কোনো বিধান রাখা হয়নি। তবে সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় এ-সংক্রান্ত বিধান যুক্ত করার পরামর্শ দিয়েছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়কে।

উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ট্যাক্সি-সেবাদাতা উবারের নিজস্ব কোনো গাড়ি নেই। এটি মুঠোফোন অ্যাপের মাধ্যমে গাড়ির মালিক-চালকদের সঙ্গে যাত্রীদের সংযোগ ঘটিয়ে দেওয়ার একটি প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজ করে। এখানে গাড়িচালক ও যাত্রী- দুই পক্ষকেই আগে থেকে নিবন্ধিত হতে হয়। ঢাকায় প্রতি ট্রিপের ২৫ শতাংশ অর্থ পায় উবার। বাকিটা গাড়ির মালিক ও চালক পেয়ে থাকে।