নোয়াখালীতে গাঙচিলের শুটিংয়ে আহত পূর্ণিমা-ফেরদৌস

প্রতিনিধি, নোয়াখালী: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের লেখা গাঙচিল উপন্যাস অবলম্বনে শুরু হয়েছে গাঙচিল চলচ্চিত্রের শুটিং। নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের গাঙচিল চরের বাসিন্দাদের দৈনন্দিন জীবনের নানা উপাখ্যান নিয়ে নইম ইমতিয়াজ নেয়ামূলের পরিচালনায় এ চলচ্চিত্রটি নির্মিত হচ্ছে।
এদিকে এ চলচ্চিত্রের শুটিং চলাকালে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন চিত্রনায়ক ফেরদৌস ও চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা। নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের চরমণ্ডল এলাকার একটি সড়কে গতকাল রোববার সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করলেন নির্মাতা নইম ইমতিয়াজ নেয়ামূল।
নির্মাতা বলেন, ‘আজ (রোববার) সকাল ১০টায় দুর্ঘটনাটি ঘটে। বেশ আঘাত পেয়েছেন দুজন। তাদের হাতে ও পায়ে প্রচণ্ড চোট লেগেছে। রক্তক্ষরণ হয়েছে প্রচুর। তবে দুশ্চিন্তার কিছু নেই। ঘটনাস্থলে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে দুজনকে বসুরহাট সেন্ট্রাল হাসপাতালে দ্রুত নিয়ে যাই। চিকিৎসকরা এক্সরে করে জানিয়েছেন, হাড় ভাঙেনি। এটাই আপাতত বড় প্রশান্তির বিষয়।’
নেয়ামূল জানান, রোববার শুটিংয়ে মোটরসাইকেলের একটি দৃশ্য ধারণ চলছিল ফেরদৌস-পূর্ণিমার। পূর্ণিমা মোটরসাইকেল চালাচ্ছিলেন। ফেরদৌস ছিলেন পেছনে বসা। চলন্ত অবস্থায় মোটরসাইকেলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুজনই ছিটকে পড়েন সড়কের ওপর এবং প্রচণ্ড আঘাত পান, কারণ সড়কটি ছিল পিচঢালা। হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে বিকাল ৪টা নাগাদ বিশ্রামের জন্য স্থানীয় আবাসিক হোটেলে নেওয়া হয়েছে দুজনকে।
‘গাঙচিল’ ছবিতে বিশেষ চরিত্রে দেখা যাবে কলকাতার অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তকে। এ ছবিতে আরও অভিনয় করছেন আনিসুর রহমান মিলন, তারিক আনাম খান প্রমুখ। এখানে ফেরদৌস একজন সাংবাদিকের চরিত্রে অভিনয় করছেন। পূর্ণিমাকে দেখা যাবে এনজিও কর্মী হিসেবে।
গতকাল শুটিংস্থলে গিয়ে দেখা গেছে, ওই ঘাটে নায়ক ফেরদৌস, নায়িকা পূর্ণিমা ও অভিনেতা আনিসুর রহমান মিলন একটি ইঞ্জিনচালিত নৌকায় শুটিং করছেন। এ সময় নায়ক ফেরদৌস ও নায়িকা পূর্ণিমাকে দেখার জন্যে ঘাট এলাকায় শত শত নারী-পুরুষের জমায়েত হয়। এর আগে গত ৬ ফেব্রুয়ারি চরএলাহির গাঙচিল বাজারের একটি স্কুলমাঠে এ চলচ্চিত্রের কিছু অংশ চিত্রায়িত হয়েছে।