তেল ও বন্দরে বিনিয়োগ নিয়ে ভারতকে ইরানের হুশিয়ারিb

 

শেয়ার বিজ ডেস্ক: ইরানের ছাবাহার বন্দরে প্রস্তাবিত বিনিয়োগ না করায় ভারতকে হুশিয়ারি দিয়েছে তেহরান। পাশাপাশি ইরান থেকে তেল আমদানি কমালে ভারত সে দেশ থেকে যে আর্থিক সুবিধা পেয়ে থাকে, তাও বন্ধ করে দেওয়া হবে। গত মঙ্গলবার একটি আলোচনা সভায় ভারতে নিযুক্ত ইরানের উপ-রাষ্ট্রদূত মাসুদ রেজভানিয়ান রাহাঘি এমন হুশিয়ারি দেন। খবর আনন্দবাজার।
ইরানের ছাবাহার বন্দর ভারতের জন্য কৌশলগতভাবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পাকিস্তানের সঙ্গে খারাপ কূটনৈতিক সম্পর্কের পাশাপাশি দেশটির অভ্যন্তরীণ অস্থিতিশীল পরিস্থিতির জন্য করাচিসহ পাক বন্দরগুলো ভারতের জন্য নিরাপদ নয়। অথচ আফগানিস্তান, মধ্য এশিয়া, পারস্য উপসাগরে ভারতের পণ্য নিয়ে যাওয়া বৈদেশিক বাণিজ্যের জন্য একটি জরুরি বিষয়। এ কারণেই ২০১৬ সালে ভারত-ইরান-আফগানিস্তান মিলে সমুদ্রবন্দর হিসেবে ছাবাহারকে ব্যবহার করার চুক্তি স্বাক্ষর করে। চুক্তিতে ছিল যাত্রী পরিবহনের বিষয়টিও। কিন্তু ইরানের উপ-রাষ্ট্রদূতের দাবি আন্তর্জাতিক চাপে পড়ে প্রস্তাবিত বিনিয়োগ করছে না ভারত।
ইরানের সঙ্গে সব বাণিজ্য-সম্পর্ক বন্ধ করতে সব দেশের প্রতি চাপ বাড়াচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। গত ৪ নভেম্বরের মধ্যে ইরানের থেকে তেল আমদানি বন্ধ করতে হবে। পাশাপাশি ইরানের বন্দরগুলোতেও পণ্য পরিবহন করা যাবে না। নয়াদিল্লিকে ইতোমধ্যেই এ হুশিয়ারি দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন। না মানলে ভারতকে শাস্তির সম্মুখীন হতে পারে। এ নিয়েও সরব হয়েছে ইরান। ভারত এ মুহূর্তে ইরান থেকে যে পরিমাণ তেল আমদানি করে, তার ১০ শতাংশ কমানোও তেহরানের পক্ষে মেনে নেওয়া অসম্ভব। সেক্ষেত্রে তেলের দামে ভারত যে বিশেষ সুবিধে পেয়ে থাকে, তা সরিয়ে নেওয়া হতে পারে বলে হুশিয়ারি দিয়েছেন ইরানের উপ-রাষ্ট্রদূত মাসুদ।