দেশে এক কোটি ৮০ লাখ মানুষ কিডনি রোগে ভুগছে

সেমিনারে তথ্য

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশে এক কোটি ৮০ লাখ মানুষ কিডনি রোগে ভুগছে। তাদের মধ্যে প্রতিবছর ৩৫ থেকে ৪০ হাজারের কিডনি বিকল হচ্ছে। কিডনি বিকল হলে মাত্র ১০ শতাংশ মানুষ এ ব্যয়বহুল চিকিৎসার খরচ বহন করতে পারছে। ঢাকার বাইরে এ রোগের চিকিৎসা পাওয়ার সুযোগ নেই।

গতকাল ইন্টারন্যাশনাল সোসাইটি অব নেফ্রোলজি (আইএসএন), কিডনি ফাউন্ডেশন ও বাংলাদেশ রেনাল অ্যাসোসিয়েশনের যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠানে আলোচকরা এ কথা বলেন। তারা কিডনি রোগীদের চিকিৎসা, কিডনি সংযোজন ও ডায়ালাইসিসের ব্যবস্থা যাতে ঢাকার বাইরে সম্প্রসারণ করা হয়, সে বিষয়ে গুরুত্ব দেন।

রাজধানীর মিরপুরে কিডনি ফাউন্ডেশন মিলনায়তনে ‘আইএসএন পাইওনিয়ার অ্যাওয়ার্ড-২০১৭’ প্রদান ও বৈজ্ঞানিক সেমিনারের উদ্বোধনী পর্বের প্রধান অতিথি ছিলেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। তিনি বলেন, ঢাকার বাইরে থাকা বেশিরভাগ কিডনি রোগীর পক্ষে ঢাকায় এসে চিকিৎসা করানো সম্ভব হয় না। বিষয়টিকে ভাগ্যের ওপর ছেড়ে দিতে হয়। তিনি বলেন, সারা দেশে চিকিৎসা সম্প্রসারণের পাশাপাশি এক সময় ডায়রিয়া নিয়ে যেভাবে সচেতনতা তৈরি হয়েছিল, কিডনি রোগ প্রতিরোধেও সেভাবে সচেতনতা তৈরি করতে হবে। প্রয়োজনে অভিনেতাসহ জনপ্রিয় ব্যক্তিত্বদের দিয়ে বিষয়টি প্রচার করতে হবে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, উন্নয়নশীল দেশে কিডনি রোগ প্রতিরোধ ও চিকিৎসায় অগ্রণী ভূমিকার জন্য প্রতিবছর সম্মানসূচক ‘আইএসএন পাইওনিয়ার অ্যাওয়ার্ড’ দেওয়া হচ্ছে। বিশ্বের ১৫২টি দেশের কিডনি রোগবিষয়ক চিকিৎসকদের সংস্থা আইএসএন এই অ্যাওয়ার্ড দিচ্ছে। বেসরকারি উদ্যোগে বাংলাদেশে কিডনি রোগীদের চিকিৎসা, কিডনি সংযোজন ও ডায়ালাইসিস সম্প্রসারণ, রোগ প্রতিরোধে গবেষণা ও প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ গ্রহণসহ নানা বিষয়ে নেতৃত্ব দেওয়ার স্বীকৃতি হিসেবে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশ থেকে ‘আইএসএন পাইওনিয়ার অ্যাওয়ার্ড-২০১৭’ পেয়েছেন কিডনি ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি অধ্যাপক ডা. হারুন আর রশিদ।

আনুষ্ঠানিকভাবে হারুন আর রশিদের হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন আইএসএনের সাবেক প্রেসিডেন্ট ও অনুষ্ঠান সমন্বয়ক জন ফিহালি। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ বলেন, চলতি বছর কিডনিসহ বিভিন্ন অসংক্রামক ব্যাধি প্রতিরোধে বড় আকারের ক্যাম্পেইন চালানো হবে।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন সমাজকল্যাণ সচিব জিল্লার রহমান, বাংলাদেশ রেনাল অ্যাসোসিয়েশন সভাপতি অধ্যাপক রফিকুল আলম, মহাসচিব চিকিৎসক নজরুল ইসলাম, কিডনি ফাউন্ডেশনের সহসভাপতি অধ্যাপক এমএ ওয়াহাব, মহাসচিব অধ্যাপক এম মুহিবুর রহমান প্রমুখ।