সারা বাংলা

নোয়াখালীতে জলাবদ্ধতায় ভোগান্তি বেড়েছে শহরবাসীর

প্রতিনিধি, নোয়াখালী: গত দুদিনের টানা বৃষ্টিতে জলাবদ্ধ হয়ে পড়েছে নোয়াখালী শহরসহ পুরো জেলা। জেলা শহরের প্রায় বাসাবাড়িই পানিতে সয়লাব হয়ে গেছে। শুধু বাসাবাড়িই নয়, সরকারি অফিস-আদালতেও হাঁটুপানি দেখা গেছে। স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রী ও সাধারণ মানুষ চলাফেরায় নানা ভোগান্তির শিকার হচ্ছে।
নোয়াখালী জজকোর্টের দক্ষিণ পাশের সড়কটি বর্তমানে এক ফুট পানির নিচে তলিয়ে রয়েছে। যে কারণে আইনজীবী ও বিচারপ্রার্থীরা পোহাচ্ছেন নানা ভোগান্তি। একই অবস্থা সরকারি মহিলা কলেজ ও গার্লস স্কুলের রাস্তায়। এদিকে, সোনাপুর গ্রামের অনেক পরিবারের বসতঘরে পানি থই থই করছে। তবে স্থানীয়রা জানান, আগে কোথাও পানি চলাচলের পথ বন্ধ থাকার কথা শুনলে পৌর মেয়র কিংবা জেলা প্রশাসকরা ছুটে আসতেন। সরেজমিনে দেখে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিতেন। বর্তমানে যেন কারও ঘুম ভাঙছে না।
আবদুর রহিম নামে একজন জানান, এর আগে জেলার বিদায়ী জেলা প্রশাসক মাহবুব আলম তালুকদার বলেছেন, স্বল্পসময়ে জলাবদ্ধতা থেকে পৌরবাসী মুক্তি পাবে। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয়নি। বরং নালা-নর্দমা যে যেভাবে পারছে দখল করে নিয়েছে। এর ফলে পানি চলাচলের স্বাভাবিক পথ রুদ্ধ হয়ে গেছে। সম্প্রতি শহরের ছাগলমারা খালের কিছু অংশ জেলা প্রশাসন ও পৌরসভা যৌথভাবে পুনরুদ্ধারের উদ্যোগ নিলেও বৃষ্টির কারণে উদ্ধারকাজ বন্ধ হয়ে গেছে।
এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক তš§য় দাস জানান, শহর ও পুরো জেলায় দখল হওয়া খালগুলো উদ্ধারের কাজ চলছে। বৃষ্টির কারণে বর্তমান কাজ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

সর্বশেষ..