কোম্পানি সংবাদ

তিন কার্যদিবসে ডিএসইতে সূচক কমেছে ১০০ পয়েন্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক: পুঁজিবাজারে সূচকের টানা পতন চলছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) চলতি সপ্তাহে টানা তিন কার্যদিবসে সূচক কমেছে ১০০ পয়েন্ট। গতকাল ৬৯ শতাংশ কোম্পানির দরপতন হয়। সেই সঙ্গে কমেছে সবগুলো সূচক। তবে বিক্রির চাপে লেনদেন সামান্য বেড়েছে। গতকাল ডিএসইতে লেনদেনের শুরুতেই বিক্রির চাপে সূচকে পতন নেমে আসে। ১৫ মিনিট পর খুব সামান্য বাড়ার চেষ্টা করলেও পরমুহূর্তে বিক্রির চাপ শুরু হয়। এরপর বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সূচকও নি¤œমুখী হতে থাকে। মাঝে একবার উত্থানের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। শেষ পর্যন্ত প্রধান সূচকের ৩৮ পয়েন্ট পতন হয়। অন্যদিকে চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক, শেয়ারদর ও লেনদেনে একই চিত্র লক্ষ্য করা গেছে।
বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৩৮ দশমিক ৫৭ পয়েন্ট বা দশমিক ৭২ শতাংশ কমে পাঁচ হাজার ২৮০ দশমিক শূন্য চার পয়েন্টে অবস্থান করে।
ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক আট দশমিক ৭৪ পয়েন্ট বা দশমিক ৭১ শতাংশ কমে এক হাজার ২০৭ দশমিক ৪৯ পয়েন্টে অবস্থান করে। আর ডিএস ৩০ সূচক ১০ দশমিক ৬৪ পয়েন্ট বা দশমিক ৫৬ শতাংশ কমে এক হাজার ৮৭৫ দশমিক ৫২ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন তিন লাখ ৯০ হাজার ৮৬৬ কোটি ৯১ লাখ ৭০ হাজার ৭৫৬ টাকা হয়। ডিএসইতে গতকাল লেনদেন হয় ৫১২ কোটি ৯১ লাখ ২৪ হাজার ১৯৬ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৪২৪ কোটি ৬৬ লাখ শূন্য এক হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন বেড়েছে ৮৮ কোটি ২৫ লাখ টাকা। এদিন ১৯ কোটি ৯০ লাখ ৮৮ হাজার ২০৪টি শেয়ার এক লাখ ৩১ হাজার ২৫৫ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৫২ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৮৬টির, কমেছে ২৪২টির ও অপরিবর্তিত ছিল ২৪টির দর।
গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে রানার অটো। কোম্পানিটির ১৮ কোটি ৯৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর কমেছে আট টাকা ১০ পয়সা। এশিয়ান টাইগার সন্ধানী লাইফ গ্রোথ ফান্ডের ১৭ কোটি ৯৯ লাখ টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে এক টাকা ২০ পয়সা। তৃতীয় অবস্থানে থাকা ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ১৩ কোটি ৭১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর কমেছে সাত টাকা ৩০ পয়সা। জেএমআই সিরিঞ্জের ১৩ কোটি ২০ লাখ টাকা লেনদেন হয়, দর বেড়েছে সাত টাকা ৮০ পয়সা। ইউনাইটেড পাওয়ারের ১০ কোটি টাকা লেনদেন হয়। দর অপরিবর্তিত ছিল। এরপরের অবস্থানে থাকা সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজের সাড়ে আট কোটি টাকার, রূপালী ইন্স্যুরেন্সের আট কোটি ৩৩ লাখ টাকা, গ্রামীণফোনের আট কোটি ১৫ লাখ টাকার, গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্সের আট কোটি ১০ লাখ টাকার ও রূপালী লাইফের সাড়ে সাত কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।
