হোম প্রচ্ছদ নিত্যনতুন রেকর্ড গড়ছে পুঁজিবাজার

নিত্যনতুন রেকর্ড গড়ছে পুঁজিবাজার


Warning: date() expects parameter 2 to be long, string given in /home/sharebiz/public_html/wp-content/themes/Newsmag/includes/wp_booster/td_module_single_base.php on line 290

রুবাইয়াত রিক্তা: দেশের দুই পুঁজিবাজার মিলে গতকাল বৃহস্পতিবার আটটি রেকর্ড হয়েছে। বেশ কিছুদিন ধরেই চলছে এই রেকর্ড গড়া। প্রতিদিনই রেকর্ড ভেঙে নতুন নতুন রেকর্ড গড়ছে সূচক আর বাজার মূলধন। ২০১০ সালে রেকর্ড লেনদেন হওয়ার পর এখন চলছে রেকর্ড লেনদেনের মৌসুম। গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স, শরিয়াহ্ভিত্তিক সূচক ডিএসইএস ও ৩০টি বাছাই করা কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই৩০ সূচক এযাবৎকালের সর্বোচ্চ উচ্চতায় ওঠার রেকর্ড গড়ে। এছাড়া বাজার মূলধন গতকাল নতুন উচ্চতায় উঠেছে। ২০১০ সালে পুঁজিবাজারের প্রবল উত্থানেও ডিএসইর বাজার মূলধন এই পর্যায়ে যেতে পারেনি। অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ২০১০ সালে সর্বোচ্চ লেনদেনের রেকর্ড হয়েছিল ৩৪০ কোটি টাকা। এই রেকর্ড ভঙ্গ না হলেও বাজার মূলধন গতকাল তিন লাখ ৪৫ হাজার কোটির ঘরে পৌঁছায়। এছাড়া সিএএসপিআই সূচক, সিএসই৫০, সিএসআই সূচক সর্বোচ্চ উচ্চতায় ওঠার রেকর্ড গড়ে। এ থেকে বোঝা যাচ্ছে, বাজার এখন খুব ভালো অবস্থানে এসেছে। এখন বাজারের এই গতি ধরে রাখার জন্য বাজারসংশ্লিষ্ট সবাইকে সচেষ্ট থাকতে হবে।

গতকাল ব্যাংক খাতে লেনদেন হয় ৩১ শতাংশ বা ৩২৬ কোটি টাকা। এ খাতে দর সংশোধন হয়, যার কারণে ২১টি কোম্পানির দর কমেছে, বেড়েছে মাত্র পাঁচটির। এর মধ্যে রূপালী ব্যাংক ৯ দশমিক ৮৯ শতাংশ বেড়ে দরবৃদ্ধির শীর্ষ দুইয়ে চলে আসে। আর পতনের তালিকায় ছিল প্রিমিয়ার ব্যাংক, এনসিসি ও প্রাইম ব্যাংক। আর্থিক খাতে লেনদেন হয় ১৩২ কোটি টাকা, যা মোট লেনদেনের ১৩ শতাংশ। এ খাতও সংশোধনের ধারায় ছিল। মাত্র আটটি কোম্পানির দর বেড়েছে। এ খাতের জিএসপি ফিন্যান্স দরপতনের শীর্ষ দশে চলে আসে। বস্ত্রখাত ছিল ইতিবাচক অবস্থানে। এ খাতে লেনদেন হয় ১২৫ কোটি টাকা। সায়হাম টেক্সের দর ৯ দশমিক ৯৫ শতাংশ বেড়ে দরবৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে। এছাড়া সায়হাম কটন, শাশা ডেনিম ও সিএমসি কামাল দরবৃদ্ধির শীর্ষ দশে স্থান করে নেয়। অন্যদিকে দর সমন্বয় হওয়াতে জাহিন স্পিনিং ১১ দশমিক ৭৪ শতাংশ কমে পতনের শীর্ষে চলে আসে। গতকাল ইতিবাচক অবস্থানে ছিল ওষুধ ও রসায়ন খাত ও সিরামিক খাত। ওষুধ ও রসায়ন খাতের ২৮ কোম্পানির মধ্যে ২০টির দর বেড়েছে। এ খাতের বেক্সিমকো ফার্মা দরবৃদ্ধির শীর্ষ দশে ছিল। সিরামিক খাতে শতভাগ কোম্পানির দর বেড়েছে। এর মধ্যে ৯ দশমিক ৭৭ শতাংশ বেড়ে মুন্নু সিরামিক এবং ছয় দশমিক ৮৪ শতাংশ বেড়ে স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক দরবৃদ্ধির শীর্ষ দশে চলে আসে। গতকাল লেনদেনে নেতৃত্ব দেয় লংকাবাংলা ফিন্যান্স। তবে এর দর সংশোধন হয়। এছাড়া স্কয়ার ফার্মা, ফার্স্ট সিকিউরিটি ব্যাংক, সিটি ব্যাংক, রূপালী ব্যাংক, বেক্সিমকো ফার্মা, সিঙ্গার বিডি লেনদেনে নেতৃত্ব দেয়। গতকাল দুর্বল কিছু কোম্পানি দরবৃদ্ধির শীর্ষ পর্যায়ে ছিল। এর মধ্যে লিগ্যাসি ফুডওয়্যার, জিল বাংলা, খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং ও  ইমাম বাটন উল্লেখযোগ্য।