কোম্পানি সংবাদ

তৃতীয় প্রান্তিকে সোনালী আঁশের ইপিএস কমেছে ২১পয়সা

নিজস্ব প্রতিবেদক: চলতি হিসাববছরের তৃতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) সোনালী আঁশ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ২১ পয়সা কমেছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
তথ্যমতে, কোম্পানিটির তৃতীয় প্রান্তিকে ইপিএস হয়েছে ৪১ পয়সা, যা আগের বছর একই সময় ছিল ৬২ পয়সা। অর্থাৎ তৃতীয় প্রান্তিকে ইপিএস ২১ পয়সা কমেছে। তিন প্রান্তিকে বা ৯ মাসে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৮১ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে এক টাকা ৩৭ পয়সা ছিল। ২০১৯ সালের ৩১ মার্চ শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) হয়েছে ২২৬ টাকা ৭১ পয়সা, যা ২০১৮ সালের ৩০ জুনে ছিল ২২৫ টাকা ৯০ পয়সা।
এর আগে ২০১৮ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য কোম্পানিটি ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে, যা আগের বছরের সমান। আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় ছিল এক টাকা ৭১ পয়সা ও এনএভি ২২৫ টাকা ৯০ পয়সা। এটি আগের বছর একই সময় ছিল যথাক্রমে এক টাকা ৬৫ পয়সা ও ২২৫ টাকা ১৯ পয়সা।
এদিকে গতকাল ডিএসইতে কোম্পানিটির শেয়ারদর তিন দশমিক ৯৯ শতাংশ বা ১৬ টাকা ২০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ ৪২২ টাকা ২০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ৪১৯ টাকা ৭০ পয়সা। দিনভর শেয়ারদর সর্বনিন্ম ৪০৫ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৪২৪ টাকায় ওঠানামা করে। এদিন ১২ হাজার ৯৭৩টি শেয়ার ৫৫৩ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ৫৪ লাখ টাকা। এক বছরের মধ্যে শেয়ারদর ২৪১ টাকা ৩০ পয়সা থেকে ৮৩০ টাকায় ওঠানামা করে।
কোম্পানিটি ১৯৮৫ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়ে বর্তমানে ‘এ’ ক্যাটেগরিতে অবস্থান করছে। ১০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন দুই কোটি ৭১ লাখ ২০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৫৮ কোটি ৫৫ লাখ ৩০ হাজার টাকা। ডিএসইর সর্বশেষ তথ্যমতে, কোম্পানির মোট ২৭ লাখ ১২ হাজার শেয়ার রয়েছে। কোম্পানির মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের ৫০ দশমিক ৮০ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক পাঁচ দশমিক ৬৩ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে রয়েছে বাকি ৪৩ দশমিক ৫৭ শতাংশ শেয়ার। সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদন ও বাজারদরের ভিত্তিতে শেয়ারের মূল্য আয় (পিই) অনুপাত ২৪৫ দশমিক ৪৪ এবং হালনাগাদ অনিরীক্ষিত ইপিএসের ভিত্তিতে ৩৮৮ দশমিক ৬১।

সর্বশেষ..