স্পোর্টস

‘পরিশ্রমের ফল পাচ্ছি’

ক্রীড়া ডেস্ক: বিশ্বকাপের প্রথম চার ম্যাচেই বিশ্বের চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে পঞ্চাশ ছোঁয়া ইনিংস খেলেন সাকিব আল হাসান। এর মধ্যে দুটিতে রয়েছে সেঞ্চুরি। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার মনে করেন গত দেড় মাসের কঠোর পরিশ্রমেই এমন সাফল্য পাচ্ছেন।
দ্বাদশ বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সাকিব করেছিলেন ৭৫ রান। পরের ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তার ব্যাট থেকে আসে ৬৪ রান। এদিকে ইংল্যান্ড ম্যাচে এ বাঁহাতি তুলে নেন বিশ্বকাপ ইতিহাসে নিজের প্রথম সেঞ্চুরি। গত পরশুও সেই ধারাবাহিকতা ধরে রাখেন বিশ্বসেরা এ অলরাউন্ডার। এ পারফরম্যান্স তার পরিশ্রমের ফসল, এটা অসাধারণ একটা অনুভূতি। অবশ্যই উইকেটে শেষ পর্যন্ত থাকতে পারাটা সবচেয়ে সন্তুষ্টির। আমি ব্যাটিং নিয়ে গত দেড় মাস ধরে কাজ করেছি। তারই ফল পাচ্ছি। আমার মনে হয়, ওয়েস্ট ইন্ডিজকে আমরা ডিসেন্ট একটা স্কোরে থামাতে পেরেছিলাম। ওদের ইনিংস শেষে আমার বিশ্বাস ছিল, যদি ভালো ব্যাটিং করতে পারি তাহলে আমরা ওই রান পেরিয়ে যেতে পারব।’
সাকিব এখন তিন নম্বর পজিশনে ব্যাট করেন। এ সুযোগটা পেয়েই নাকি বেশি সফল পেয়েছেন তিনি, ‘তিনে নামার সিদ্ধান্ত কেন নিয়েছিলাম? আমি জানি না। তবে আমি জানতাম যদি তিনে ব্যাটিং করি তাহলে বেশি সুযোগ পাব। বেশি সময় ধরে ব্যাটিংয়ের সুযোগ পাব। পাঁচে ব্যাটিং করার সময় কখনও কখনও আমি ৩০ বা ৪০ ওভারের সময় নামতাম। আমার মনে হয়েছিল, এটা আমার জন্য আদর্শ নয়। এ কারণেই আমি ওপরের দিকে ব্যাটিং করতে চেয়েছিলাম। এর বাইরে অন্য কোনো কারণ নেই।’
বিশ্বকাপে টানা চার ম্যাচে কুমার সাঙ্গাকারার সেঞ্চুরির রেকর্ড রয়েছেন। সেটা কি এবার ভাঙতে পারবেন সাকিব? অবশ্য আশা ছাড়ছেন না তিনি, ‘আশা করি হবে। তবে সেরা ছন্দে থাকা অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে কাজটা সহজ নয়। ওদের বিপক্ষে আমাদের সেরা খেলাটা খেলতে হবে।’

সর্বশেষ..