পাসপোর্ট-সময়-ভ্রমণ বাহামার দ্বীপে দ্বীপে

ঘুরে বেড়াতে কে না পছন্দ করে। ভ্রমণপ্রিয় মানুষ দেশ থেকে দেশে বেড়াতে ভালোবাসে। তবে ইচ্ছা থাকলেও ভিসা জটিলতায় অনেকে দেশের বাইরে যেতে পারে না। এরপরও আপনার যদি পাসপোর্ট হাতে পর্যাপ্ত সময় থাকে, তাহলে বিনা ভিসায় কিছু দেশ ভ্রমণ করতে পারবেন। আজ এমন একটি দেশ বাহামার কথা জানাচ্ছেন মো. ইমরান হোসেন
বাংলাদেশ থেকে ভিসা ছাড়া বিশ্বের কয়েকটি দেশ ভ্রমণ করা যায়। একদিন বা দুদিন নয়, চাইলে সেখানে মাসখানেক কাটিয়ে আসতে পারবেন। জানতে পারবেন সেখানকার সংস্কৃতি, জীবন, জীবিকাসহ অনেক কিছু। এমনই একটি দেশ বাহামা। আপনি পর্যটক হিসেবে বেশ কিছুদিনের জন্য বাহামায় ঘুরে বেড়াতে চাইলে তবেই অন অ্যারাইভাল ভিসানিয়ে দেশটিতে প্রবেশ করতে পারবেন।
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের দক্ষিণ-পূর্বে, কিউবা ও হিস্পানিওলা দ্বীপের উত্তরে অবস্থিত স্বাধীন দ্বীপপুঞ্জ বাহামা। প্রায় ১৫শ ক্ষুদ্র দ্বীপ নিয়ে গঠিত দেশটি। রাজধানী নাসাউ। অবস্থান, জলবায়ু, ভৌগোলিক প্রভৃতি কারণে পর্যটকদের জনপ্রিয় গন্তব্যস্থলে পরিণত হয়েছে বাহামা। উষ্ণ উপসাগরীয় সে াতের কাছে অবস্থিত হওয়ায় সারা বছরই এখানকার জলবায়ু মৃদু থাকে। নীল সমুদ্রের পাশে অনেক সুন্দর সমুদ্রসৈকত অবস্থিত। প্রতি বছর হাজার হাজার পর্যটক এখানে বেড়াতে আসেন।

আটলান্টিস প্যারাডাইস আইল্যান্ড
বাহামার এ দ্বীপ সমুদ্রকেন্দ্রিক রিসোর্ট। এখানকার ১৪১ একর আয়তনের জলপ্রপাতে আপনি বিনামূল্যে প্রবেশ করতে পারবেন। সামুদ্রিক মাছের বাসস্থানও বলা হয় দ্বীপটিকে। স্বচ্ছ পানিতে হ্যামারহেড হাঙ্গর ও নানা মাছের সাঁতার দেখতে পাবেন। এ ছাড়া রয়েছে পুল, লবণাক্ত খাল, বিলাসবহুল হোটেল, বিনোদন কমপ্লেক্স, অ্যাকুয়ারিয়াম, ওয়াটার পার্ক, রেস্টুরেন্ট প্রভৃতি।

নাসাউ
নাসাউ দেশটির রাজধানী। তবে এটা জনপ্রিয় ক্রুজ জাহাজ বন্দর হিসেবে পরিচিত। এখানকার দোকান, রেস্টুরেন্ট, জাদুঘর ও শহরতলির বে স্ট্রিটের মিছরি রঙের ঔপনিবেশিক ভবনগুলো দেখার জন্য আপনাকে এখানে বারবার আসতে হবে।
হারবার আইল্যান্ড
গোলাপি বালির সমুদ্রসৈকত বলা হয় হারবার আইল্যান্ডকে। গোলাপি বালি পৃথিবীতে সচরাচর দেখা যায় না। তাই এ বালি দেখতে হলে হারবার দ্বীপে যেতে হবে।

গ্রান্ড বাহামা
বাহামার উত্তরে অবস্থিত গ্রান্ড বাহামা। রাজধানীর পর দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর গ্রান্ড বাহামা। এখানে শপিংমল, বিনোদনের জন্য পর্যটন কেন্দ্র, জুয়েলারি ব্যবসা, খড়ের তৈরি সামগ্রী পাওয়া যায়। তিনটি জাতীয় উদ্যানও আছে যা প্রকৃতিপ্রেমীদের কাছে আকর্ষণীয়। পৃথিবীর দীর্ঘতম ডুবো গুহা সিস্টেমের একটি বাড়িও আছে এখানে।

সবুজ কচ্ছপ প্রাচীর
গ্রীষ্মকালে রাস্তায় হাঁটতে হাঁটতে বাহামায় দেখতে পাবেন সবুজ কচ্ছপের প্রাচীর। মূলত এখানে নানা রঙের কচ্ছপ আকৃতির বাড়ি রয়েছে।

বিমিনি
বাহামার বিমিনি দ্বীপটি মাছ ধরার জন্য বেশি পরিচিত। দ্বীপটি যুক্তরাষ্ট্রের ক্লোসেন্ট দ্বীপ থেকে প্রায় ৮৮ কিলোমিটার পূর্বে অবস্থিত। বিমিনি দ্বীপে মার্চ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত গভীর সমুদ্রে মাছ ধরার টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হয়। নির্জন এ দ্বীপের পাড়ে বসে অনেক বিখ্যাত লেখক উপন্যাসও লিখেছেন।

সংস্কৃতি
জানকানু সঙ্গীত বাহামার প্রধান সঙ্গীত। কার্নিভালে প্যারেডের সঙ্গে এ গান গাওয়া হয়। এটা ২৬ ডিসেম্বর (বক্সিং ডে) ও বছরের প্রথম দিন ১ জানুয়ারিতে গাওয়া হয়। প্যারেডের সময় ক্রেপ পেপার তৈরির দর্শনীয় পোশাক পরিধান করে স্থানীয়রা। এ ছাড়া ক্যালেপসো, ত্রিনিদাদিয়ান সোকার ও জ্যামাইকান র‌্যাগ সঙ্গীত বাহামায় প্রচলিত আছে।
তারা অন্য বিভিন্ন অনুষ্ঠানে আলখাল্লা পোশাক পরেন। মেয়েরা তুলনামূলক খাটো পোশাক পরেন।