নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বালি উত্তোলন

শেয়ার বিজ প্রতিনিধি, বগুড়া: বগুড়ার ধুনটে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্দেশ অমান্য করে ইছামতি নদীতে ড্রেজার বসিয়ে আবারও বালি উত্তোলন করছেন এক যুবলীগ নেতা। এতে এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
জানা গেছে, উপজেলার ঝিনাই ছোটচাপড়া গ্রামে ইছামতি নদীতে ড্রেজার বসিয়ে বালি উত্তোলন করে আসছিলেন জয়শিং গ্রামের আবু তাহেরের ছেলে ও নিমগাছী ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক ফরহাদ হোসেন। গত ২ জুলাই উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জিন্নাত রেহেনা ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ফরহাদ হোসেন ও তার সহযোগী নান্দিয়াপাড়া এলাকার ওমর ফারুককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এ সময় বালি উত্তোলনের সরঞ্জামও ধ্বংস করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। কিন্তু ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানের দু’দিন পর আবারও ওই নদীতে ড্রেজার বসিয়ে বালি উত্তোলন অব্যাহত রেখেছেন যুবলীগ নেতা ফরহাদ হোসেন ও তার সহযোগীরা।
ছোট চাপড়া গ্রামের আজিবর রহমান ও মর্জিনা বেগম জানান, ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে বালি উত্তোলন বন্ধ করলেও তারা প্রভাব খাটিয়ে ফের বালু উত্তোলন করে চলেছেন। নদীর গভীর তলদেশ থেকে বালি উত্তোলনের কারণে ফসলি জমি ও বসতভিটা ভাঙনের কবলে পড়েছে।
ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক ফরহাদ হোসেন জানান, একজনের কাছে চুক্তি নিয়ে কয়েক দিনের জন্য বালি তুলছিলেন। জরিমানা দেওয়ার ক্ষতি পুষিয়ে নিতে এখনও বালি উত্তোলন করছেন।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাজিয়া সুলতানা জানান, ভ্রাম্যমাণ আদালতের রায় অমান্য করে বালি উত্তোলনের অভিযোগ পেয়েছেন। দ্রুত এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেবেন।