পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে পারাপারের অপেক্ষায় ৯ শতাধিক যানবাহন

দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটের উভয় ঘাটে পারের অপেক্ষায় রয়েছে ৯ শতাধিক যানবাহন। ঢাকাগামী যানবাহনের বাড়তি চাপের কারণে ঘণ্টার পর ঘণ্টা ফেরির জন্য অপেক্ষা করছেন পরিবহন শ্রমিক ও সাধারণ যাত্রীরা।

তবে যাত্রী ভোগান্তির বিবেচনা করে বাস ও ছোট গাড়ি অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পারাপার করার কারণে ট্রাকগুলোকে আটকা থাকতে হচ্ছে দিনের পর দিন।

আজ শুক্রবার সকালে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটের উভয় ফেরিঘাট সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা এ তথ্য জানান।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন সংস্থার (বিআইডব্লিউটিসি) পাটুরিয়া কার্যালয়ের বাণিজ্য বিভাগের সহকারি মহাব্যবস্থাপক নাছির মোহাম্মদ চৌধুরী জানান, পাটুরিয়া দৌলতদিয়া নৌরুটে ছোট বড় মিলে ২১টি ফেরি রয়েছে।যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে দুটি ফেরি মেরামতে থাকায় ২১টি ফেরি চলাচল করছে। মাওয়া ফেরিঘাট এলাকায় যানবাহন পারাপার ব্যাহত হওয়ায় পাটুরিয়া দৌলতদিয়া নৌরুটে চাপ পড়ছে বলে জানান তিনি।

সবশেষ মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকায় ৮০ থেকে ৯০টি যাত্রীবাহী পরিবহন ও শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক পারের অপেক্ষায় রয়েছে বলেও জানান নাছির মোহাম্মদ চৌধুরী।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া ফেরিঘাট শাখা বাণিজ্য বিভাগের ব্যবস্থাপক খোরশেদ আলম জানান, দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকায় ঢাকামুখী যানবাহনের চাপ বাড়ছে। সবশেষ দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকায় প্রায় তিন শ’ যাত্রীবাহী পরিবহন, চার শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক ও ৭০/৮০টি ব্যক্তিগত ছোট গাড়ি পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে।

এতে করে যাত্রী ভোগান্তির বিষয়টি বিবেচনা করে যাত্রীবাহী পরিবহন ও ব্যক্তিগত ছোট গাড়িগুলো অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পারাপার করা হচ্ছে। তবে পচনশীল বা জরুরি পণ্যবাহী ট্রাকগুলো পারাপার স্বাভাবিক রয়েছে। পণ্যবাহী অপর ট্রাকগুলোকে টার্মিনালে আটকে রাখা হচ্ছে বলেও জানান খোরশেদ আলম।