বিশ্ব সংবাদ

নতুন পারমাণবিক অস্ত্র তৈরির হুমকি রাশিয়ার

 

শেয়ার বিজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্র স্থলভিত্তিক স্বল্প ও মাঝারি পাল্লার পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি শুরু করলে রাশিয়াও তেমনটি করবে বলে হুশিয়ার করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন। গত শুক্রবার ওয়াশিংটন আনুষ্ঠানিকভাবে ইন্টারমিডিয়েট রেঞ্জ নিউক্লিয়ার ফোর্সেস (আইএনএফ) চুক্তি থেকে সরে যাওয়ার পর সোমবার পুতিন এ হুশিয়ারি দেন। খবর : রয়টার্স।
তিন দশক আগে স্নায়ুযুদ্ধের সময় অস্ত্র নিয়ন্ত্রণে সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে আইএনএফ চুক্তিটি হয়েছিল। ওই চুক্তিতে ৫০০ কিলোমিটার থেকে পাঁচ হাজার ৫০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে সক্ষম মাঝারি পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল। এতে অল্প সময়ের নোটিসে দেশ দুটির পারমাণবিক হামলা চালানোর সক্ষমতা হ্রাস পেয়েছিল।
মস্কো চুক্তিটি লঙ্ঘন করছে এবং নিষিদ্ধ ঘোষিত এ ধরনের একটি ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করেছে এমন অভিযোগ তুলে যুক্তরাষ্ট্র আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তিটি ত্যাগ করার পর এটি অকার্যকর হয়ে গেছে, যদিও মস্কো ওয়াশিংটনের ওই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে।
এ পরিস্থিতিতে গত সোমবার পুতিন রাশিয়ার প্রতিরক্ষা ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং এসভিআর বৈদেশিক গোয়েন্দা বিভাগকে মৃত ওই চুক্তিটির আওতাধীন কোনো ক্ষেপণাস্ত্র যুক্তরাষ্ট্র উন্নয়ন, উৎপাদন বা মোতায়েন করে কি না, তার ওপর নিবিড় নজরদারি করার নির্দেশ দিয়েছেন। এক বিবৃতিতে পুতিন বলেছেন, ‘যদি যুক্তরাষ্ট্র এ পদ্ধতির উন্নয়ন সম্পন্ন করে এর উৎপাদন শুরু করেছে এমন কোনো নির্ভরযোগ্য তথ্য রাশিয়া পায়, তাহলে একই ধরনের ক্ষেপণাস্ত্রের উন্নয়নে পূর্ণ উদ্যোগ নেওয়া ছাড়া রাশিয়ার সামনে আর কোনো বিকল্প থাকবে না।’
মার্কিন কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, আমেরিকার মাঝারি পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রের প্রথম পরীক্ষামূলক উড্ডয়ন থেকে যুক্তরাষ্ট্র কয়েক মাস দূরে আছে, আর সেগুলো মোতায়েন আরও কয়েক বছরের ব্যাপার। আইএনএফ চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বের হয়ে যাওয়ার ঘোষণা আসার পর বিষয়টি নিয়ে রাশিয়ার নিরাপত্তা পরিষদের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রেসিডেন্ট পুতিন। ওই বৈঠকের পরই তিনি এ হুশিয়ারি দেন।

 

 

সর্বশেষ..