নিম্নমুখী যুক্তরাষ্ট্রের সয়াবিনের দাম

শেয়ার বিজ ডেস্ক : বিশ্ব বাণিজ্য নিয়ে উত্তেজনা বৃদ্ধি পাওয়ায় প্রভাব পড়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সয়াবিনের দামে। গত বৃহস্পতিবার পণ্যটির দামে নিম্নমুখী ধারা লক্ষ করা গেছে। তবে এদিন বেড়েছে গম ও ভুট্টার দাম। খবর বিজনেস রেকর্ডার।
আগামী জুলাইয়ে সরবরাহের চুক্তিতে শিকাগো বোর্ড অব ট্রেডে (সিবিওটি) বৃহস্পতিবার প্রতি বুশেল (৬০ পাউন্ড) সয়াবিনের দাম আগের দিনের তুলনায় সাড়ে চার সেন্ট কমেছে। দিনশেষে প্রতি বুশেল সয়াবিন বিক্রি হয় ১০ ডলার ১৮ সেন্টে।
ইউরোপ, কানাডা ও মেক্সিকোর ইস্পাত ও অ্যালুমিনিয়াম পণ্য আমদানিতে গত বৃহস্পতিবার শুল্কারোপের ঘোষণা দেয় মার্কিন প্রশাসন। গতকাল শুক্রবার থেকেই এ শুল্ক কার্যকর হওয়ার কথা। এর প্রতিক্রিয়ায় ওই দেশগুলোও মার্কিন পণ্যে পাল্টা শুল্কারোপের পরিকল্পনার কথা বলেছে। এতে বাণিজ্যযুদ্ধের ঝুঁকি বেড়েছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। এতে প্রভাব পড়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সয়াবিনের দামে।
তবে সয়াবিন আমদানিতে বিশ্বের সবচেয়ে বড় দেশ চীন। শিগগিরই দেশটির সঙ্গে মার্কিন কর্মকর্তাদের দ্বিতীয় দফায় বৈঠকে বসার কথা। এতে চীন আরও বেশি পরিমাণ মার্কিণ পণ্য কিনতে সম্মত হবে বলে মনে করছেন মার্কিন কর্মকর্তারা। এর আগে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে বাণিজ্য বিবাদ মেটাতে গত সপ্তাহে ওয়াশিংটন ও এর আগে বেইজিংয়ে বৈঠক করেছেন দুই দেশের প্রতিনিধিরা। এতে বাণিজ্য উত্তেজনা কিছুটা কমার আশায় সয়াবিনের সবচেয়ে বড় রফতানিকারক দেশ যুক্তরাষ্ট্রের রফতানি বৃদ্ধির সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। এর প্রভাব পড়েছে পণ্যটির দামে।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে সয়াবিনের দাম বৃদ্ধির পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্ববাজারে সয়াবিনের দামের নিম্নমুখী প্রবণতা পরিলক্ষিত হচ্ছে।
এদিকে জুলাইয়ে সরবরাহের চুক্তিতে গমের দাম বেড়ে প্রতি বুশেল বিক্রি হয়েছে পাঁচ ডলার ২৬ সেন্টে। আগের তুলনায় যা চার সেন্ট বা তিন দশমিক এক শতাংশ বেশি। এছাড়া প্রতি বুশেল ভুট্টার দাম উঠেছিল তিন ডলারে, যা আগের দিনের তুলনায় দশমিক ৫০ সেন্ট বেশি।