তেজগাঁও ট্রাকস্ট্যান্ড সংলগ্ন সড়ক দখলমুক্তের ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক: আজ থেকে রাজধানীর তেজগাঁও ট্রাকস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকার সড়কগুলো দখলমুক্ত থাকবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) প্যানেল মেয়র জামাল মোস্তফা। এজন্য ট্রাকস্ট্যান্ড ইউনিয়নের মালিক ও শ্রমিকরা প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বলেও জানান প্যানেল মেয়র। সেই সঙ্গে শুধু এ এলাকা নয়, জনগণের দুর্ভোগ এড়াতে ঢাকার সবগুলো সড়ক দখলমুক্ত রাখার ঘোষণাও দেন তিনি।
গতকাল তেজগাঁও ট্রাকস্ট্যান্ড এলাকায় বেদখল হওয়া সড়কগুলো পরিদর্শনে গিয়ে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। যদিও তিনি সেখানে পৌঁছার আগেই আগে থেকে খবর পেয়ে পরিবহন শ্রমিক রাস্তা থেকে ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান সরিয়ে নেয়।
এ সময় উপস্থিত সাংবাদিকদের ডিএনসিসির প্যানেল মেয়র জামাল মোস্তফা বলেন, এ সড়কটা কিছুদিন আগেও দখলমুক্ত ছিল। কিন্তু আবারও দখল হয়ে গেছে এমন খবরে আজ এখানে সরেজমিন দেখতে এসেছি। আমরা মালিক ও শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা জানিয়েছেন, ঈদের কারণে এখানে কিছু ট্রাক জমা ছিল। সেগুলো সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, ডিএনসিসির সাবেক মেয়র আনিসুল হকের যে লক্ষ্য ছিল যানজটমুক্ত ও দুর্ভোগমুক্ত সুন্দর একটি নগর উপহার দেওয়া, সেটি বাস্তবায়নে আমরা একনিষ্ঠভাবে কাজ করে যাচ্ছি। তাই শুধু এ ট্রাকস্ট্যান্ডই নয়, ঢাকার সব ট্রাকস্ট্যান্ড আমরা দখলমুক্ত রাখব। এজন্য আমাদের শ্রমিক ও মালিক সমিতির লোকজন সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন। সেই সঙ্গে তেজগাঁও এলাকা দখলমুক্ত রাখতে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও ডিএনসিসির নির্বাহী কর্মকর্তা মেজবাউল ইসলামকে প্রতিনিয়ত মনিটরিংয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বলেও জানান ডিএনসিসির প্যানেল।
এ সময় বাংলাদেশ ট্রাক কাভার্ড ভ্যান ড্রাইভার্স ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি তালুকদার মো. মনির সড়কে আর ট্রাক না রাখার প্রতিশ্রুতি দেন।
এর আগে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে প্যানেল মেয়র ও ডিএনসিসির সংশ্লিষ্টদের একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এ বৈঠকে তেজগাঁও ট্রাকস্ট্যান্ডটিকে বহুতল ট্রাক টার্মিনাল করার দাবি জানান সংগঠনের নেতারা। জবাবে প্যানেল মেয়র মোস্তফা জামাল বলেন, যেহেতু এখানে প্রায় ১৯ একর ভূমি আছে তাই প্রধানমন্ত্রী ও সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে এ দাবির বিষয়ে আলোচনা করা হবে। তেজগাঁও এলাকায় আনিসুল হকের নামে নির্মিত সড়ক খুব শিগগির উদ্বোধন করা হবে বলেও জানান তিনি।
উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের তদানীন্তন মেয়র আনিসুল হক তেজগাঁও সড়কটি ট্রাকের দখলমুক্ত করতে গিয়ে ট্রাক শ্রমিকদের ক্ষোভের মুখে পড়েন। কিন্তু তিনি অনড় থাকায় ট্রাকস্ট্যান্ড-সংলগ্ন সড়কটি দখলমুক্ত করা হয়। ২০১৭ সালে সাতরাস্তা থেকে রেলক্রসিং পর্যন্ত সড়কের উন্নয়ন করে সড়ক বিভাজনে লাগানো হয় গাছ। সড়কটি দখলমুক্ত হওয়ায় এর সুফলও পেতে শুরু করে নগরবাসী। কিন্তু গত বছরের ৩০ নভেম্বর আনিসুল হকের মৃত্যু হলে ডিএনসিসির শিথিলতার সুযোগ নিয়ে আবারও তেজগাঁও ট্রাকস্ট্যান্ড-সংলগ্ন সড়কগুলোর বিশাল অংশ দখল করে ট্রাক রাখতে শুরু করেন ট্রাক মালিক ও শ্রমিকরা।