ফোনে কি কেউ আড়ি পাতছে?

এ যুগে স্মার্টফোন ট্যাপ করা বেশ সহজ। কথোপকথন রেকর্ড করা যায় অজান্তে। ফোনে আড়ি পেতে কথা শুনে অন্যকে ঘায়েল করা যায়। হ্যাকাররা আপনার ফোনের দুর্বলতা খুঁজে বের করে সহজে ট্যাপিং ডিভাইসে পরিণত করতে পারে। সুতরাং এই গুরুতর বিষয়ে সজাগ হতে হবে। তাই কয়েকটি কৌশলের মাধ্যমে জেনে নিন আপনার ফোনে কেউ আড়ি পাতছে কি না:

অস্বাভাবিক ব্যাকগ্রাউন্ড নয়েজ
ট্যাপ করা হলে কথা বলার সময় ব্যাকগ্রাউন্ড নয়েজ বা শব্দ শুনতে পাওয়া যায়। যদি বিপবিপ শব্দ কিংবা অনর্গল শব্দ শুনতে পান, তাহলে ধরে নিতে পারেন আপনার ফোনে অন্য কেউ আড়ি পেতেছে। কথা না বলে একটু চুপ করে থাকুন, এবার কি আওয়াজ পাচ্ছেন? আওয়াজ পেলে ধরে নিন ফোন ট্যাপিংয়ের শিকার হয়েছেন। এছাড়া দু’প্রান্তের নেটওয়ার্ক ফুল থাকা সত্ত্বেও যদি কল চলাকালীন ক্রমাগত ভয়েস ব্রেক হতে থাকে, তাহলেও তা ফোন ট্যাপিংয়ের কারণ বলে ধরে নিতে পারেন।

ব্যাটারি লাইফ চেক করুন
স্মার্টফোনটির ব্যাটারির চার্জ অস্বাভাবিকভাবে কমে যাচ্ছে? উত্তর যদি হ্যাঁ হয়, তবে তা ফোন ট্যাপ হওয়ার আরেকটি লক্ষণ হতে পারে। কেন এমন হয়? উত্তর হচ্ছে: আপনার ফল কল অ্যাপের সাহায্যে তৃতীয়পক্ষের কাছে পাঠানোর সময় ফোনের ব্যাটারির চার্জ দিগুণ ক্ষয় হয়। এজন্য ফোনের ব্যাটারির চার্জ দ্রুত ফুরিয়ে যেতে পারে। ফোনটি অস্বাভাবিক গরম হয়ে উঠতে পারে। অবশ্য অনেক সময় স্মার্টফোনে একসঙ্গে বেশ কয়েকটি অ্যাপ অন থাকলেও এটা হতে পারে।

ফোনটি শাটডাউন করুন
আপনার ফোন ট্যাপ বা মনিটর করা হলে অবশ্যই ফোনে আজব শব্দ শুনতে পাবেন। ফোন দ্রুত গরম হয়ে উঠবে। কোনো কারণ ছাড়া রিস্টার্ট হতে শুরু হবে। হঠাৎ ফোনের আলো জ্বলে উঠতে পারে। এসব হলে বুঝতে হবে আপনার ফোনে নিশ্চয়ই কোনো রিমোট অ্যাকসেস রয়েছে বাইরে থেকে কেউ ফোনটি নিয়ন্ত্রণ করছে। নিশ্চিত হতে ফোনটি শাটডাউন করে দেখুন। যদি সম্পূর্ণ ফোন শাটডাউন হওয়ার পরও স্ক্রিনে আলো জ্বলে থাকে বা শাটডাউন নিতে অনেক দেরি হয় কিংবা শাটডাউন ফেল হয়ে যায়, তাহলে বুঝবেন কোনো সমস্যা রয়েছে।

বিল বেড়ে যাওয়া
স্পাইং অ্যাপগুলো ফোনের সেল্যুলার ডেটা
ব্যবহার করতে পারে। যদি আপনার ফোনে কোনো ডেটা প্ল্যান অ্যাকটিভ করা না থাকে, সেক্ষেত্রেও ফোনের বিল বেড়ে যেতে পারে। আপনি যদি পোস্টপেইড প্ল্যান ব্যবহার করেন, সে ক্ষেত্রে মাসের শেষে মোটা অঙ্কের বিল চলে আসতে পারে। এ ক্ষেত্রে ফোন বিলের বিস্তারিত তথ্য হাতে পেলে যাচাই করে দেখতে পারেন কোনো অসংগতি রয়েছে কিনা! প্রি-পেইড নম্বরের ক্ষেত্রে অবশ্য তেমন কোনো উপায় নেই।