১০ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে এক্সিম ব্যাংক ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড। ‘রিলায়েন্স ওয়ান’ দি ফার্স্ট স্কিম অব রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স মিউচুয়াল ফান্ডের দর ৯ দশমিক ৯০ শতাংশ। সিএপিএম আইবিবিএল মিউচুয়াল ফান্ডের দর ৯ দশমিক ৮৯ শতাংশ, এসইএমএল এফবিএসএল গ্রোথ ফান্ডের দর ৯ দশমিক ৭৭ শতাংশ, এসইএমএল আইবিবিএল শরিয়াহ ফান্ডের দর ৯ দশমিক ৭৫ শতাংশ, ইবিএল এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ডের দর ৯ দশমিক ৪৩ শতাংশ, এশিয়ান টাইগার সন্ধানী লাইফ গ্রোথ ফান্ডের দর ৯ দশমিক ৩৭ শতাংশ, ফার্স্ট জনতা ব্যাংক মিউচুয়াল ফান্ডের দর ৯ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ, পিএইচপি ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের দর আট দশমিক ৯২ শতাংশ, এসইএমএল লেকচার ইকুইটি ম্যানেজমেন্ট ফান্ডের দর আট দশমিক ৭৫ শতাংশ বেড়েছে ।
অন্যদিকে ১০ শতাংশ কমে দরপতনের শীর্ষে উঠে আসে পিপলস লিজিং ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেড। গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্সের দর ৯ দশমিক ২১ শতাংশ কমেছে। এছাড়া আরএন স্পিনিংয়ের দর আট দশমিক শূন্য ছয় শতাংশ, রানার অটোর দর ছয় দশমিক ৫৪ শতাংশ, মুন্নু সিরামিকের দর ছয় দশমিক ২২ শতাংশ, নর্দার্ন ইন্স্যুরেন্সের দর ছয় শতাংশ, নর্দান জুটের দর পাঁচ দশমিক ৮৯ শতাংশ, প্রাইম ফাইন্যান্সের দর পাঁচ দশমিক ৭৬ শতাংশ, মুন্নু জুট স্টাফলার্সের দর পাঁচ দশমিক ৫৮ শতাংশ ও লিগ্যাসি ফুটওয়্যারের দর পাঁচ দশমিক ৪০ শতাংশ কমেছে।
সিএসইতে গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ৫২ দশমিক ৮১ পয়েন্ট বা দশমিক ৫৩ শতাংশ কমে ৯ হাজার ৮২৬ দশমিক ৩৩ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৯০ দশমিক ২৫ পয়েন্ট বা দশমিক ৫৫ শতাংশ কমে ১৬ হাজার ২০০ দশমিক ২৭ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল সর্বমোট ২৭৬টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৭৪টির, কমেছে ১৮১টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২১টির দর।
সিএসইতে এদিন ১৯ কোটি ৫১ লাখ ৯ হাজার ৮২৮ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ১৪ কোটি ৫৬ লাখ ৩৬ হাজার ৪৭৪ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন বেড়েছে চার কোটি ৯৪ লাখ টাকা। সিএসইতে গতকাল লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করে স্কয়ার ফার্মা। কোম্পানিটির চার কোটি ৬১ লাখ ৮০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। এরপর রানার অটোর ৬৪ লাখ টাকার, বসুন্ধরা পেপার মিলের ৬৩ লাখ টাকার, এসকে ট্রিমসের ৪৮ লাখ টাকার, রূপালী ইন্স্যুরেন্সের সাড়ে ৪৫ লাখ টাকার, লিগ্যাসি ফুটওয়্যারের ৩৭ লাখ টাকার, ফার্স্ট জনতা ব্যাংক মিউচুয়াল ফান্ডের ৩১ লাখ টাকার, এ্যাসকোয়ার নিটের সাড়ে ২৮ লাখ টাকার, আরএন স্পিনিংয়ের সাড়ে ২৬ লাখ টাকার ও বাংলাদেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্সের ২৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

সর্বশেষ..