পুঁজিবাজারে কর্তৃত্ব কমছে ব্র্যাক ইপিএলের

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনে কর্তৃত্ব কমছে ব্র্যাক ইপিএল স্টক ব্রোকারেজ লিমিটেডের। ব্র্যাক ব্যাংকের এ সহযোগী প্রতিষ্ঠানটি ডিএসইতে লেনদেনে একসময় শীর্ষস্থানে থাকলেও গত কয়েক মাস ধরে সিকিউরিটিজ হাউজটি শীর্ষ চারের মধ্যেও থাকতে পারেনি। অন্যদিকে শীর্ষ দশের বাইরে থাকা ‘ইবিএল সিকিউরিটিজ’ গত কয়েক মাসে ভালো পারফরম্যান্স দেখিয়ে ব্র্যাক ইপিএলের স্থান দখল করে নিচ্ছে।

ডিএসই সূত্রে জানা গেছে, গত তিন মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) লেনদেনের শীর্ষ তালিকার চতুর্থ স্থানে ছিল ইবিএল সিকিউরিটিজ। আর এ তিন মাসে পঞ্চম ও ষষ্ঠ স্থানের মধ্যে ওঠানামা করছে উভয় স্টক এক্সচেঞ্জের ট্রেকহোল্ডার ব্র্যাক ইপিএল।  এ সময়ে ডিএসইর ট্রেকহোল্ডারদের মধ্যে লেনদেনের ভিত্তিতে প্রথম ও দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে যথাক্রমে লংকাবাংলা সিকিউরিটিজ ও আইসিবি সিকিউরিটিজ অ্যান্ড ট্রেডিং কোম্পানি লিমিটেড। সেপ্টেম্বরসহ টানা তিন মাস ধরেই তৃতীয় স্থানে রয়েছে আইডিএলসি সিকিউরিটিজ। তিন মাস ধরেই চতুর্থ স্থান দখল করে আছে ইবিএল সিকিউরিটিজ। আর বিদায়ী সেপ্টেম্বরে ব্র্যাক ইপিএল স্টক ব্রোকারেজের অবস্থান পঞ্চমে দাঁড়িয়েছে।

এ প্রসঙ্গে কথা হয় ব্র্যাক ইপিএলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) শরীফ এমএ রহমানের সঙ্গে। তিনি শেয়ার বিজকে বলেন, ‘দিন দিন আমাদের গ্রাহক বাড়ছে। তবে আমাদের হাউজে নেগেটিভ ইক্যুইটি কম। এসব মার্জিন লোনধারীদের হিসাব আমরা তাদের অনুমতি ছাড়া অপারেটও করি না। অন্যদিকে কয়েকটি ব্রোকারেজ হাউজে নেগেটিভ ইক্যুইটি বেশি থাকায় বারবার শেয়ার কেনাবেচা করছে। এর ফলে লেনদেনে সেসব হাউজ এগিয়ে যাচ্ছে, আর আমরা কিছুটা পিছিয়ে পড়ছি।’

বিশ্লেষণে দেখা যায়, গত বছরের জুনে ডিএসই লেনদেনের ভিত্তিতে শীর্ষ ২০ ব্রোকারেজ হাউজের শীর্ষে ছিল ব্র্যাক ইপিএল। তখন ইবিএল সিকিউরিটিজের অবস্থান ছিল ১১তম। সর্বশেষ তথ্যমতে, এ হাউজটির অবস্থান চতুর্থতম। বছরের ব্যবধানে ব্র্যাক ইপিএলের স্থান দখল করে নিয়েছে ইবিএল সিকিউরিটিজ।

সেপ্টেম্বরে ডিএসইর লেনদেনের ভিত্তিতে শীর্ষ ২০ ব্রোকারেজ হাউজের তালিকায় প্রথম স্থানে ছিল লংকাবাংলা সিকিউরিটিজ। এ তালিকায় দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে রয়েছে যথাক্রমে আইসিবি সিকিউরিটিজ অ্যান্ড ট্রেডিং কোম্পানি ও আইডিএলসি সিকিউরিটিজ। ইবিএল সিকিউরিটিজের অবস্থান ছিল চতুর্থ। আর পঞ্চম স্থানে ছিল ব্র্যাক ইপিএল।

শীর্ষ দশের তালিকায় থাকা অন্য ব্রোকারেজ হাউজ হলো সিটি ব্রোকারেজ, ইউনিক্যাপ সিকিউরিটিজ, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং সিকিউরিটিজ, এআইবিএল ক্যাপিটাল মার্কেট সার্ভিসেস ও শেলটেক ব্রোকারেজ।

বিদায়ী মাসে শীর্ষ বিশে থাকা অন্য ব্রোকারেজ হাউজ হচ্ছে ইউসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট, ইউনাইটেড এন্টারপ্রাইজ, এমটিবি সিকিউরিটিজ, ইউনাইটেড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসিং, মার্চেন্ট সিকিউরিটিজ, শাহ্জালাল ইসলামী ব্যাংক সিকিউরিটিজ, কে এইচ বি সিকিউরিটিজ, ব্যাংক এশিয়া সিকিউরিটিজ, রয়েল ক্যাপিটাল ও মাল্টি সিকউরিটিজ অ্যান্ড সার্ভিসেস লিমিটেড।

লংকাবাংলা সিকিউরিটিজ গত আগস্টেও ডিএসইতে লেনদেনে প্রথম স্থানে ছিল। দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল আইসিবি সিকিউরিটিজ ট্রেডিং কোম্পানি। এ মাসে লেনদেনে তৃতীয় অবস্থানে ছিল আইডিএলসি সিকিউরিটিজ লিমিটেড। চতুর্থ স্থানে ছিল ইবিএল সিকিউরিটিজ, পঞ্চম স্থানে ছিল ইউনিক্যাপ সিকিউরিটিজ। আর ষষ্ঠ স্থানে ছিল ব্র্যাক ইপিএল স্টক ব্রোকারেজ। সপ্তম স্থানে এআইবিএল ক্যাপিটাল মার্কেট সার্ভিসেস, অষ্টম স্থানে সিটি ব্রোকারেজ, নবম স্থানে শেলটেক ব্রোকারেজ ও ইন্টারন্যাশনাল লিজিং সিকিউরিটিজ ছিল দশম স্থানে।

আগস্টে শীর্ষ বিশে থাকা অন্য ব্রোকারেজ হাউজ হচ্ছে ইউনাইটেড ফাইন্যান্সিয়াল ট্রেডিং কোম্পানি, এমটিবি সিকিউরিটিজ, ইউসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট, রয়েল ক্যাপিটাল, শান্তা সিকিউরিটিজ, ব্যাংক এশিয়া সিকিউরিটিজ, বিডি সানলাইফ সিকিউরিটিজ, বিএলআই সিকিউরিটিজ, শাহ্জালাল ইসলামী ব্যাংক সিকিউরিটিজ ও এসআইবিএল সিকিউরিটিজ লিমিটেড।