বিশ্ব সংবাদ

প্রথম প্রান্তিকে ঘুরে দাঁড়িয়েছে ব্রিটেনের প্রবৃদ্ধি

শেয়ার বিজ ডেস্ক: গত ২৯ মার্চ ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে ব্রিটেনের চূড়ান্তভাবে বেরিয়ে যাওয়ার কথা ছিল। বিচ্ছেদের পর এর প্রভাব ঠেকানোর প্রস্তুতি হিসেবে উৎপাদন বৃদ্ধি করেছে উৎপাদকরা। এতে চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) ব্রিটেনের প্রবৃদ্ধি আগের প্রান্তিকের তুলনায় ঘুরে দাঁড়ায়। খবর: বিবিসি।
ব্রিটেনের পরিসংখ্যান ব্যুরোর তথ্যমতে, প্রথম প্রান্তিকে দেশটির প্রবৃদ্ধি হয়েছে দশমিক পাঁচ শতাংশ, আগের প্রান্তিকের দশমিক দুই শতাংশের চেয়ে যা দ্বিগুণেরও বেশি। এ সময়ে ম্যানুফ্যাকচারিং খাতে প্রবৃদ্ধি ১৯৮৮ সালের পর সবচেয়ে বেশি হারে বেড়েছে।
প্রতিবেদনমতে, ২৯ মার্চ ব্রেক্সিটেনর সময়সীমাকে কেন্দ্র করে বেশি করে ক্রয়াদেশ পায় ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানিগুলো। মূলত এ খাতের ওপর ভর করেই সার্বিক অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বেড়েছে দেশটির। এ সময়ে সবচেয়ে বেশি বেড়েছে ওষুধ খাতের উৎপাদন। চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় এ খাতে উৎপাদন বেড়েছে ৯ দশমিক চার শতাংশ।
ব্রিটেনের ব্রেক্সিট বাস্তবায়নের কথা ছিল ২৯ মার্চ। কিন্তু ব্রেক্সিট-পরবর্তী চুক্তি নিয়ে সমঝোতায় পৌঁছাতে না পারায় কয়েক দফা আলোচনার পর ব্রেক্সিট প্রক্রিয়ার জন্য আরও ছয় মাস সময় বৃদ্ধি করা হয়েছে। ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে’র আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে নতুন করে এ সময় দেয় ইইউ।
৪০ বছরের বেশি সময় ইইউর সঙ্গে থাকার পর ২০১৬ সালের ২৩ জুন একটি গণভোটের আয়োজন করে ব্রিটেন। সেখানে ইইউর সঙ্গে ব্রিটেনের থাকা নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে ভোট চাওয়া হয়। ইইউতে থাকার বিপক্ষে ৫২ শতাংশ ভোট পড়ে। আর থাকার পক্ষে ছিল বাকি ৪৮ শতাংশ ভোট। তবে সেই ভোটের ফলাফলের পরিপ্রেক্ষিতেই ব্রেক্সিট কার্যকর হয়নি।
ব্রিটেনকে একটি চুক্তিতে পৌঁছার জন্য দীর্ঘদিন ধরে সংগ্রাম করতে হচ্ছে। ইইউ ও ব্রিটেনের মধ্যে চলমান এ টানাপড়েনের কারণে বিশ্ব অর্থনীতিতে প্রভাব পড়েছে। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে চলমান বাণিজ্যযুদ্ধের কারণে মন্দাবস্থা চলছে বিশ্বজুড়ে। অনেক শিল্পপ্রতিষ্ঠানও মারাত্মকভাবে ক্ষতির মুখে পড়েছে।

সর্বশেষ..